পাতা:বিশ্বকোষ প্রথম খণ্ড.djvu/১২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


जॉड ছাগলের প্রায় সকল প্রকার উদ্ভিদ খাইয়া থাকে। ইহানের অখাদ্য কিছুই দেখা যায় না। কাটাগাছ খাইতেও ইহাদের কোন কষ্ট নাই। কিন্তু নবীন মঞ্জরী এবং নূতন তৃণেই কিছু অধিক রুচি। ইহার এায় জল খায় না । ইহাদের শরীরেও জল লাগিলে অতিশয় কষ্ট বোধ করে, তাই বৃষ্টির সময় ঘরের বাহিরে যায় না। গায়ে অধিক জল লাগিলে কখন কখন গুটী নামে এক প্রকার রোগ জন্মে। গুটী রোগ জন্মিলে সৰ্ব্বাঙ্গের লোম ঝরিয়া যায়। গৃহপালিত ছাগল অনেকটা নিরীহ, কিন্তু বড় বড় বোকা পাঠা অতিশয় উপদ্রব্য করে। স্ত্রীলোক এবং বালক বালিকা দেখিলে তাহাদিগকে দু্য মারিয়া ফেলিয়া দেয়। হাতে খাদ্যদ্রব্য থাকিলে কাড়িয়া খায়। ভেড়ার সঙ্গে লড়াই লাগিলে ছাগল প্রায় জয়ী হয়। তবে দোষের মধ্যে এই, দুস মারিবার সময় ভেড়া মাথা হেট করিয়৷ ছুটয় আসে; কিন্তু ছাগল মাথা তুলিয়। দুস মারে, তাই সাবধান হইতে না পারিলে ভেড়ার দুস ছাগলের বুকে কিৰা পেটে আসিয়া লাগে। ছাগলেরা খেলিবার সময় পরস্পর মারামারি করে। সম্মুখের দুটা পা তুলিয়া, ঘাড় ও মাথা একটু বক্র করি এরূপ ভাব দেখায়, যেন সেই দুসে ব্ৰহ্মাও ফাটিয়া দুইখানা হইবে । কিন্তু এতটা আড়ম্বর মাত্র সার, আখাত করিবার সময় উভয়ে কেবল শৃঙ্গে শৃঙ্গে অল্প ঠেকাঠেকি করে। তাই উদ্ভট কবির বলেন,—অজাযুদ্ধে ঋষিশ্রান্ধে প্রভাতে মেঘডম্বরে। স্পেত্যোঃ কলহেচৈৰ বহারম্ভে গযুক্রিয়। বড় বড় ছাগল ও খাসীর শৃঙ্গের ভিতর এক প্রকার কীট জন্মে। ছাগঙ্গের অন্ত্রে ও পিত্ত্বকোষে এক রকম শিলা উৎপন্ন হয়। সেই শিলা মাকি অত্যন্তু বিষয়, তাই পূৰ্ব্বকালের লোকের ঔষধাৰ্থ মান রোগে ব্যবহার করিতেন । এ দেশে ছাগলের চৰ্ম্মে ঢোলক, তবলা, दाम हछि बांनारुढ झाँeब्री शहेब्रा थाएक; ठड़िग्न झछ কোন কাজে বড় একটা ব্যবহৃত হয় না। ইতঃ লোকেরা সদ্যঃ কাট ছাগলের চৰ্ম্ম দগ্ধ করিয়া খাইয় থাকে। সামান্ত ছাগলের লোমে চিত্রকরের স্কুলী গ্রস্তুত করে। ছাগলের উচ্চস্থামে গুইতে ভাল বাসে । তাই প্রায় ভগ্ন }, ७ोझैरुङ्ग उँभन्न सिहेङ्ग थार्क। क्षइनरक अिर्शी कूजक्रम বলিয়। জ্ঞান করেন । তাহার বলেন, ছাগল কাছারও - লক্ষ্মীজী দেখিতে পারে দা। গৃহস্থের ষাটা ভাঙ্কিয়াখাউক, | ভাষার উপর