পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/২৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* शङ्ख़्वांद्र [ २३¢ ] १झ्छुवांन्न --- - গৰু (ত্রি) গামিচ্ছতি ইব কাছ উৎ (বাস্তোষিপ্রত্যয়ে। পা ৬১,৭৯) । দীর্ঘ বলোপাভাবে অৰু। ষে গে। গ্রহণে ইচ্ছাবান । “অশ্বযুগৰ্ব্যরথযুৰস্বযুরিজ ইত্ৰায় ক্ষয়তি প্রয়স্তা।” (খক ১৪১১৪) গৰ্বাত (কী ) গকৃতি পৃষোদরাদিত্বাং অদম্ভাদেশ । ১ এক ক্রোশ । ২ দুইক্রোশ । (হেমচ" । ) গকৃতি (স্ত্রী) গোধূতি (গোৰ্যতে ছদস্থ্যপসংখ্যানম্। পা ৬১,৭৯। ইত্যন্ত অধ্বপরিমাণে চ” ইতি বার্ভিকং) অৰু। দুই হাজার ধন্থ । ( শব্দার্ণব । ) দুই ক্রোশ। পর্যায়— ক্রোশযুগ, গকৃত, গোকুত, গৌতম, বাচস্পতি, গব্যা। গমৃগস্ ( দেশজ ) গরম। গন্ত ( দেশজ ) বেড়াইয়ী পণ্যসংগ্ৰহ । গত্তানী ( দেশজ ) বে স্ত্রী স্বেচ্ছানুসারে পরপুরুষের সঙ্গ করে। “কুটিনী গন্তানী বড় যে মস্তানী, উভে উভে দিব শূলে ।” ( বিদ্যাসুন্দর । ) গহগহ । দেশজ) নিবিড়রূপে প্রকাশ, ভিড় । গহড়বার, (গহরবার বা গহর্বার)—উত্তরপশ্চিমবাসী রাজপুত জাতির একটা শাখা। ডের মঙ্গলপুর, বিস্তুর, জাজমেী, কনোজ, বিলহেীর, ইসলামগঞ্জ, বুন্দেলখণ্ড, গোরখপুর, কাটহর,বারাণসীর হত্ত্বর তহীল, গাজিপুরের পছোতর ও মহাইচু, খয়রাগড়, কাস্তিত্ব প্রভৃতি স্থানে এই জাতির বাস অধিক । এই জাতির উৎপত্তি সম্বন্ধে বংশগত কোন ইতিহাস নাই, তবে বর্তমান গহড়বারেরা আপনাদিগকে কনোজের পূৰ্ব্বতন রাজবংশীয় বলিয়া পরিচয় দেয়। রাজপুত ইতিহাসেও ইছারা ৩৬ট রাজবংশের অস্তভুক্ত। কাহারও মতে এই গছড়বার হইতেই বর্তমান রাঠোরবংশের স্বষ্টি । কেবল বিলহৌর ও গোরক্ষপুরের গহড়বার ব্যতীত অপর কেহ রাঠোর বংশে দান গ্রহণ করে না । [রাঠোর ও রাষ্ট্রকুট দেখ] হদি কতুল অকালীম্‌ নামক পারসী গ্রন্থে লিথিত আছে, যে ইহারা (খৃষ্টীয় ১১১৫ অব্দে ) বারাণসী হইতে কান্তিতে আসিয়া বাস করে। অপর কোন ঐতিহাসিকের মতে রাঠোরবংশীয় জয়চাদের ভ্রাতুপুত্র গড়ন দেব দ্বাদশ শতাব্দীর শেষভাগে কাশ্মীর হইতে আসিয়া ভরপত্তাদিগকে গঙ্গার উপকুল হইতে তাড়াইয় দেন এবং আপনার বংশকে গহবার নামে আখ্যাত করিয়া কান্তিতে রাজ্য স্থাপন করেন । সাধারণতঃ কাশীধামই গহড়বারদিগের আদিবাসস্থান বলিয়া নিরূপিত । উপরোক্ত দুইজন লেখকের মতানুসারে গছড়বারদিগের স্বদেশ পরিত্যাগ ও কাস্তিতে আসিয়া বাস প্রায় এক সময়েই ঘটিয়াছিল। সুতরাং