পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/১২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


--~~ খোড় yo [ ১২৩ ] খেদ খোঞ্জ (দেশজ) অনুসন্ধাৰ । খোজক, পাঠানজাতির এক শাখা। ইহার মেঞ্চস্তরের কাকর পাঠানদিগের একটী অন্যতম শাখা । খোজদার, বলুচিস্থানের মধ্যে উপত্যক মধ্যস্থ একটা সূত্র নগর । খপ্পার রাজধানী হইতে ১০ মাইল দক্ষিণে অবস্থিত । উদ ও বোলা যাত্রীরা এই স্থান দিয়া যাইয়া থাকেন। এই নগরটা পূৰ্ব্বে সমৃদ্ধিশালী ছিল। এই স্থান হইতে রুদখান। নদীয় তীর পর্য্যন্ত অনেক ভগ্নাবশেষ চিহ্নাদি দেখিতে পাওয়া যায়। এইখানে প্রস্তরের চত্বরের উপর ২৫ ফিট উচ্চ স্তন্ত গ্রথিত আছে । খোজা ( দেশজ ) ১ অনুসন্ধান । ( পারসীজ ) ২ পুরুষত্বহীন, নপুংসক । খোজা আহ্মদ-য়সেবি, মধ্য-এশিয়ার অন্তর্গত অনুৰ্ব্বর সমতল ভূমির উপর ভ্রমণকারী নোমাদজাতির মধ্যে ইনি একজন প্যাগম্বর । ধৰ্ম্ম ও নীতি সম্বন্ধে ইহার কৃত কবিতাগুলি খিয়ঘিজ ও উজবকের কোরাণের দ্যায় অতিশয় ভক্তি করে । খোজখোজি ( দেশজ ) অতিশয় অনুসন্ধান । খোটন ( ক্লী ) খোড়ন, নেংচান । খোটি ( স্ত্রী । খোট ইন্‌ চতুরা স্ত্রী । ২ পালঙ্কশাক । ( শব্দ চন্দ্রি কা ) ৩ কাষ্ঠ খোটি । চক্রদত্ত ) খোটী ( স্ত্রী) খোটি বাঙীন্থ। ১ পালঙ্কাবৃক্ষ । ২ চতুর স্ত্রী । ( শব্দচঞ্জিকা ) খোট, ভারতবর্ষের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলবাসী হিন্দুস্তানীদিগকে সাধারণতঃ বাঙ্গালাভাষায় খোট্ট বলা হইয়া থাকে। মানভূমের উত্তর প্রদেশে যে ভাঙ্গা হিন্দিভাষা প্রচলিত আছে, তাহাকে তথাকার লোকের “খোট্রাভাষা,” কহিয়া থাকে । সম্ভবতঃ ঐ ভাষার নাম হইতেই হিন্দুস্থানীদিগকে “খোট্টা” নামে অভিহিত করা হয় । ২ পশ্চিমের যে সকল নাপিত বাঙ্গালায় আসিয়া বাস করিয়াছে, তাহাদিগকেও খোট্টা বলা হইয়া থাকে । এক্ষণে ইহার একটা স্বতন্ত্র শ্রেণী হইয়াছে । বেহার প্রভৃতি পশ্চিম প্রদেশের নাপিতেরা ইহাদিগকে নিকৃষ্টজাতি বিবেচন৷ করে। উভয়ের মধ্যেই যিবাহাদি কোনরূপ আদান প্রদান নাই । ৩ মুর্শিদাবাদের কামারঞ্জাতির ও বাঙ্গালার পশ্চিমের ধোবাদিগের একটী শাখাকে ও খোট্ট বলা হয় । ৪ পোদজাতির একটা শাখা । কোথাও কোথাও ইহাদিগকে “খোট্টা” পরিবর্তে “মোনা” বলে । খোড় (জি) খোড়তি খোড়-অছ। খঞ্জ, খোড়া। এই শবটা কড়ারাদি গণান্তর্গত ফুলা কর্ণধার সমাসে