পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নারীকবচ, কাণা হইলে পুংশ্চল ও দক্ষিণ চক্ষু কাণা হইলে বন্ধ্যা হইয়৷ * থাকে। যাহার ক্রর পাখে বা ললাটে আচিল থাকে, সেই নারী রাজ্যভোগ করে। বাম কপোলে আচিল থাকিলে সৌভাগবতী হয় । যাহার হৃদয়ে তিল বা অন্ত ੱਕ চিহ্ন থাকে, সে সৌভাগ্যবতী এবং যে নারীর দক্ষিণ স্তনে তিলচিহ্ন থাকে, সেই রমণী চারিকন্যা ও দুই পুত্র প্রসব করে, যাহার বামস্তনে তিল বা রক্তবর্ণ অন্ত কোন চিহ্ন থাকে, সেই নারী অগ্ৰে এক পুত্র প্রসব করিয়া পশ্চাৎ বিধবা হয়। যে নারীর গুহাদেশের দক্ষিণপার্থে তিলচিহ্ন থাকে সে রাজমহিষী হয় এবং তাহার গর্ভে যে সস্তান জন্মে, সেও রাজা হয় । যদি কোন নারীর নাভির নিম্নে তিল বা আচিল থাকে, সেই নারী সৌভাগ্যশালিনী ছয় । যে নারীর ললাট, উদর ও ভগ এই তিন অংশ লম্বমান, সেই রমণী শ্বশুর, পতি ও দেবর এই তিনজনকে ভক্ষণ করে, এই জন্য রমণীদিগের পক্ষে ইহা মহাদোষ । যে নারী গৌরবর্ণ এবং যাহার কেশগুলি সুহ্ম, সেই কামিনী অষ্টপুত্র প্রসব করে এবং বিপুল মুখসৌভাগ্য ভোগ করিয়া থাকে । কচ্ছপপৃষ্ঠবৎ বিস্তৃত এবং হস্তিস্কন্ধের ন্তায় উন্নতযোনিই নারীদিগের মঙ্গলদায়ক। যোনির বামভাগ উন্নত হইলে পুত্র জম্মিয় থাকে। যে যোনি দৃঢ়, অবয়বে বিস্তৃত, পরিমাণে বৃহৎ ও উন্নত, উপরিভাগে মুষিকগাত্রবৎ বিরল রোমযুক্ত, মধ্যভাগে অপ্রকাশিত, দুইপাশ্বে মিলিত প্রায়, গঠনে ও বর্ণে কমলদলের দ্যায় ক্রমশঃ অধোদিকে স্থা, আকৃতিতে অশ্বথপত্রের স্থায় ত্রিকোণ, ইহাই মঙ্গলকর ও সুপ্রশস্ত। (সামুদ্রিক ) গরুড়পুরাণেও নারীদিগের শুভাশুত লক্ষণ এইরূপ লিথিত আছে ;– যে কামিনীর কেশ আকুঞ্চিত, মুখ মণ্ডলাকার ও নাভি দক্ষিণাবর্ত, সেই নারী কুলবন্ধিনী হয়। যে রমণীর দেহকান্তি সুবর্ণের ন্যায় সমুজ্জল ও হস্ত রক্তপদ্মের দ্যায়, সেই কামিনী পতিব্রত ও সহস্ৰ নারীর প্রধান হইয় থাকে। যাহার মুখ পূর্ণচন্দ্রের স্থায় সুদৃপ্ত, দেহপ্রভ নবেদিত সুৰ্য্যের দ্যায় রক্তিম, নেত্রদ্বয় বিশাল, ওষ্ঠ বিম্বফলের স্যায় রক্তবর্ণ, সেই কন্স চির কাল সুখ ভোগ করে। ইত্যাদি। ( গরুড়পুরাণ ) বাহুল্য ভয়ে অধিক লিখিত হইল না। ২ গুরুত্ৰয়পাদক ছন্দোভেদ । নারীকবচ (পুং ) নার্যাঃ কবচঃ সন্নাহ ইব যন্ত । সূর্যবংশীয় মূলকরাজ । ইনি রাজা অশ্বকের পুত্র