গুইয়া মুখে নিজ হাইতে গাইবে, ইহাই । তাহাজের প্রার্থন। . . . . . [ s૦8 ] चीज़ - - -- ছাগলের ৰিষ্ঠ পচাইর রাখিলে বাগানের ও শস্তক্ষেত্রের জন্ত উত্তম সার হয়। ইহা গোবরের চেয়ে আলেकांशष्ण प्ले९ङ्गहे । किरु कुरुक्रमन्न भएउ झाशण-मान्नैौन्न চেয়ে ভেড়ার মাদীর জারও অধিক তেজ। বৈদোর কোন কোন রোগের মুষ্টিযোগে ছাগল-নাদী ব্যবস্থা করেন। স্ফোটকাদি শীঘ্র না পাকিলে ছাগল মাদী উষ্ণ করিয়া বেদন স্থানে প্রলেপ দিতে হয়। পার্থপূলে ছাগল नाशै, श्१ि, श्राप्तो, आउ% झोप्लेश ७रु९ अर्ष'कोन्न इाल একত্র বাটিয়া গরম করিবে। অল্প ফুটিয়া উঠিলে এই ঔষধ বেদনাস্থলে লাগাইলে পীড়ার উপশম হয়। পক্ষাঘাত রোগে ছাগলের নাদী জলে সিদ্ধ করিয়া তাহাতে জবশাঙ্গ মৰ্দ্দন করিলে কিছু কিছু উপকার করে। কৃত্রিম স্বর্ণ প্রস্তুত করিবার জন্ত ঘোড়ীর ও ছাগলের বিষ্ঠ দিয়৷ পার ফুটাইতে হয় । [ স্বর্ণ দেখ ]। রজকের ছাগলের ও ভেড়ার নাদী দিয়া কাপড় সিদ্ধ করে । তাছাভে অনেকটা ময়লা কাটিয়া যায়। ঐকাহিক জর হটলে অজ্ঞ লোকের শনিবার কি মঙ্গলবারের শেষ রাত্রিতে ছাগলের দড়ী চুরি করিয়া তে মাত্রা পথে তাহার উপর মূত্র ত্যাগ করে। কাহার মতে, ছাগলের খোটা তুলিয়। সেই গর্তে মুত্রত্যাগ করিলে ভৌতিক জরের উপশম হয়। যৌবনকাল উপস্থিত হইলে পাঠার গায়ে অত্যন্ত বেটুক গন্ধ হয়। অনেকে অনুমান করেন যে, থটাসের তার ছাগলের কোষ ঐ বোটুকা গন্ধের প্রধান স্থান। বৈদ্যদের মতে, বোটুকা গন্ধযুক্ত পাঠা সৰ্ব্বদা কাছে রাখিলে কালরোগের শাস্তি হয় । থাসী কিম্বা পাঠীর গায়ে ৰোটক গন্ধ হয় না । অন্যান্ত সকল প্রাণীর মধ্যে ছাগলই অধিক নপুংসক হয়। অযোগ্য মিলন ইহার প্রধান কারণ । ৰেখানে এই দোষ নাই, তেমন স্থলে অধিক নপুংসক জন্মে না। মপুংসক ছাগমাংস ঔষধে লাগে। হংসের মত ছাগলকেও সহজে অজ্ঞান করা যায়। হাসকে চিত করিয়া শোয়াইম্বা তাহার চক্ষের কাছে একটী কাঠী নাড়িলে একেবারে মুগ্ধ হইয় পড়ে, জার উঠিয়া পলায় না। ছাগলকেও এক পাশে কাত করিয়া শোয়াইয়া ভাষার চক্ষে ঢাকা দিলে আর উঠিয়া । ु मी { - পূর্বকাল হইতে ভারতবর্ষে সকলেই বিশেষ জার शूर्वक अणभारगcडांजन कग्निब्र! शाहकब ।. भूत्वाहिऊर्द्रक हजभitनद्राश्रजभएकोश्मनीन कग्निrशपईजांड क्रब्रिएटम । 4षनcछवम् श्रइ.दबूदाक्राइब्रः अनिल, लोभङ्गः ब्रफ़