পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


नांद्री [ ક્ષ્મ ] मांशॆी . এবং হস্তিনী অশ্বে পরিতুষ্ট থাকে। এই লঙ্কল নারী বাল, তরুণী, প্রোঢ় ও বৃদ্ধ ভেদে চারিপ্রকার। ১৬ বৎসর পর্যন্ত মারাদিগকে বাল, ৩০ বৎসর পর্যন্ত তরুণী, ৫০ বৎসর প্রৌঢ় ও তৎপরে বৃদ্ধ কহে । রতিবিষয়ে বালা প্রশিক্ষাঙ্গিনী, তরুণী প্রাণহারিণী, প্রৌঢ় বৃদ্ধকারিণী এবং বৃদ্ধ মৃত্যুদয়িনী। ব্রহ্মবৈবর্তপুরাণে এই নারী ত্ৰিবিধ বলিয়। কথিত হইয়াছে যথা সার্থী, ভোগ ও কুলট। যাহার পরলোকে ভয়, আপনার যশ ও কামস্নেহবশতঃ সৰ্ব্বদা স্বামিসেব করে, তাহাদিগকে স্বাধী কহে । যাহার ভোগ্য বস্তুর প্রার্থী কুইয়া কামস্নেহে পতি সেবা করে, তাহাদিগকে ভোগ্য কহে, যতদিন পৰ্য্যস্ত অভিলষিত বস্ত্র ও অলঙ্কাৰ প্রভৃতি প্রাপ্ত হয়, ততদিনই বশবর্ধিনী থাকে। কুলটা কুলাজারকুল্য, ইহারা সৰ্ব্বদা স্বামীর প্রতি কপটৰূপে সেবা করে, কিছুমাত্রও ভক্তি করে না। সৰ্ব্বদা কামাতুরা হইয়া নূতন নূতন জারকে প্রার্থন করিয়া থাকে। ইহারা জারার্থে স্থপতিদিগকে হনন করিতে কিছুমাত্র কুষ্ঠিত হয় না। যাহার। ইহাদিগকে বিশ্বাস করে, তাহাদের জীবন নিষ্ফল। ইছাদের স্বভাব-হৃদয় ক্ষুরধার তুল্য, কার্যসিদ্ধির স্বম্ভ বাক্য অমৃতোপম, ক্রুদ্ধাবস্থায় বাক্য বিষণ্ডুল্য, প্রকৃতি কুৎসিত, অভিপ্রায় ফুঙ্গেয় । ইহার অতিশয় মায়াবিনী ও সাহসে প্রবলা। ইহাদের কাম পুরুষ হইতে ৮ গুণ, আহার দ্বিগুণ, নিষ্ঠুরতা চতুগুণ এবং কোপ ৬ গুণ অধিক । নারী সকল দোষের আকর। ইছাদের সহিত কোনপ্রকার ক্রীড়া বা মুখের সম্ভাবনা নাই। ইহাদের সহিত সম্ভোগে বপুঃক্ষয়, অতিপ্রতিতে ধনক্ষয়, কলহে মাননাশ, সহবাসে পৌরুষ নষ্ট এবং বিশ্বাস করিলে সৰ্ব্বনাশ হয়। যতদিন ধনযৌবনাদি থাকে, ততদিনই ইহারা বশীভূত থাকে, রোগী, নিগুৰ্ণ, ও বৃদ্ধ হইলে ইহার কিছুমাত্র গ্রাহ করে না । (ব্রহ্মবৈ ব্রহ্মখণ্ড ২৩ অ” ) মমুর মতে নারীগণ যথানিয়মে প্রতিপালিত হইলে কল্যাণ- -- করী ও শ্ৰীবৃদ্ধিপ্রদায়িনী হইয় থাকে। নারীদিগকে বহমানপূর্বক ভোজনাদি দ্বারা সৰ্ব্বদা ভূষিত করা কল্যাণকামী পিত, ভ্রাত, পতি এবং দেবরগণের অবশ্য কর্তব্য। যে কুলে নারীগণের সম্যক সমাদর আছে, দেবতাসকল সেইখানে প্রসন্ন থাকেন এবং যে পরিবারে নারীদিগের পূজা নাই, তাহীদের যাগাদি সকল ক্রিয় বিফল । যে কুলে নারীগণ সৰ্ব্বদা দুঃখে অবস্থান করে, সেই কুল আশু বিনষ্ট হয়। নারীগণ দুঃখ প্রাপ্ত হইয় যে কুলে অভিসম্পাত দেন, সেই কুল অডিচারছতের স্থায় সৰ্ব্বতোভাবে বিনষ্ট হয় । যাহারা