পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৫৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চকুল [ gro J পঞ্চকোট “কমলং রেচনং নন্তং নিম্নস্থশাস্তুবাসনস্থ। পঞ্চকৰ্ম্মেদমাচ্চ ফর উৎক্ষেপণাদিকম্।।” ( শাচত্রিক ) ववन, cग्नघ्नन, भश, निङ्गश्दरिष्ठ ७ जकूबांगम ५३ etी कई। ২ কাষীপরিচ্ছেদোক্ত পঞ্চ কৰ্ম্ম । "উৎক্ষেপণং ততোহবক্ষেপণমাকুঞ্চনং ওখ। প্রসারণঞ্চ গমনং কৰ্ম্মাণ্যেতানি পঞ্চ চ ॥” ( ভাষাপরিচ্ছেদ ৬ ) উৎক্ষেপণ, অধক্ষেপণ, আকুঞ্চম, প্রসারণ ও গমন এই &ট কৰ্ম্ম । [ ইছাদের বিশেষ বিবরণ তত্ত্বৎশন্ধে দ্রষ্টব্য। ] পঞ্চকৰ্ম্মেন্দ্রিয় ( স্ত্রী ) হস্ত, পাদ, পায়ু, উপন্থ ও জিছা। এই টী ইঞ্জিয়কে পঞ্চকৰ্ম্মেস্ক্রিয় কহে । ( চরক ) পঞ্চকলস, বো? প্রদেশবাসী শূদ্ৰজাতিভেদ। পূৰ্ব্বে ইহাcमब्र गांशांछिक भ६श अठारु शैन श्णि। फूभिकर्द१, झ५দোহন ও ছদ্ধবিক্রয় ইহাদের ব্যবসায় ছিল। এখন ইহার পূৰ্ব্ব ব্যবসা ত্যাগ করিয়া মহাজনী অথবা গবর্মেন্টের অধীনে মঞ্জুরী বা কেরাণীর কার্যা করিতেছে এবং সমাজে উন্নতি লাভ করিয়া আপনাদিগকে রাজপুতবংশীয় ক্ষত্রিয়সস্তান বলিয়া পরিচয় দিয়া থাকে। বরের চতুর্গোলার উপরে পাঁচটা কলস তুলিয়া বরযাত্রার সঙ্গে পথে লইয়া যাইত। প্রায় ত্রিশবৎসর হইল, ইহার এই নিকৃষ্ট কার্য পরিত্যাগ করিয়া সমাজ গঠন করিয়াছে । পঞ্চকষায় (পুং) পঞ্চবিধ কষায়ঃ অথবা পঞ্চানাং বৃক্ষাণাং কষায়ঃ, বন্ধলরসঃ । পঞ্চপ্রকার কষায়দ্রব্য। মহাস্নানে পঞ্চকথায় দ্বার স্বান করাইতে হয়। "জল্লুশান্মলিবাটালিং বকুলং বদরং তথা । কষায়াঃ পঞ্চ বিজ্ঞেয় দেব্যাঃ প্রতিকরাঃ শুভাঃ ॥" (দুর্গোৎসবপ”) জম্বু, শান্মলি, বাটাল ( বেড়েলা), বকুল ও বদর এই পঞ্চপ্রকার বৃক্ষের ছাল সমপরিমাণে ভিজাইয়া রাখিলে পঞ্চকষায় হইয়া থাকে। এই পঞ্চকযায় ভগবতী দুর্গার অতি শর প্রিয় । পঞ্চকমি (পুং ) পঞ্চ কামাঃ কৰ্ম্মধারয় , সংজ্ঞাত্বাং ন दिय६ ।। পঞ্চপ্রকার কাম অর্থাৎ কামদেবের ৫টী নাম । “পঞ্চকাম ইমে দেৰি ! নামানি শৃণু পাৰ্ব্বতি । কামমন্মখকন্দৰ্পমকয়ধ্বজসংজ্ঞকীঃ ॥ মানকেতুমহেশানি পঞ্চম পরিকীৰ্ত্তিতঃ।” (তন্ত্রসার ) কাম, মন্মথ, কপােপ, মকরধ্বজ ও মীনকেতু, ইংগিক । পঞ্চ কাম কহে । এই শহা বহুবচনাস্ত । পঞ্চকার (পুং ) জলকুকুভ । ( ত্রিক ) পঞ্চকুল, প্রাচীন হিন্দুরাজগণের প্রবর্তি একটা নগরস্বরক্ষিণ সভা, পাঁচজন সমস্ত ধারা সভার সমুদায় কার্ধ পরিচালিত হইত। i T-To uरे नॅीठ साडि भांsäी अञ्चांछ क९* श्हेरठ मिर्फीठेिङ इहेष्ठ । ক্রমশঃই পঞ্চকুল উপাধিবিশেষে পরিণত বছ। এখনও কোন ¢कांम बिलिट्टे कांब्राइ वरtश्व ठेस 8*ांशि अणंजश्;ल **tशंलौ' সামে পরিণত হইয়াছে। , পঞ্চকি-মহল, বিষ্ণুপুরের রাজবংশপ্রদত্ব। কত্তকগুলি লখিয়জি मश्ल । oथकनिऊ. शंरब्रग्न भक्ष्यांश्नं जहेब ५हे शकण भूक्ि बिणि इहेब्राझिण । शकईबेिडूलिग्न छछ अथवा अछ ८कांम रुीटर्षी ब्रांखांब्र शै जमरड अभि प्रांन कग्निब्रांtझ्म । कश्व शांtक, हेबाज भदरमंझे ऐशत्र भाद्र थांबनाब्र शत्र इरुि कऋिङ পারিবেন না । পঞ্চকৃত্য (পুং ) পঞ্চং বিস্তুতং কৃতাং শাখাপল্লবাদিকং স্বত্র । *ख्रशोफ़्यूच, श्मिौ witथोफ़ । (ब्रांछनि' ) । ( ज्ञैौ ) नक९ প্রপঞ্চিতং কৃতাং কাৰ্য্যং স্থষ্ট্যাধিকম্। স্থষ্টি প্রভৃতি পঞ্চ প্রকায় কাৰ্য্য । “যদি সৃষ্টিস্থিতিধ্বংসবিধানান্থগ্রছাত্মকং। কৃত্যং পঞ্চবিধং শখ ভাসতে তং কুমঃ শিবম্ ॥” (চিন্তামণি) কৃষ্টি, স্থিতি, ধ্বংস, বিধান ও অনুগ্রহ এই ও প্রকায় কার্যা। এই পঞ্চকার্যোয় নাম পঞ্চৱতা । যাহাতে এই পঞ্চকৃত্য আছে, সেই মহাদেবকে নমস্কায়। পঞ্চকৃষ্ণ (পুং) সৌম্যকীটতো। (স্বগুত করন্থান ৮ অ' ) পঞ্চকোট, মানভূম জেলার অন্তর্গত একটা গিরিশ্রেণী। বরাকর হইতে ১৯ মাইল দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত। ইহার দক্ষিণপূৰ্ব্বপাদমূলে একটা দুর্গ নিৰ্ম্মিত ছিল। একসময়ে এইস্থান রাজপ্রাসাদরূপে গণ্য ছিল । এখন ঐ সকল প্রাচীন কীৰ্ত্তিসমূহ ধ্বংসাবশেষরূপে পরিণত হইয়াছে। এই পৰ্ব্বততটস্থ রাজাবাসের পঞ্চকোট নাম হইবার কারণ "অনেকে অনেক কথা বলিয়া থাকেন। কেহ কেহ বলেন যে, এখামকার রাজগণ পাচট বিভিন্ন সামন্তরাজের উপর কর্তৃত্ব করিতেন । আবার কেহ কেহ অম্বুমান করেন যে, 'কোট’ পাঁচটা স্বতন্ত্র প্রাচীর দ্বারা রক্ষিত থাকায় এই স্থানের নাম পঞ্চকোট’ হইয়াছে। স্থানবাসীরা এই স্থানকে পঞ্চকোটের অপভ্রংশে পচেত্ত বা পঞ্চেত বলিয়া থাকে । দুর্গের উত্তরাংশে উন্নত গিরিমাল বিরাজিত এবং পশ্চিমদক্ষিণ ও পূর্বদিকে একটার পর আর একটা এইরূপ কমাস্বয়ে ৪ট কৃত্রিম প্রাচীর এবং তাঙ্কার ভিতরদিকে স্বভাবজাত পৰ্ব্বতের উচ্চনিম্ন ভূমিভাগসকল আর একটা স্বতন্ত্ৰ७वाईौtब्रग्न भएल मgाँव्रभांम झहेंश्रां भूर्भbौ ब्रक दब्रिालtछ् । প্রত্যেক প্রাচীরের মধ্যস্থলে গভীর ও বিস্তৃত খাল কাটা আছে, ইহা এরূপভাবে পৰ্ব্বতগাত্রস্থ লোতোমালার সহিত Х ›8ዓ