এবং সেীদাসের পৌত্র। অশ্মক হইতে মূলক জন্মগ্রহণ করিয়াছিলেন, পরশুরাম নিঃক্ষত্রিয় করিলে স্ত্রীগণ ইহাকে রক্ষা করিয়াছিলেন, ইহা হইতে [ съ ) নারুকোট পুনৰ্ব্বার ক্ষত্রিয়গণ জন্মগ্রহণ করিয়াছিল বলিয়া ইনি মূলক নামে অভিহিত হইয়াছিলেন। নারীগণ কর্তৃক রক্ষিত বলিয়া পরে নারীকবচ নামে প্রসিদ্ধ হন । [ মূলক দেখ। ] নারীকেল (পুং ) { নারিকেল দেখ। ] নারীচ (ক্লী) নাড়ীচ ভূস্ত-রত্বমূ। শাকবিশেষ। নালিতাশাক, এই শাক দুই প্রকার, তিক্ত ও মধুর। তিক্তের গুণ--রক্ত পিত্ত, কৃমি ও কুণ্ঠনাশক। মধুরের গুণ—পিচ্ছিল, শীতল, বিষ্টন্তী ও কফবাতকর। ( রাজব” ) নারাতরঙ্গক (পুং ) নারীং তরঙ্গয়তি চঞ্চলচিত্তাং করোতি, তরঙ্গ কৃতে শিচ্‌-ফুল। নারীচিত্তচঞ্চলকারক, জার, যিঙ্গ। নারীতীর্থ ( ক্লী) তীর্থভেদ । এই তীর্থ অতিশয় পবিত্র। এখানে বিপ্রশীপে ৫ জন অপাের। জলজন্তু হইয়াছিল, অৰ্জুন ইহাদিগকে শাপ হইতে মোচন করিলে ইহা নারীর্তীর্থ বলিয়া প্রসিদ্ধ হয় । ( ভারত ১২২৬-২৭ ) নারীদুষণ (রা) নারীণাং দুণ ভক্তং নারীদিগের দোষভেদ। নারাদিগের পক্ষে ৫টা কার্য অতি দুঘণীয়। “পানং দুর্ক্সনসংসর্গঃ পতা চ বিরহোইটনং । স্বপ্নোহন্তগ্রহবাসশ্চ নারীণাং দৃষণানি ষট ”ি ( ময় ) সুরাপান, দুজনসংসর্গ, পতিবিরহ, ভ্রমণ, পরগৃহে নিদ্রা ও বাস দূষণীয়। নারাময় (ত্রি) নারী স্বরূপে ময়টু। নারী স্বরূপ, নারী। “যদাসীদজ্ঞানং স্মরতিমিরসঞ্চারজনিতং । তদা সৰ্ব্বং নারীময়মিদমশেষং জগদভূত ॥” ( ভর্তুহরি ১৯৮ ) নারীমুখ (পুং ) নাড়ামুখং প্রধানং যত্র, ড্রস্ত রহম্। বৃহৎসংহিতা মতে-কুৰ্ম্মবিভাগের নৈঋতদিকে অবস্থিত দেশভেদ । ( বৃহৎস" ১৪১৭ ) মারীযান ( ক্লী ) নারীণাং যানম্। নারীদিগের যান, অশ্ব প্রভৃতি । “স্ত্রীধনানি তু যেমোহাদুপঞ্জীবন্তি বান্ধবাঃ । নারীঘানানি বস্ত্রং বা তেপাপায়াস্তাধোগতিম্।।” ( মন্ত্র ৩৫২) নারীষ্ট (ত্রি) নারীণাং ইষ্ট প্রিয়ঃ ১ নারীদিগের প্রিয়, অভি লষিত । ( স্ত্রী ) ২ মল্লিক । ( রাজনি” ) নারীষ্ঠ (ত্রি) নার্যাং তদানুকূল্যে তিষ্ঠতি স্থা-ক, যত্বম্। গন্ধৰ্ব্বভেদ । “গন্ধৰ্ব্বাভ্যাং নারীষ্ঠাভ্যাং মহা হাহাহুহুভাং স্বাহ।” a t ( শাংখায়নশ্রেী” ৪।১০৭ ) নারুকোট, বোম্বাই প্রেসিডেন্সির অন্তর্গত গুজরাতের পাঁচমহাল জেলার অধীন একটা দেশীয় রাজ্য। ইহার পরিমাণ ১৪৩ বর্গ