পাতা:বিশ্বকোষ দশম খণ্ড.djvu/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নাষ্টিক , খৃষ্টাম্বে তদীয় ভ্রাতুষ্পুত্র আলাউদ্দীন মুসায়ুদ গুপ্তভাবে নিহত হইলে, লাশিল্প দিল্লীর সিংহাসনে অধিরোহণ করেন। তিনি অধিক गगूरः বিস্তাতাসে অতিবাহিত করিতেন । রাজকাৰ্য্য পরিচালনার ভার উক্টর গাস্বদন বলবনের হন্তে স্তন্ত ছিল । নন্দনন্তর্গ ( দেওকালী )-জয়, রাজপুতনার অন্তর্গত নরখায়রাঙ্গ প্রচাহড়দেবের বিরুদ্ধে যুদ্ধ, চাহতৃদেবের পরা৪য় ও নরবারদুর্গ অধিকার, নাগোরে ইজ-উদ্দীন বলনের বিদ্রো এই কয়ট তাছার রাজত্বকালের প্রধান ঘটনা। ১২৫৬ খৃষ্টারে মিরাটের রাজপুতগণ বিদ্রোহী হইয়া উঠিলে, বলবন বিশেষ দক্ষতার সহিত বারবার প্রত্যাখ্যাত হইলেও তাঁহাদিগকে দমন করেন। এই সময়ে জঙ্গিস খার পৌত্র পারস্তরাজ হলাকু দিল্লীতে দূত প্রেরণ করেন। বহুদিন রোগগ্ৰস্ত থাকিরা অবশেষে ১২৬৫ খৃষ্টাব্দের শেষভাগে নাশিয় উদ্দীন পরলোকগত হন । তিনি অত্যন্ত মিতবাদী ও পরিশ্রমী ছিলেন । এমন কি, যখন পাঠাভ্যাসে তাহার বিরক্তি বোধ হুইত, তখন তিনি নিজ হস্তে কোরাণ লিখিতে বসিতেন। অন্যান্ত সম্রাটগণের স্থায় তাহার বহু স্ত্রী বা বেগম ছিল মা ! তাহার একমাত্র স্ত্রীই তাহার সমস্ত খাদ্য ও শয্যরচনা প্রভৃতির কার্য্য করিতেন। ফিরিস্তা লিখিয়াছেন, 'একদিন সম্রাটের জন্ত রুট প্রস্তুত করিতে তাহার পত্নীর হাত পুড়ির যাওয়ায়, তিনি স্বামী সমীপে একজন দাসীর সাহায্য প্রার্থনা করিয়া ছিলেন। সম্রাটু ইহাতে অস্বীকৃত হইয়৷ ওঁহাকে উত্তর করিলেন যে, তিনি বুথ ব্যয়ভারবহন করিতে অক্ষম, এবং আরও তাছাকে উপদেশ দিলেন যে, সহিষ্ণুতার সন্থিত তাহার কর্তব্য কৰ্ম্ম সম্পাদন করিলে অস্তিমে ঈশ্বরের অঙ্গু গ্লষ্ট পাইবেন । তাহার এইরূপ ঈশ্বরভক্তি এবং শাস্ত্রালোচন দেখিলে জানা যায় যে, তিনি ধৰ্ম্মকৰ্ম্মেই জীবন অতিবাহিত করিয়াছিলেন, রাজকাৰ্য্য দেখিবার অবসর í পান নাই। নাগুক (ত্রি) ধ্বংসশীল, নশ্বর । নাশু (ত্রি ) নশ-শ্যৎ । ধ্বংসনীয় । মান্তিক (ত্রি) নষ্ট দ্রব্যং স্বামিত্বেনাৰ্ছতি বাছলকাৎ ঠএ ১ নষ্ট । প্রবাৰ্ছ । ২ নষ্ট দ্রব্যের অধিকাল্পী । “জথ মূলমনাহার্যাং প্রকাশক্রয়শোধিতঃ । অদণ্ড্যো মুচ্যতে রাজ্ঞা নাষ্টিকো লভতে ধনম্।" (মন্ত্র ৮,২০২ ) DDD DD DD DBBBBDi DBBBDDBB BBBB BBD DBt ছন। কিন্তু তৰঙ্কং-ই-নাসিন্ধি মাম্বৰ সামৰিক ইতিহাসে ইনি আলতা भ:म १ कनिई भूज शशिप्रारें प१ि७ इश्काश्म । [ سان ] নাই (ত্রি) নশছি নাশক। স্থিা