পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/৫৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


tोशी भिशिऊ श्हेग्रांtझ ; हेशt८भग्न छल-दिकं ।। ७ई रुक्रम अशूनांtब्र জানিতে পারা যায় যে গঙ্গা প্রভৃতির স্থায় গোমতী নদীও পৰ্ব্বত হইতে বাহির হইয়া সমুদ্র পর্য্যস্ত গমন করিয়াছে । কিন্তু মহাভারতের মতে গোমতী নদী কাশীর উত্তরে গঙ্গার সহিত মিশ্রিত হইয়াছে বলিয়া বর্ণনা আছে (১)। গোমতীগঙ্গাসঙ্গমে স্নান করিলে অগ্নিষ্ট্রোমের ফল হয় ও কুল উদ্ধার হইয় থাকে। রামতীর্থে স্নান করিয়া গোমতীতে স্নান করিলে অশ্বমেধের ফল ও কুল পবিত্র হয়। গোমতীতে শতসাহস্ৰক নামে একটা তীর্থ অাছে, তথায় সংযত ভাবে স্নান করিলে সহস্ৰ গোদানের ফল হইয়া থাকে। ( ভারত ৩৮৪ অ: ) এই নদী উত্তরপশ্চিমপ্রদেশের শাহজাহানপুর জেলার অন্তর্গত ফলজরতাল নামক ক্ষুদ্র হ্রদ হইতে নির্গত। অক্ষা ২৮° ৩৭ উঃ ও দ্রাঘি- ৮০° ৭' পূঃ । দেওহ ও ঘর্ঘরা নদীর মধ্যবর্তী বালুকামর ভূমির উপর দিয়া প্রায় ৫০• মাইল প্রধাহিত হইয়া অক্ষা ২৫° ৩৫' উঃ ও দ্রাঘি" ৮৩ ২5 পূৰ্ব্বে গঙ্গার বামকুলে আসিয়া মিলিত হইয়াছে। প্রবল স্রোতে দক্ষিণপূর্ধ্বগতিতে ৪২ মাইল প্রবাহিত হইয়া অক্ষা ২৮- ১১ উঃ ও দ্রাঘি- ৮০° ২০' পূৰ্ব্বে অযোধ্যার খেরি জেলায় আসিয়া পৌঁছিয়াছে। অক্ষা ২৭° ২৮ উঃ ও দ্রাঘি, ৮০- ২৭ পুৰ্ব্বে কথন নামক একটা শাখা নদী আসিয়া ইহার বাম কুলে পড়িয়াছে। এই স্থান হইতে প্রায় ৮• মাইল দক্ষিণপুৰ্ব্বাভিমুখে আসিয়া সরায়ন নামক একটা শাখা দেখা যায়। ইছার পর লক্ষেী সহয় । এখানে নদীর উপর ৫ট সেতু আছে। এই স্থানে সকল ঋতুতেই নদীর মধ্য দিয়া নৌকাদ্বারা গমনাগমনের সুবিধা । লক্ষ্মেীনগরের দক্ষিণে গোমতী নদী ক্রমশই সরু হইয়া আসিয়াছে । এখানকার চারিধারের দৃপ্ত অতিশয় মনোরম। অযোধ্যানগরের ১৭• মাইল দক্ষিণপূৰ্ব্বে সুলতানপুরের নিকট নদী গ্রন্থে ২•• হাত এবং স্রোতের বেগ ঘণ্টায় প্রায় দুই মাইল হইৰে । গোমতী মুলতানপুর হইতে ৫২ মাইল দক্ষিণে জৌনপুর জেলায় আমিরাছে। জৌনপুর সহরতলির মধ্যে নদীর বাহ দৃশ্ব অতীব সুপার । এখানে নদীর উপরে খিলান করা একটি পুল আছে। জৌনপুরের ১৮ মাইল দক্ষিণে বারাণসী জেলার নিন্দনী আসিয়া গোমতীর দক্ষিণকুলে মিশিয়াছে। যেখানে গোমতী গঙ্গার সহিত মিশি ब्राप्रु, डाश्त्र किङ्ग फेख्प्द्र ८मोरुागरण" ८गफू निम्ना औश्र ७ শীত ঋতুতে গোমতী পারাপার হওয়া যায়। বর্ষার সময় [ ¢७१ ] (४) "tश्नाभडौ शत्रप्ब्रांtछष गनप्य cनाकबिअप्ठ ।" (खात्रफ ५४० ज) গোময় cनोरु छिन्न श्रृङ्ग इहेरुङ्ग डेश्रोङ्ग माहे । जिदाङ्ग शाप्ने रुद्देह७ খেরী জেলার মুহম্মদী মামক স্থান পর্যাস্ত নদীতে সকল সময়েই সহজে ৫• • শত মণী নৌকা খাতায়াত করে । গোঁ: গোপদমাধিক্যেন বিদ্যতেই গে। মতুপ উীপ। ২ বিদ্যাবিশেষ, গোদান প্রভৃতি করিলার মন্ত্র। [গোদান দেখ।] *গোমতা বিদ্যয় ধেমুং তিলনামভিমন্ত্রা চ।” (ভারত ১৩৩৮অঃ ।) ৩ গঙ্গ। “গোমতী গুহবিদ্যা গোগাপী গগনগামিনী।" ( কাশীখ• ২৯৷৫১ ) ৪ পীঠস্থানের অধিষ্ঠাত্রী গোমস্তপৰ্ব্বতে অবস্থিত। ভগবতী মূর্তি। “গোমন্তে গোমতী দেবী মন্দরে কামচারিণী !” ( দেবীভা” ৭৩০৷৫৭ ) গোস্বদন্থি যত্রাস্তি গো-মতুপ উীপ্‌। মরা গোরু ফেলিবার স্থান, ভগিtড় । “ভোজনং যত্র তত্রৈব শয়নং ছটমন্দিরে । মরণং গোমতী-তীরেহপরং বা কিং ভবিষ্যন্তি ॥” ( উদ্ভট ) ৫ বঙ্গের ত্রিপুয়া জেলার অন্তর্গত একটী মদী। ত্রিপুরপৰ্ব্বতশ্রেণীর অতরিমুর ও লঙ্কথরাই নামক পাহাড় হইতে উৎপন্ন চাইম ও রাইমা নদী দুমরা প্রপাতের উপর একত্র মিলিয়া গোমতী নাম ধারণ করিয়াছে। কুমিল্লা হইতে প্রায় ৭ মাইল পূৰ্ব্বে বিবিবাজার গ্রামের নিকট ত্রিপুরা রাজ্যে প্রবেশ করিয়াছে। পরে পশ্চিমাভিমুখে গমন করিয়া দাউদকান্দী গ্রামের নিকটে অক্ষা ২৩° ৩১ ৪৫ উঃ ও দ্রাঘি৯ ৪৪ ১৫′ পূৰ্ব্বে মেঘনা নদীতে মিলিয়াছে। এই নদী লম্বে প্রায় ৬৬ মাইল হইবে। বর্ষাকালে ইহার গভীরতা এবং স্রোতের বেগ বাডিয়া থাকে। পাৰ্ব্বতীয় ত্রিপুরারাজ্যে এই নদীর উত্তরকুলে কাশীগঞ্জ, পিথপ্লাগঞ্জ ও মৈলাকচেরল নামক তিনটী শাখা আছে। নদীর কূলে কুমিল্লা, জাফরগঞ্জ ও পাচপুকুরিয়া এই তিনট প্রধান নগর। কুমিল্লায়, কোম্পানীগঞ্জে ও মুয়পুরে নদী পার হইবার জষ্ঠ নৌকাদি

  • it७ध्न शां★ा । গোমন্ত (পুং) সহাদ্রির বিবরস্থিত একটা পৰ্ব্বত । “ততশ্চাত গমিষ্যাম সহস্ত বিবরং গিরিম্। গোমস্ত ইতি বিখ্যাতং নৈকশৃঙ্গবিভূষিতম্।।” (হরি ৯৬ অঃ) এই পৰ্ব্বতে একট পীঠস্থান আছে, তাছার অধিষ্ঠাত্রী দেবীর নাম গোমতী । [ গোমতী, গোয়া, জরাসন্ধ ও কৃষ্ণ দেখ । ] 帶 গেমন (পুং) পৰ্ব্বতবিশেষ, ক্ৰৌঞ্চৰীপে অবস্থিত, কমললোচন সৰ্ব্বদাই এই পৰ্ব্বতে বাল কয়েম । (ভারত ভীষ্ম- ১২ জঃ । ) গোময় (পুং কী) গোঃ পুীষং গো মঙ্গট। ১ গোন্ধ ৰিষ্ট