শ্ৰীবৃদ্ধি কামনা করেন, বিবিধ সৎকাৰ্য্যকালেই হউক, আর উৎসব কালেই হউক নিস্তাই অশন, বসন ও ভূষণাদি দ্বারা নারীদিগের সমাদর কর। তাছাদের («ما-sg * 60 | ( wg eletچrه নারীদিগের ৬টী কাৰ্য্য দৌধাৰন্থ বৃথা-পান, স্বর্তনসংসর্গ, পতিবিরহ, ভ্রমণ, পরগৃহে নিদ্রা ও বাস । “পানং স্থানসংসর্গঃ পতা চ বিরহোইটনস্থ। স্বপ্নশ্চাদ্ভগৃছে বাসে নারীণাং দৃষণালি ঘট ॥” ( হিতোপদেশ ১১৩২ ) নারীদিগের কোনকালেই স্বাধীনতা নাই। মনুতে লিখিত আছে, নারীগণ বালিকাই হউন, অথবা যুৱতী বা বৃন্ধাই হউন কোনকালেই স্বতন্ত্রভাবে কাৰ্য্য করা উচিত নহে। ইহার বাল্যাবস্থার পিতার বশে, যৌবনে স্বামীর বসে, স্বামীর মৃত্যুর পর পুত্রবশে অবস্থান করিবে, কদাচ স্বাধীনভাবে থাকিতে পরিবে না। ইহারা সৰ্ব্বদা প্রহৃষ্ট মনে কালাপন করিবে। নারীদিগের গৃহকৰ্ম্মে দক্ষত, গৃহসামগ্ৰী সকল পরিষ্কার ও পরিচ্ছন্ন রাখা এবং ব্যয়বিষয়ে আমুক্ত হস্ত হওয়া একান্ত অবিগুক । ( মমু ৫,১৪৯-১৫০ ) স্বামিপৃছে বাস, স্বামিসেবা ও গৃহকার্য্যে তৎপরতা প্রভৃতি নারীদিগের ব্রহ্মচৰ্য্য বলিয়া কথিত হইয়াছে। ইহাদের স্বামী বিনা কোন পৃথক্‌ যজ্ঞ নাই, স্বামীর অনুমতি ব্যতীত কোন ব্ৰত উপবাস প্রভৃতি করিতে নাই, এক স্বামী সেবা করিলেই সকল ত্রতের ফল ছুইয়া থাকে। সামুদ্রিক শাস্ত্র মতে—নিম্নলিখিত চিহ্নাদি দ্বারা নারীদিগের শুভাশুভ জানা যায় ;—যে সকল নারীদিগের চরণে বঞ্জ, পদ্ম ও হলেয় চিহ্ন থাকে, সে স্ত্রী দাসী হইলেও রাঞ্জীর তুল্য অবস্থ৷ প্রাপ্ত হয় এবং নিত্য রাজভোগে জীবন অতিবাহিত করে । নারীদিগের জঙ্ঘ রোমশুষ্ঠ, স্বগোল ও সরল, হাটুর সংযোগস্থল উচ্চনীচতাবিহীন, এবং ছুইটী ইটুে সমান হইলে শুভ হয়। স্ত্রীদিগের উরু হস্তিগুণ্ডের ছায় স্থল, সরল, সমান, সুবর্ভূল, সুন্দর, কোমল ও সুশীতল হইলে গুস্তাবহ হয়, কিন্তু জঙ্ঘাদেশ লোমযুক্ত হইলে অণ্ডত হয় । স্তনযুগল লোমবিহীন, স্থূল, সুবর্ত ল, কমলকোরকবৎ ক্রমশঃ শেষে হুগ, কঠোর, উন্নত, অবিরল ও পরস্পর সমান, গ্রীবাদেশ হ্রস্ব ও শস্থের স্তায় তিনটী রেখাবিশিষ্ট এবং বক্ষঃস্থল লোমশূন্ত হইলে শুভ লক্ষণ জানিতে হইবে। যে স্ত্রীলোকের অধর ও ওষ্ঠ ঈষৎ রক্তবর্ণ, মুখ অণ্ডের স্থায় গোলাকার এবং মাংসজড়িত, দন্তকুন্দপুষ্পবৎ উজ্জ্বল ও স্বরুপ্ত, বাক্য কোকিল অথবা হংসের ছায়, মাসিক সমান ও পরিমিত রন্ধবিশিষ্ট হইলে শুভাবহ জানিবে। ষে কামিনীর কেশকলাপ স্বভাবতঃ ক্ষেহযুক্ত, কৃষ্ণৰূর্ণ, কোমল ও কুঞ্চিত এবং মস্তক, হস্ত ও চরণ সমভাগে বিভক্ত, সেই সকল স্ত্রী সৌভাগ্যবর্তী হয়।