টাপ। নাশকী। নাসকাটাপুর “বিশ্বান্ড্যে মানাষ্ট্রাভাস্পাহি" ( শুক্লযজু ৩৭১২) ‘নাট্রাভ্যঃ নাশকত্রীভ্যঃ’ ( বেদদীপ ) নাস ( দেশজ ) তাম্রকুটচুর্ণ, নস্ত। নাসকাটাপুর, নেপালের অন্তর্গত পাটন (গণিতপত্তন ) প্রদেশের মধ্যবৰ্ত্তী একটা প্রাচীন নগর । ইহার প্রাচীন মাম কীর্তিপুর। কীর্তিপুর নামে পূৰ্ব্বে এক ক্ষুদ্র স্বাধীন রাজ্য ছিল । ইহা পরে পাটন প্রদেশের অধীন হয়। চন্দ্ৰগিরিপৰ্ব্বতের নিম্নে এই রাজ্য অবস্থিত। ইহার পশ্চিমে ইন্দ্রস্থান ও দক্ষিণে মহাভারত নামক প্রদেশ । এই নগরের উত্তরদিকে ১০ ক্রোশ দূরে কাঠমাণ্ডু । কীৰ্ত্তিপুর নগর বাঘমতীর এক উপনদীতীরে অবস্থিত । ইহা কখনও বড় নগর ছিল না। তবে ইহার অবস্থিতি বা দুৰ্ভেদ্যতাবশতঃ নেপালের প্রাচীন ইতিহাসে ইহার অত্যন্ত প্রসিদ্ধি। এ কালেও পৃথ্বীনারায়ণের বিপুল সেনা তিনবার এই উপত্যকায় পরাস্ত হয়। ১৭৬৫-৬৭ খৃষ্টাব্দের যুদ্ধে নেবারের তিন বৎসরকাল গুর্থাদিগকে বাধা দিয়া রাখিয়া ছিল। তিনবৎসর পরে নেবারের পরাস্ত হইলেও গুর্থাদিগকে দুর্গ ও অন্যান্ত দৃঢ়বন্ধ স্থানগুলি ছাড়িয়া দেয় নাই। শেষে গুর্থার। সদয় ব্যবহারের লোভ দেখাইয়া বন্ধুত্বের ছলনা করিয়া দেশে প্রবেশলাভ করে। দেশে ঢুকিয়া গুর্থার দুর্গাধিকার করিয়া দেশের সমস্ত পুরুষের নাসিক ও অধরোষ্ঠ ছেদন করিয়া দেয়, কেবল যাহারা বাণী বাজাইতে পারিত, তাহারা গুর্থ সেনাগণের দলে বাদকের কার্য্য করিতে স্বীকার করায় তাহাদিগকে ছাড়িয়া দেয়। ইহার পরেই নগরের প্রাচীন নাম কীৰ্ত্তিপুর পরিবর্তন করিয়া নাসকাটাপুর’ রাখা হয়। এখানকার প্রাচীন দরবার ও মন্দিরাদির ভগ্নাবশেষ আছে। ১৫৫৫ খৃষ্টাব্দে এখানে হরগৌরী মূর্তির এক মন্দির নিৰ্ম্মিত হইয়াছিল, তাহারও ভগ্নাবশেষ অদ্যাপি বর্তমান । ১৫১৩ খৃষ্টাব্দে নিৰ্ম্মিত ভৈরবের চোঁচালী মন্দির এখনও ভগ্ন হর নাই। এখানে বহু যাত্রিসমাগম হয়। এই মন্দির নেপালের মধ্যে অতি প্রসিদ্ধ । মন্দিরে এক ব্যাঘ্ৰমূৰ্ত্তি চিত্রিত আছে, তাহ হইতে ইহা ব্যাঘ্রভৈরব নামে কথিত হয় । ১৬৬৫ খৃষ্টাব্দে সেরিস্তা-নেবার কর্তৃক নিৰ্ম্মিত গণেশ-মন্দির এখানকার আর একট বিখ্যাত মন্দির । ইহার তোরণের উপরিভাগে মধ্যস্থলে গণেশ, তাহার বামে গরুড়ারূঢ় বৈঞ্চবীদেবী, দক্ষিণে ময়ুরার্মান শক্তিদেবী, ইহার পার্থে’মহিষারূঢ়। বরাহীদেবী, তৎপাখে শবাসন৷ চামুণ্ডাদেবী, বৈষ্ণবীর পার্থে হস্তারূঢ়া ইন্দ্রাণীদেবী, তৎপার্থে সিংহরূঢ়া মহালক্ষ্মী মূৰ্ত্তি আছে। গণেশমূৰ্ত্তির উপরিভাগে মধ্যস্থলে