পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/১৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


` ओझेम লা দৈখিঙ্গ।. জাবার ক্রমে ক্রমে হিন্দুধৰ্ম্ম গ্রহণ করিয়া থাকিৰে । তাস্কো-ডি-গামার আসিবার পূৰ্ব্বে মলবারে দেশী খৃষ্টানেরা এখানকার রাজার অধীনে সৈনিক বিভাগে প্রবেশ লাভ করিয়াছিল। এই সময়ে ইহাদের ধৰ্ম্মকৰ্ম্ম নিৰ্ব্বাহের জন্ত নেষ্টোরিয়ান বিশপ, যাজক, পুরোহিত প্রভৃতি নিযুক্ত ছিলেন। পর্তুগীজ-নৌসেনাপতি ভারতে যেখানে প্রথম অবতরণ করিলেন, সেইখানেই খৃষ্টানদিগের সহিত তাছার সাক্ষাৎ হইল। পর্ভ গীজদিগের সঙ্গে যে সকল ক্যাথলিক ৰাজক আসিয়াছিলেন, তাহারা ঐ সকল খৃষ্টান্দিগকে ক্যাথলিক সমাজভূক্ত করিবার চেষ্টা করিতে লাগিলেন । র্তাহাদের উত্তেজনায় ১৫৬৯ খুষ্টাব্দে ভারতের মধ্যে পর্তুগীজাধিকৃত স্থানে বিধৰ্ম্মীর বিচারালর (Inquisition) স্থাপিত হইল। অনেক তর্কবিতর্ক বাদ যিসম্বাদ এমন কি অনেকেই স্বমত রক্ষার্থ রক্তপাত করিলেন । ১৫৯৯ খৃষ্টাব্দে কোচনের নিকটবর্তী উদয়ম্পুর নগরে গোয়ার প্রধান ধৰ্ম্মাচাৰ্য্য (Arch-bishop) একটী মহাসভা আহবান করেন, এইখানে বিস্তর আলোচনার পর সিরীয়ক খৃষ্টানের রোমক সমাজভূক্ত হইল - । এইরূপে ভারত হইতে নেষ্টোরিয়ান্‌ সমাজ উঠিয়া গেল। সিরীয়ক খৃষ্টানের রোমক সমাজের অধীনতা স্বীকার করিলেও, তাহারা সিরীয়ক কৰ্ম্মকাও পরিত্যাগ করেন নাই। তাহারা এখনও সিরীয়ক ভাষায় উপাসনা করিয়া থাকে । ১৬৬৫ খৃষ্টাকে, অস্তিয়োকের ধৰ্ম্মাচাৰ্য্য ভারতের अनt५ीं সিরীয়ক সমাজকে রক্ষা করিবার জন্ত মার গ্রেগরি নামে একজন বিশপকে ভারতবর্ষে পাঠাইয় দেন। মার গ্রেগরি মলবারে উপস্থিত হইলে অনেক সিরীয়ক খৃষ্টান তাহার মত অবলম্বন করেন । এই সময়ে সিরীয়ক খৃষ্টানের দুইভাগে বিভক্ত হইয়া পড়ে। একদলের নাম ‘পজছেইয়া কুত্তকার’ অর্থাৎ প্রাচীন সমাজ । উদয়ম্পুরের মহাসভা হইতে ‘পজহেইয়া কুত্তকারের উৎপত্তি। এই সমাজের সিরীয়ক খৃষ্টানেরা পোপের প্রাধান্ত স্বীকার করেন। মারগ্রেগরি হইতে “পুত্তেন কুত্তকার” অর্থাৎ নুতন সমাজের স্বষ্টি । নূতন সমাজ যাকোবাইটু ধৰ্ম্মমতাবলম্বী, এই দলস্থ সিরীয়ক খৃষ্টানের রোমের বিশপ ও নেষ্টোরিয়ানকে অনেক দোষ लिग्नां থাকে। তাছাদের মতে কুশারোপের পূর্বরাত্রে খুষ্টের সশিষ্য ভোজ উপলক্ষ কয়িরা খৃষ্টান সমাজে যে পৰ্ব্ব হয়, তাহাতে [ ১৩৭ ]

  • এই সময়ে যহাতে পারস্ত হইতে কোমপ্রকায়ে tनtछेiब्रिब्राम् क्लिश না আসিতে পারে, তক্ষষ্ঠ পর্তুগীজরাজপ্রতিনিধিগণ ভারতের সঙ্কল तृनाएछ यश्द्री ब्रtधिब्रtइिएशन !

