পাতা:বিশ্বকোষ প্রথম খণ্ড.djvu/২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিশ্বকোষ৷ ASAeJJBeSeSeASAASAAAS अ जा অ স্বরবর্ণের আদ্যক্ষর। পাঠশালার বালকের চলিতবাঙ্গালাধু স্বরবর্ণকে ‘সিদ্ধি’ বলে। তাহার কারণ এই, প্রাচীন বৈয়াকরণের বর্ণমালার প্রথমেই সমস্ত স্বরবর্ণগুলিকে লিথিয়াছেন এবং এদেশের প্রথানুসারে তাহারা গ্রন্থারস্তে সিদ্ধিরস্তু’ (সিদ্ধি হউক ) এই বলিয়া মঙ্গলাচরণ করিয়াছেন । প্রথমে মঙ্গলাচরণ তাহার পর স্বরবর্ণ; তজন্য মঙ্গলাচরণের আদিশস্ক সিদ্ধি’ হইতে স্বরবর্ণের নাম "সিদ্ধি’ হইয়াছে। সংস্কৃত ব্যাকরণমতে উচ্চারণভেদে আকার অষ্টাদশ প্রকার। প্রথম-হ্রস্ব, দীর্ঘ ও প্লুত। তাহার পর, উদাত্ত অনুদাত্ত ও স্বরিত । পুনশ্চ, হ্রস্ব উদাত্ত, হ্রস্ব অনুদাত্ত ও হ্রস্ব স্বরিত। দীর্ঘ উদাত্ত, দীর্ঘ অনুদাত্ত ও দীর্ঘ স্বরিত । পুত উদাত্ত, প্লুত অম্বাত্তও ত স্বরিত। পুনৰ্ব্বার এই নয় প্রকার উচ্চারণের অমুনাসিক ও অনমুনাসিক ভেদ আছে। সুতরাং অকারের উচ্চারণ সৰ্ব্বসমেত আঠার প্রকার হইতেছে। গুরুর মুখে না শুনিলে সমস্ত উচ্চারণ ठेिरु झझमृत्रभ श्रेtऊ श्राटद्र नां। বাঙ্গালাভাষায় কেবলাহ্রস্ব ও দীর্ঘস্বর গৃহীত হইয়াছে। অকারের দীর্ঘ আকার। কোন বর্ণে আকার যুক্ত হইলে তাহার রূপ এই প্রকার হয় (t) । অ, আ, এই চুটী কণ্ঠ্যবর্ণ। সংস্কৃতভাষায় এবং সংস্কৃত হইতে বাঙ্গালা প্রভৃতি যে সকল ভাষা উৎপন্ন হইয়াছে, তৎসমুদায়েয় হল্‌বৰ্ণ অকারের আশ্রয়ে উচ্চারিত হয়। যথা,—ক, খ, ইত্যাদি উচ্চারণ করিলে কৃষ্ণ-অ, থ°অ, এইরূপ অন্তে অকার আসিতেছে। তাই। ৬। অকঃ সবর্ণে দীর্ঘঃ । পা * ৬। ১ । ১০১ । সমান স্বর মিলিত হইলে দীর্ঘ হয়, সন্ধির এই স্বত্রায়ারে নব+অঙ্কুর এই দুইশ’ মিলিত হইয়া নৰান্থর হয়। কারণ বকারের শেষে অকার এবং অন্ধু রের আদিতে অকার রহিয়াছে। পঞ্জাবের উত্তরে টাকরী নামক প্রদেশে টাকরীভাষা প্রচলিত আছে । তাহা সংস্বতের অপভ্রংশ । কিন্তু সে ভাষায় স্বরবর্ণ ব্যঞ্জনবর্ণে মিলিত করা হয় না । ‘কা’ লিখিতে হইলে কিতা এইक्रश्र शिशिउ ट्ज़ । कि-कहे । हेउTॉनि । ই এইরূপ মাত্রাহীন হকারের মত যে বর্ণ তাহাকে লুপ্ত অকার কহে । নবঃ+অঙ্কুরঃ নবোইস্কুর; এইরূপ স্থলে বকারের পর বিসর্গ ওকার হইল এবং অঙ্কুরের অকার লুপ্ত হইয়া গেল। *। অতো রোরপুতাঃ তে। পা ৬। ১। ১১৩ । অণুত অকার (হ্রস্ব দীর্ঘ) পরে থাকিলে, অল্পত অকারের পরস্থিত রু স্থানে উকার হয়। বর্ণোদ্ধার তন্ত্রে আকারের রূপ এই প্রকার বর্ণিত হইब्राटश्-क्रिम निर् इहेष्ठ कूsजी श्रेब्र किशि९ कूशिष्ठ হইবে; তৎপরে বামভাগ হইতে একট রেখা আসিয়৷ দক্ষিণ দিক হইতে উপরে মাত্রার সঙ্গে মিশিয়া যাইবে। এতদ্বারা বাঙ্গালা অকারের আকৃতি কথিত হইল । সুতরাং স্পষ্টই বুঝা যাইতেছে, দেবনাগর হইতে বাঙ্গাল। অক্ষরের রূপ উৎপন্ন হইলে বর্ণোদ্ধার তন্ত্র রচিত হইয়াছে। র্যাহারা বিবেচনা করেন, প্রাচীনকাল হইতে স্বতন্ত্র বাঙ্গালা অক্ষর বিদ্যমান রহিয়াছে, সে সকল লোকের অনুমান প্রামাণিক নহে। श्लूिङ्ग उकिमान्, अश्र९मग्न छेवरत्नत्र विङ्कडि cगषिाड পান। তন্ত্রে আকারেও ঈশ্বরত্ব প্রতিপাদিত হইয়াছে। ইহাতে ব্ৰহ্মা বিষ্ণু শিব ও শক্তি বিরাজ করিতেছেন। ইহার পঞ্চকোণ নিগুণ ও ত্রিগুণাত্মক, সাক্ষাৎ কৈবল্যময়; তথায় পঞ্চদেবতা ও শক্তিত্রয় অধিষ্ঠিত আছেন । অ (অব্য) অভাব, নিষেধ, অন্ন। নঞ তৎপুরুষ সমাসে নকারের লোপ হইলে অকার থাকে । *। নলোপো নঞঃ। পা ৬। ও । ৭৩ ৷ নঞ তৎপুরুষ সমাসে শৰ