নিম্নলিখিত কাশ্মীর শব্দটী সম্ভবতঃ ভ্রমক্রমে কাশীর পরিবর্তে বসিয়া থাকিবে। গোরক্ষপুর অঞ্চলে এই জাতির উৎপত্তি সম্বন্ধে আরও দুইটী বিভিন্ন প্রবাদ প্রচলিত আছে। ১ম, গছড়বারের নলরাজের বংশসন্থত । গোয়ালিয়রের নিকটবৰ্ত্তী নরবার নামক স্থান হইতে কাশীধামে আসিয়া বাস করে। ২য়, কাশীরাজ বলদেব মগধরাজ কর্তৃক তাড়িত হইলে স্বরাজ্যপরিত্যাগপূর্বক কাশ্মীররাজ ত্রিপুরের অধীনে কৰ্ম্ম গ্রহণ করেন। পরে স্বীয় প্রভুর বিরুদ্ধে বড়যন্ত্র করিয়া কাশ্মীর-রাজ্যেয় অধীশ্বর হয়েন। তঁহায় ংশধরেরা ১২১ পুরুষ রাজত্ব করিলে ইরান, তুর্কস্থান ও রোমদেশাধিপতি কাশ্মীর আক্রমণ করে । তথা হইতে যবন কর্তৃক তাড়িত হইয়া বলদেবের বংশধরগণ কনোজে পলাইয়া আসেন এবং এইখানে জয়চাঁদ পৰ্য্যস্ত ৫০ পুরুষ রাজত্ব করেন । রাজা বলদেবের তৃতীয় পুত্র রাজ বনার গহড়বার সামগুদিগের আদিপুরুব । ( কাহারও মতে এই বনার হইতেই কাশীর ‘বনারস নাম হয় । ) বস্তুতঃ কনৌজের রাঠোররাজ জয়চন্দ্র হইতে উৰ্দ্ধতন পঞ্চম পুরুষে রাজা চন্দ্রদেব ও মহীপাল প্রভৃতি কনোঙ্গরাজগণ গহড়বারবংশীয় ছিলেন, তাহা ১১৬১ সম্বতে প্রদত্ত ষসাহী হইতে প্রাপ্ত শাসনলিপি পাঠে জানা যায় । [ কনোজ দেখ। ] চন্দ্রদেবের পিতা মহীপাল বঙ্গ, ৰেহার ও কাশীর অধিপতি, কিন্তু বৌদ্ধমতাবলম্বী ছিলেন । শিলালিপি পাঠে জানা যায় যে র্তাহার রাজত্বকালে কলচুরি রাজগণের হস্তে কনোজের আধিপত্য ছিল। মহীপালের কনিষ্ঠ পুত্র চন্দ্রদেব কলচুরিরাজ কর্ণের নিকট হইতে বন্ধুতার চিহ্নস্বরূপ কনোজ প্রাপ্ত হইয়াছিলেন । হিন্দুধৰ্ম্মের উপর চন্দ্রদেবের বড়ই আস্থা ছিল। বিহার ও কাশীর পালবংশীয় বৌদ্ধরাজগণ র্তাহার আত্মীয় হইলেও তিনি তাছাদের সংস্রব এককালে পরিত্যাগ করেন। এমন কি তিনি তাহার বংশগত পাল’ উপাধি ত্যাগ করিয়া চন্দ্র’ উপাধি গ্রহণ করেন । এই চন্দ্রদেবই কনোজের রাঠোর-রাজবংশের প্রথম রাজ । র্তাহার পর হইতেই বেহার ও কাশীর গহড়বারের পাল ও কনোজের রাঠোরের চন্দ্র উপাধি গ্রহণ করেন । এতদ্ভিন্ন বুনোলখণ্ডের বুন্দেলা জাতিও এই বংশসস্থত। গহড়বারের বে কনৌজের রাজা ছিল, সে সম্বন্ধে আরও একট প্রমাণ পাওয়া যায়। রাজপুতজাতির গৌতম গোত্রীয়েরা বলেন যে, তাহার। বাস জন্ত কনৌজের গহড়বার রাজগণের অনুগ্ৰছে নিম্ন দোয়াবের অধিকার পান । হাবিবুর দৈর, ভাজলমুয়াসির, ভবকৎ ই আকবরী, ফিরিস্ত প্রভৃতি গ্রন্থে লিখিত আছে মে গজনিপতি মাঙ্ক,