পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/২৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গয়া [ २५२ ] গয়া , রামশিলা পাহাড়ে মহাদেব ও পাৰ্ব্বতীয় মন্দির এবং নাট মন্দির আছে। এই পাহাড়েয় পাদদেশে ও পাটনা যাইবার বড় রাস্তার ধারে রামকুও । গয়ার মধ্যে ফন্তুনদীর ধারে মূওপৃষ্ঠ নামে একটা ছোট পাহাড়, ইহার উপরে একটা মন্দিরে অষ্টভূজাদেবী মুর্কি আছে। ইহার নিকট আদিগয়ানামক স্থান। ইহায় চারিদিকে পাথরের থাম আছে। প্রবাদ এইরূপ, পূৰ্ব্বকালে এইখানেই সকলে আসিয়া পিণ্ডদান করিত। ব্ৰহ্মধোনি • পাহাড়ের উপর একটী অস্তৃত গহ্বর আছে, তাহাকেই লোকে তীযগয়া বলিয়া থাকে। লোকের বিশ্বাস এইখানে ভীম হাটু গাড়িয়া বসিয়া ছিলেন। পাহাড়ে এখনও ॐाशद्र दागईोप्लेक क्लिश् आह । डाशे ७थाप्न शाखैौद्रा दाग হাঁটু গাড়িয়া বসিয়া পিণ্ডদান করেন। এই ব্ৰহ্মযোনি পাহাডেল উপয় পঞ্চাননা আদ্যাশক্তির মন্দির আছে । মন্দিরট ১৬৯০ সম্বতে নিৰ্ম্মিত হয়। এখানে অনেক দেবমূৰ্ত্তি পড়িয়া আছে। সম্রাট অরঙ্গজিবের দৌরাত্ম্যে এখানকার অনেক দেবমূৰ্ত্তি ভগ্ন ও শ্ৰীহীন হইয়াছে । ইহার নিকটেই মহাভারতোক্ত ধেমুকতীর্থ, এখানে পাহাড়ের গায়ে আজও গো ও বংসের পদচিহ্ন দৈখিতে পাওয়া যায়। গয়ামাহাক্স্যে ও অগ্নিপুরাণে ইহা “গোপ্রচার” নামে উক্ত হইয়াছে । গয়াবাসীর বিশ্বাস-ব্রহ্মা গয়ালাদিগকে যে গে। প্রদান করিয়াছিলেন, উছা তাহাঁদেরই পদচিহ্ন। কিন্তু মহাভারতে লিখিত আছে—“পূৰ্ব্বে পৰ্ব্বতোপরি সঞ্চরণকালে সবৎসা কপিলার পদচিহ্ন তথায় নিপতিত হইয়াছিল, উহা আজও দেখিতে পাওয়া যায়। ঐ সমস্ত পদচিহ্নে স্নান করিলে সকলপ্রকার অশুভ বিনষ্ট হয় (১) " (বনপ’ ৮৪ অ: ) সকল বেদী দর্শন ও পিণ্ডদানাদি শেষ হইলে যাত্রী গান্ধীঘাটে উপস্থিত হন। এইখানে গয়ালী আসিয়া সুফল দিয়া থাকেন। সাধারণের বিশ্বাস গয়ালী আলিয়া স্বফল প্রদান না করিলে কোন কাৰ্য্যই সিদ্ধ হয় না। কাজেই

  • छैौन-ब्रिजायाङ श्छेियनगिब्रां५ ७३ *ाशफ़एक দেবগৰ্ব্বৰ ৰলিয়৷ छेtझई कब्लिग्नांtइन ।

