পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/৫১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


6नंांशांशतैौ ] هذه [ গোদাবরী লেন, ‘তুই কে ? সত্য বল, নছিলে এখনি তোকে উন্ম कब्रिव।’ ठ५न भाव्6ांब्रङ्गनैी हैठ उtग्न झउॉअनिशूह कश्-ि লেন, ‘জামি মায়ায় বিমুগ্ধ হইয়৷ এই পাপকাৰ্য্য করিয়াছি, আপনার শরণাপন্ন হুইলাম, আমাকে রক্ষা করুন। ঋষি ইজকে এই বলিয়া অতিসম্পাত করিলেন, ‘পাপের প্রতিফলস্বরূপ তোর শরীরে হাজার ভগ হুইবে ।’ পরে অহল্যাকে কহিলেন, ‘পাপীয়লি স্কুইও অভি কুৎসিত ছ। তখন অছলা কাদিতে কাঁদিতে বলিলেন, ‘স্বামিন্‌। এই পাপিষ্ঠ আপনার রূপে মোহিত করিয়া আমার সর্বনাশ করিয়াছে, আমি পাপিনী নছি। অামাকে ক্ষমা করুন।” তখন গৌতম ধানযোগে সমস্ত অবগত হইয়া পুনরায় কহিলেন, ‘অংল্যে! তুমি নদীরূপে প্রবাহিত হইয়া আমার . সহিত পুনরায় মিলিত হইবে।” পরে ইন্দ্রকে পদে নিপঙিত দেখিয়া বলিলেন, ‘ইন্দ্র। তুমিও গৌতমীতে স্নান করির পাপমুক্ত হইয়া সহস্রচক্ষু লাভ করিবে ? অহল্য। নদীরূপে পুনরায় পতির সহিত মিলিত হইলেন। ইন্দ্রও সেই অহল্যাসগমে মান করিয়া সহস্রচক্ষুলাত করেন, তদবধি ঐ সঙ্গমের আর একটি নাম ইন্দ্রতীর্থ হইল। ঐ সঙ্গমস্থলে এখন তীর্থলমওঁী নামক গ্রাম দৃষ্ট হয়। বৃদ্ধগৌতমীর নামোৎপত্তি সম্বন্ধেও গৌতমীমাহাক্স্যে এইরূপ লিখিত আছে—“মহর্ষি গৌতম এক বৃদ্ধাকে বিবাহ করেন। একদিন বশিষ্ঠের আশ্রমে উপস্থিত হইলে বৃদ্ধাকে দেখিয়৷ একজন বলিল, "ওহে গৌতম! এই বৃদ্ধ বার তোমার পুত্রোৎপাদনের সম্ভাবনা নাই ? তাহ শুনিয়া অগস্ত্য গৌতমকে বলিলেন, ‘গৌতমী নামে তোমারই আনীত নদী রছিয়াছে, তাহার তীরে বৃদ্ধার সহিত ঈশ্বরীরাধনা করিলে তোমার মনস্কাম সিদ্ধ হইবে । তাছা শুনিয়া গৌতম গৌতমীতীরে আসিয়া শিব, গঙ্গা ও বিষ্ণুর আরাধনা করিতে লাগিলেন। সাক্ষাৎ গঙ্গা দেখা দিয়া উভয়ের অঙ্গে পবিত্রবারি সেচন করিলেন, তাছাতে উভয়েই অতি মুন্দরকাস্তি প্রাপ্ত ছইলেন। গঙ্গা কর্তৃক অভিবিজ সেই জল নদীরূপে বহিয়৷ সাগরে গিয়া মিলিত ছর, তাহাই বৃদ্ধগৌতমী নামে খ্যাত। ८शोडभक्षदि हेश्ाङ्ग छैौ८न्न शू कश्वब्र माध्म निराशित्र झा”न করেন। স্বয়ং মহাদেব এই বৃদ্ধাসঙ্গমে স্নান করিয়া ব্ৰহ্মইত্যাঞ্জনিভ পাপ হইতে মুক্ত হন। এখানে স্নান করিলে ঘন্ধ্যানাল্পীরও পুত্ররত্ন লাভ করে।” কৌশিকী-গৌতমীমাছাত্ম্যের মতে, বিশ্বামিত্র ব্রাহ্মণত্ব পাইবার উদেশে বশিষ্ঠ হইতে কুল্য নামে নদী আনিরা তাছার তীরে তপস্ত করেন। কৌশিক কর্তৃক মালীত বলিয়া - छेश ८कोनिकैौ नांटम विथTांछ । देशांप्त छैठब्र छैौ८ब्र भूनाथन ब्रांश्मश्वग्नरक्रज ७ णञ्चदशश्वब्रएकज जांtइ ॥ ७षांप्न ब्रांभणभू५ ॐष्ठrग्नहे शिवलित्र ऋां★न रुग्निब्रांझिालन । বশিষ্ঠ গৌতমী হইতে কুল্য আনিয়া তাছার তীরে তপস্ত করেন, এই জন্য তাছার নাম বশিষ্ঠাসঙ্গম । সাগর ও दनिर्धाङ्ग भtषा जिरकॉभाझउि छूडां★ अडtर्सौ नांtग খ্যাত। এখানে নরসিংহদেব + বিদ্যমান, ইহা বৈকুণ্ঠ সদৃশ পুণ্যভূমি। মাঘমাসে রবিবারে শুরু একাদশীতে বশিষ্ঠাসঙ্গমে স্নান করিয়া নৃসিংহদেবের পূজা করিলে মহাপাতক मठे झ्छ । গোদাবরী, মন্দ্রিাজ প্রেসিডেন্সীর অন্তর্গত একটা জেলা। rsچ ه» g tf۹۰۰۰ هم ۹۰ و srg » ه به لا ۴۰ ৮২° ৩৮' পূঃ । ইহার উত্তরসীমা মধ্যপ্রদেশ ও বিশাখপত্তন, পূৰ্ব্বে বিশাখপত্তন ও বঙ্গোপসাগর, দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর ও কৃষ্ণাজেলা এবং পশ্চিমে নিজামরাজ্য। ভূ-পরিমাণ ৭৩৪৫ বর্গমাইল । সমুদ্রকুল হইতে ৩• মাইল দূরে ধবলেশ্বরের নিকটে ঐ नौ झुद्देक्षाप्ङ्ग झुहेश्वाथाङ्ग ७माब्रिउ श्हेमा भक्षाकृष्ण 'द' शैtw পরিণত হইয়াছে। ইহার মধ্যে অমলাপুর তালুক ও কাকনাড়া জমিদারী এবং পশ্চিমে নর্মাপুর, তীমাবরম্ ও তনুকু তালুক। ঐ সকল ‘ব’ দ্বীপের ভূমি সমতল ; কোথাও কোথাও জল জমি আছে। ‘ব’ দ্বীপের শেবে পপিকোও। (৪২০৯ ফিট উচ্চ ) অধিত্যকায় আলিয়া পৰ্ব্বত দেখা যায়। রাজমহেন্দ্রীর নিকট ঐ নদীর বিস্তৃতি প্রায় ৩ মাইল হইবে । uहे मौग्न छिछद्र निग्न cष ५ीक्वां८ब्रहे ८नोकांछ शा७ब्र যায় না ভtহা মছে, তবে নদীগর্ভে স্থানে স্থানে বৃহৎ প্রস্তর খও থাকায় নদীর ভিতর দিয়া ব্যবসার জন্ত কোন একটী সরল পথের সুবিধা করা দুঃসাধ্য। গোদাবরী নদী বাছিয়া ত্রিশ মাইল উপরে যাইলে ধবলেশ্বরের বিখ্যাত “অনিকট” দেখা যায়। ইছার চার মাইল উত্তরে রাজমছেন্দ্রী নগর। আরও উত্তরাংশে পতপত্তেষিম মামক গ্রাম। এখানে অনেক মন্দিরাদি অাছে। তীর্থযাত্রীরা সময়ে সময়ে এই স্থানে আসিয়া বাস করে। ইহার নিকটে পোলাবরম্ গ্রাম, এখানে মাছাছুরী কাষ্ঠ বিক্রয়ের জন্ত একটা रुफ़ बाजांद्र भांtछ् ।। ५हे नलैौद्ध cफाग्निश्री *1५ाङ्ग ऎश्वग्निश् छझtग्नवू शttभ छांशज ७ cनोकांनि यसङ श्हेब्र थांरक । নদীগর্ত্তে ক্রমান্বয়ে বালুকায় পলি পড়ির মীমধ্যস্থ ক্ষুদ্র ক্ষুত্র দ্বীপ ও সমুদ্রের উপকূলের জাকার দিন দিন পরিবর্ত্তিম্ভ । ° गइनिश्ष्मप्पा मा५ र३त्ड क्8मान नर्णा५’ नाक्र्९१ इश्व्वाइ। V >込。