ফিরে ইহার পয়লিপাত হইয়া থাকে। বখা-খোড়বাল, বালখোড় । খোড়কশীর্ষক (ক্লী ) খোড় ক্ষেপে খুব খোড়কং শীর্ষমন্ত বহুত্ৰী কপ্‌। ১ কপিশীর্ষবৃক্ষ । ২ হিস্কুল। (ত্রিকাও ) খোন্দমীর, খবৰ্দ্দশাহ (মীর-খোল) আমীরের এক পুত্র। ইহার श्रांगण नाभ-पञ्चाशकौन् भूश्ञन विन्-शबौन्डेलौन्८थान आभैौञ्च । কাহারও মতে, ইনি ১৪৭৫ খৃষ্টাব্দে হিরাট নগরে জন্ম গ্রহণ করেন। ১৪৯৮ খৃষ্টাব্দে ইনি রোজৎ উস সফা’ নামক পারস্ত গ্রন্থের সারসংগ্ৰহ করিয়া খুলাসৎ-উল অধুবার’ নামে একখানি সুনার গ্রন্থ প্রণয়ণ করেন। উক্ত গ্রন্থ ব্যতীত "হবীব উস্ সিয়ার’, ‘মাসির উল মুলুক, অখবর-উল অথিয়ার, দস্তু, উল বজরা, ‘মুকারিম্-উল-অৰ্থলাক,’ ‘মুম্ভথিকৃতারীর্থ বাস্গাফ’, ‘ঘরাএব উল অস্ত্রার, জবাহির উল অথবীর’ নামে কতকগুলি গ্রন্থ রচনা করেন । ১৫২৭ খৃষ্টাব্দে জন্মভূমে ঘোরতর বিপ্লব ঘটে, সেই জঙ্গ ইনি হিরাট পরিত্যাগ করিয়া মৌলানা সাহেব-উদ্দীন ও মির্জ। ইব্রাহিম কামুনী নামে দুই মহাপণ্ডিতের সহিত ভারতবর্ষে আগমন করেন । ১৫৭৮ খৃষ্টাব্দে আগ্রা নগরে উপস্থিত হন, এইখানে সম্রাটু বাবরের সহিত র্তাহার সাক্ষাৎ হয় । এইখানে খোলামীর সম্রাটের নিকট সন্মানলাভ করিলেন । পরে বখন বাধর বাঙ্গালা আক্রমণ করিতে আসেন, তৎকালে ইনিও তাহার সঙ্গী ছিলেন। বাবরের মৃত্যু হইলে পর, ইনি হুমায়ুনের নামানুসারে ‘কানু হুমায়ূন রচনা করেন । এই গ্রন্থ আবুজফজলেয় অকৃবরনামায় উদ্ধত হইয়াছে। ইনি সম্রাট হুমায়ূনের সহিত গুজরাটে যাত্র করেন । পথিমধ্যে সম্রাটের শিবিরে ১৫৩৫ খৃষ্টাব্দে ইহার মৃত্যু হয়। ইহার মৃতদেহ দিল্লীতে আনিয়া আমীর খুসরুর সমাধির পাশ্বে গোর দেওয়া হয় । খোতেন, পূর্ব তুর্কীস্থানের মধ্যবর্তী একটা জনপদ। ইয়র্ক ন্দের দক্ষিণপূৰ্ব্বে খোতেন ও কারাকাস নদীর সঙ্গমস্থানে অবস্থিত । অক্ষা ৩৭° ১৫ উঃ, দ্রাঘি’ ৭৯- ২৫' পূঃ । মধ্য এসিয়ার মধ্যে এই জনপদটী অভি প্রাচীনকাল হইতে সমৃদ্ধিশালী বলিয়া প্রসিদ্ধ। খৃষ্ট পূর্বের ১৪• অব্দে চীনের সছিত ইছার বেশ সম্ভাব ছিল। খৃষ্টীয় চতুর্থ শতাব্দীতে এখানে বৌদ্ধধৰ্ম্ম অতিশর প্রবল হইরাছিল। খোতেন নগরের চারিদিকে দুর্ভেদ্য প্রাচীর দিয়া ঘেরা, এখানে ১৮ হাজার বাড়ী, বিদেশীয় বণিকগণের জন্ত ১• থানি সরাই আর প্রায় দেড়লক্ষ লোকের বসবাস আছে। নানা- ৷ দেশীয় লোক এখানে বাণিজ্য করিতে আইসে । খোদ (পারলী ) স্বয়ং ।