V HI খ্ৰীষ্টান যে রুট ও সুর ব্যবহৃত হয়, তাহাই খৃষ্টের প্রকৃত শরীর ও রক্ত। এখন ভারতবর্ষে প্রায় দুইলক্ষ সিরীয়ক ক্যাথলিক ও প্রায় একলক্ষ যাকোবাইট খৃষ্টানের বসবাস। এখানকার সিরীয়ক খৃষ্টানের অধিকাংশই ধীবর ও নৌকাজীবী। গ্ৰীক সমাজ । খৃষ্টান সম্প্রদায়ের মধ্যে গ্ৰীকসমাজের কৰ্ম্মকাও ও यङाभउ श्वच्छ । श्रृंडेनमिश्रब्र भाषा ७३ वज्रङ्ग गमाज হইবার কারণ, যে ইহার রোমের একমাত্র পোপের বিরুদ্ধে ও তাহার কৃত ধৰ্ম্মসম্বন্ধীয় নিয়মাবলীর বিরুদ্ধে নানা তর্কযুক্তি করিয়া আপনাদের সমাজ বিভিন্ন করিয়া লইয়াছেন। এক্ষণে গ্রীস, গ্ৰীদিয় দ্বীপপুঞ্জ, ওয়ালেলিয়া, সোলদাভিয়া, ইজিপ্ট, আৰিসিনিয়া, নিউবিয়া, লিবিয়া আরব, মিসোপটেমিয়া, সিরীয়, সাইলিলিয়া, প্যালেস্তিন, রুযসামাজ্য, অষ্ট্রাকান, কাসান, জর্জিয়া প্রভৃতি স্থানবাসী অধিকাংশ ব্যক্তিই এই সমাজভূক্ত। এখন এই সমাজ ৩টা শাখায় বিভক্ত—১মট কনস্তানতিনোপলের ধৰ্ম্মগুরুর অধীন। ২য়ট গ্রীকরাজ্যের অধীন। ৩য়ট রুষের জারের অধীন। পোপের ধৰ্ম্মপ্রণালীর মতামত লইয়া গোল বাধে। খৃষ্টীয় মবমশতাব্দীর মধ্যভাগে (৮৬২ খৃঃ) পোপ নিকলাস্ জেরুঞ্জিলমের ধৰ্ম্মগুরু ফোটিয়াসকে ( Photius) সমাজ হইতে বহিষ্কৃত করিয়া দেন। ফোটিয়াস সেই জন্ত একটা সাধারণ ধৰ্ম্মসভা আহবান করেন। ঐ সভায় রোমকসমাজের প্রবর্তিত এই কএকটা মত লইয়া বিচারকার্য্য আরম্ভ হয়। ১ম, রোমকসমাজের মতে ঈশ্বর ও তৎপুত্র যীশু এই দুই হইতে দিব্যাত্মা অবতরণ করেন। কিন্তু গ্ৰীকসমাজ তাহা বিশ্বাস করেন না। র্তাহারা বলেন যে, দিব্যাজু। একমাত্র ঈশ্বর হইতে অবতীর্ণ হইয়া তৎপুত্র হইতে আসেন বা তৎপুত্র যীশুই ঐ দিব্যাত্মা প্রাপ্ত হইয়াছিলেন। ২য়, যাজকের ৰিবাহাদি সংসারধৰ্ম্ম করিতে *ङेिर्वम मl, কেবলমাত্র ব্রহ্মচৰ্য্য অবলম্বন করিয়া থাকিবেন । ৩য়, পুরোহিতগণ দীক্ষার পর কোন ব্যক্তির ধৰ্ম্মসংস্কার (Administer confirmation) করিতে পারিবেন না। ইত্যাদি কতকগুলি মতবিরোধে রোমক ও কস্তান্তিনোপলের ধৰ্ম্মসমাজ পৃথক হইয়া যায়। পরে ৮৬৯ খৃষ্টাব্দে সম্রাট বেসিল একটা সভা করিয়া উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে শাস্তি ও ঐক্যত স্থাপন করিয়া দেন। রোম সৰ্ব্বসমাজের শীর্ষস্থানে ও কনস্তাত্তিনোপল তাহার অধীন থাকায় পোপ কৃত কাৰ্য্যকলাপের উপর হস্তক্ষেপ করিবার বিশেষ অস্তুবিধা হইতে লাগিল। পোপের গর্বে ও উদ্ধত্যে ক্রমেই