(১) “কপিলায়ী: সংৎসায়ী চরপ্তাঃ পৰ্ব্বতে কৃতম্। मष९णान्नाः शृपानि शृ मृश्रtछ शमागि छाब्रउ ॥ ভেৰুপম্পূঙ্গ রাজেন্দ্র পদেষু যুগপত্তম। द९ किकिन७ठ९ छ# छ९ &१छठि छांब्रफ़ ॥ कराउ'छ स्वाय्। ऋक्र९ भउिः शैउनाउिन्। • नाषिणाच् गणः ण्ण दृशाङ ज्ञउ(ड । छण नचाबूनानौठ ब्राक्रगः गईलिखबजः ॥" वनभर्फ v* अः । { এই সময় গঙ্গালীর তীর্থযাত্রীর উপর চাপিয়া বসেন এবং বতদূর পারেন যাত্রীর নিকট শেষ দক্ষিণস্বরূপ টাক আদায় করিতে ছাড়েন না । বস্তুতঃ সুফল দিবার সময়ই গয়ালীর। যাত্রীদিগের নিকট হইতে জোরের সহিত বেশ অর্থ লাভ করিয়া থাকেন। পূৰ্ব্বে এই সুফল দিবার সময় বাত্রীদিগের উপর বিলক্ষণ উৎপীড়ন হইত। এখন বুটশ গবর্মেন্টের শাসনগুণে আর ততটা উৎপীড়ন হইতে পারে না । পূৰ্ব্বকালে গয়ালীরাই তীর্থযাত্রীর সঙ্গে সঙ্গে ভ্রমণ করিয়া শ্ৰাদ্ধকাৰ্য্যাদি সমাধা করিতেন, কিন্তু আর তাহ ঘটে না। এখন গয়ালীর বেশ ধনী হইয়া পড়িয়াছেন, অল্পের জন্ত কাহারও ভাবন নাই। সুতরাং এখন তাহারা নিজে কোন কাৰ্য্য না করিয়া অধীনস্থ ধামিন নামক এক শ্রেণীর ব্রাহ্মণ দ্বারা সকল কাৰ্য্য করাইয়া থাকেন। কেবল সুফল দিবার সময় গয়ালীঠাকুর দেখা দেন । [ গয়ালী দেখ। ] গয়ার অপর নাম পিতৃতীর্থ, কারণ এখানে আসিয়া ছিঙ্গু মাত্রেরই পিতৃপুরুষগণের উদ্দেশে পিওদিবার বিধি আছে । গয়ামাহীষ্ম্যে লিখিত আছে— “আত্মজশ্চাদ্যজো বাপি গয়tশ্রীদ্ধে যদা তদা। যন্নাম পাবয়েং পিণ্ডং তন্ময়ে ক্ষশাশ্বতম্৷” ১। ১৫ । নিজ পুত্র কিম্বা অন্ত যে কেহ যে ¢कान नमप्य शबाब যাইয়া যাহার নামোল্লেখ করিয়া পিণ্ডদান করে, সে শাশ্বত্ত ব্ৰহ্মধামে গমন করে } “গয়ায়াং সৰ্ব্বকালেষু পিওং দদ্যাদ্বিচক্ষণঃ। অধিমাসে জন্মদিনে অস্তেচ গুরুশুক্রয়োঃ ॥ ন ত্যক্তব্যং গয়াশ্রাদ্ধং সিংহস্থে চ বৃহস্পতেী।” ১১২• । মলমাসে, জন্মদিনে, অকালে, সিংহস্থ বৃহস্পতিতে এবং সৰ্ব্বকালেই পণ্ডিতগণ গয়াতে পিণ্ডদান করিবেন। “অষ্টকাসু চ বৃদ্ধে চ গয়ায়াং চ মুতেইহনি। মাতুঃশ্রাদ্ধং পৃথক্ কুৰ্য্যাদন্তন্ত্র পতিনা সহ ॥১৬। বৃদ্ধিশ্রান্ধেতু মাত্রাদি গয়ায়াং পিতৃপুৰ্ব্বকম্।... সজুন মুষ্টিমাত্রেন দদ্যাদক্ষ্য পিওকম্। তিলাজ্যমধুদধ্যাদিপি গুদ্রব্যেযু বোজয়েৎ । ১৯ ॥ পায়ুসেনাপি চরুণী সজন পিষ্টকেন বা । গুড়েন তণ্ডুলাদ্যৈর্ব পিণ্ডদানং বিধীয়তে ॥ ২• ॥ মুষ্টিমাত্রপ্রমাণেন চাদ্রামলকমাত্রতঃ। শমীপত্রপ্রমাণেন পিণ্ডং দদ্যাদগয়াশিয়ে ॥ ২১ ॥ উদ্ধয়েৎ সগুগোত্রানি কুলমেকোত্তরং শতম্। মাত পিতা চ ভাৰ্য চ ভগিনী দুহিতু পতিঃ। পিতৃম্বস মাতৃম্বস। সপ্তগোত্রাঃ প্রকীৰ্ত্তিতাঃ ॥ ২২ ॥ 象