পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/৩৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


● بهره ] গাথা १छूङ छाश्वl । গাথার ভাষা। थब्रांड: e£jशॉरङ । ङ्गलमांन ८ग्नtझभिनि । उ5 CS I fষ্মতমুখী शिङांभूशि हेऊानि । কোথাও স্বরগুলির সংকোচ করিয়া এইরূপ হইয়াছে— सृएम যামি । ভাৰি छवि । মিথ্যা প্রয়োগ মিথ্যপ্রয়োগ ইত্যাদি। কোথাও বা স্বর ও ব্যঞ্জন একেবারে পরিভাক্ত হইয়াছে। মমসি নমে | প্রশিধ্যায়ন্তি - . প্রণিধেত্তি ইত্যাদি । কোথাও সন্ধি বা যুক্তবর্ণকে ভাগ করিয়া সরল ও তুমিষ্ট করিবার চেষ্টা হইয়াছে । বথা— ¢¢नीं গিলানে । স্ত্রী हेन्नि ! ক্লেশ কিলেশ । මි] শিরি । পদ্মানি পছুমানি ইত্যাদি। লিঙ্গ, বচন, কারক ও ক্রিয়ার ভুল অনেক দৃষ্ট হয়। যথা— | তাৰপি তানপি । অসিমাৎ অাসনিম । ত্রিলোকী ত্ৰিলোকং । भश् মম, মত্ত: | ऊष, एाँ फूखा । কুত্র, কেন কহিং । झप्रtभि দেমি বা দদমি । শুবলি ভোসি । & ভবিষ্যসি ভেষ্যি ইত্যাদি । বাক্যাদি রচনার সংস্কৃত ভাষায় যে স্থানে বাহ! বসাইবার নিয়ম আছে, গাথার ভাষায় তাহারই অনুসরণ করা হয়; সমাস ও সন্ধিতে সে নিয়ম রক্ষিত হয় না। ফরাসী পণ্ডিত মুসো বর্ণফ সাহেব বলেন, “পুস্তকগুলি পড়িলে ইহার কারণ কিছুই অgভষ করির উঠা যায় না। শাক্যমুনির সময়ের পরে ও পালিভাষায় কৃষ্টির পূর্কে কি এই ভাষার স্বষ্টি হইয়াছিল ? লোকে সংস্কৃত জানিত না—অথচ সেই ভাষায় লিখিবার ऊाशप्नद्र हेव्हां श्रेष्ठ वणिग्न। ७हेझ* ऋष्टि कब्रिग्नारइ । श्ब्रङ ५्रं ख१४७णि खग्नि:उग्र वांश्चािद् अर्थी५ शृश्लिभeवitख .ব৷ কাশ্মীর প্রান্তে লিখিত হুইয়। থাকিবে। ভারতের মধ্যে • গাথা --- == سويسبسببسیاسیساییییییییی------------------- ংস্কৃতের যেরূপ চৰ্চা ছিল অশ্লায় সেরূপ ছিল না।" কিন্তু गांtश्वङ्ग रुथाग्न.यांश बूक्षा वांछ, ठांशtङ cयाथ शा ठिनि গাথার ভাষা ভাল করি দেখেন নাই। গাথার ভাষায় । বিশেষ গুণপন ও পাণ্ডিত্য দেখা যায়। স্থায়শাস্ত্র ও মনোशिक्षाप्नम्न छणि रुिबग्न७गि अठि ब्रिकोब्र ७ क्रूणलिङ छांषांद्र चार्मT ७ chiछेदछ्न ब्रठिठ इशैब्रांtइ 1 ज९ङ्गङ .ভাষায় উপর ধাহাদের এত অধিকার তাহারা যে সংস্কৃত জানিত নী, কেমন করিয়া বলিয। পঞ্জাব প্রভৃতি দেশে রচিত হইয়া থাকিলে সংস্কৃত ব্যাকরণ অনুসারে গদ্যাংশ বিশুদ্ধ আর পদ্যাংশ অশুদ্ধ হইল কিরূপে ? রাজা রাজেন্দ্রলাল মিত্র বলেন ৰে, “শাক্যমুনির সময় বা অব্যবহিত পরে তাটেরা গাথা গান করিয়া বেড়াইত। ললিতবিস্তর প্রভৃতি গ্রন্থের রচয়িতা পণ্ডিতগণ গদ্যাংশ লিখিয় তাহার পোষকতা করিবার জন্ত পরে পরে গাথার কবিতাগুলি বথাযথ উদ্ধৃত করিয়া দিয়াছেন। গাথার প্রতি তৎকালে লোকের বড় অtদর ছিল বলিয়াই এইরূপ করা হইয়াছে। গদ্যরচনার পর তত্ৰেদমুচ্যতে বলিয়া গাথার পদ্য উদ্ভূত হইয়াছে।” মোক্ষমূলর ও বেবর সাহেব উপরিউক্ত মিত্রমহাশয়ের মতের সমর্থন করেন। লাসেন বর্ণফের মতের পোষকতা করেন। ডাক্তার মিওর বলেন পূৰ্ব্বে গাঁথার ভাষা একটা লিখিত ভাষা ছিল। বেনফি সাহেব রাজেন্দ্রলালের পোষকতা করিয়া,বলিয়াছেন যে, "পেশাদার গায়কদিগকে নিম্নশ্রেণীর লোক বলিয়া অনুমান করিয়া লইলে রাজেন্দ্রলালের মতই ঠিক বল যাইতে পারে।” রাজেন্দ্রলাল উহার খণ্ডন করিয়া বলিয়াছেন যে, “যদিও বৌদ্ধধৰ্ম্মে জাসুিভদ ছিল না, তথাপি ব্রাহ্মণক্ষত্রিয় জাতীয় রচয়িতাগণ আপনাদিগকে উচ্চশ্রেণীর বলিয়া মনে করিত না ইহা সম্ভব নহে। তাছার কবিতাগুলি নীচজাতির রচিত হইলে কখনই উদ্ধৃত করিতেন না। গাথাগুলি মুখে রচিত হইত বলিয়৷ ইহার শুদ্ধাশুদ্ধির দিকে - তাদৃশ মনোযোগ দেওয়া হয় নাই। অনেক সময় শুদ্ধ হউক অশুদ্ধ হউক,একটা সরল কথায় যেরূপ চিত্ত আকর্ষণ করে, ভাল শুদ্ধ সংস্কৃত উচ্চ অঙ্গের ভাবায় তাহা করে না । আমাদের ঘটকের মুর্থ নহেন, কিন্তু তাহাদের সংস্কৃত গ্রাম্য অশুদ্ধতা প্রভৃতি নানা দোষে দূষিত। অথচ সভাস্থলে তাছাদের বস্তৃতায় বিশেষ আদর হইয়া থাকে। গাথা সম্বন্ধেও তাছাই বলা যাইতে পারে। লেখকের পণ্ডিত হইলেওe শ্রোতারা যে সকলেই সংস্কৃতে স্থপণ্ডিত ছিল, তাহা সম্ভব নছে । শ্রোতাদিগের মনোরঞ্জনের নিমিত্ত জুপণ্ডিত অপেক্ষা ভাটদিগেরই জায় অধিক হইত। ৰেম্বদিগের মহাদলের بیبیسی میجی--