পাতা:বিশ্বকোষ প্রথম খণ্ড.djvu/৪১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপস্মার [ ৩৯২ ] অপস্থার अकृषाहेख अरु छिन्न * 8 (3) প্রত্যহ ২ । ৩ বার সেবন করিবে । এfস্থমিডিসের সার R8 , বৈদ্যক-অপম্মার রোগে ৰৈদ্যের কয়েকট মুষ্টি একত্র মিশ্রিত করিয়া ১২টা বটিকা করিবে । আহারাস্তে প্রত্যহ দুইটী বটিক সেবন করা আবশুক । ভেলিরিয়েনেট অব জিঙ্ক ১২ গ্ৰেণ সলফেট অব কুইনাইন ૨૨ , পিল বিয়াই কম্পঃ २8 ,, একত্র মিশ্রিত করিয়া ১২ট বড়ী করিবে । প্রত্যহ ছুইটী বড়ী সেবন করা আবশুক । ফস্ফেী অব জিঙ্ক : ১৮ গ্ৰেণ পিল বিয়াই কম্প २8 ” একত্র মিশ্রিত করিয়া ১২ট বড়ী। প্রত্যহ ছুইটী বটিক সেবন করিবে । ৩ তুতে –মৃগীরোগে তুতেও একটা উৎকৃষ্ট ঔষধ। আমাদের দেশের সন্ন্যাসীরা নাটার সারের সঙ্গে এই ঔষধ প্রয়োগ করেন । এলোপ্যার্থী চিকিৎসকেরাও ইহা ব্যবহার করিয়া থাকেন। ডাক্তার হাপি এমোনিয়েটেড কপারের অধিক পক্ষপাতী। তুতে ১ গ্রেণ, নাটার সার ১২ গ্রেণ একত্র মিশ্রিত কfরয়। চারিট বটিক কয়িবে। প্রত্যহ ইহার ২ টা বড়ী সেবন করা আবখ্যক । ৪ ডিজিটেলিস্ —আয়ল ওে বহুকাল হইতে এই ঔষধ মৃগীরোগে প্রযুক্ত হইয়। আসিতেছে। ডাক্তার শার্কে, ক্রাম্পটন, কৰ্মাক্, করিগান প্রভৃতি চিকিৎসকগণ ইহার বিস্তর প্রশংসা করিয়া থাকেন। ইহা ফাণ্টই নাকি অধিক উপকারী। অধিককাল ডিজিটেলিস্ ব্যবহার করিলে বিষক্রিয়া করিতে পারে, অতএব ইহা সাবধানে প্রয়োগ করিবে । ৫ ব্রোমাইড অব পটাস । সার চার্লস লঙ্ক, ডাক্তার রেনল্ডস, ডাক্তার উইলিয়মস্ প্রভৃতি অনেক বিজ্ঞ চিকিৎসক মৃগীরোগে এই ঔষধ প্রয়োগ করিয়া বিশেষ ফল লাভ করিয়াছেন। ব্রোমাইড অব পটাস্ ৫ গ্রেণ, কলম্বোর ফান্ট অৰ্দ্ধ ছটাক । এক মাত্র। গ্রত্যহ তিন বার সেবন করিবে। এই ঔষধ অধিক মাত্রায় প্ররোগ করিলে শরীর নিস্তেজ হইয় পড়ে, অতএব ইহ। সাবধানে ব্যৰহার করিবে। ৫ আইওডিড্‌ অব পটাস্ —মস্তকের অস্থি বৃদ্ধি হইলে কিম্বা পুরাতন প্রদাহাদি থাকিলে এই ঔষধে উপকার করে। চিরাতার ফাণ্টের সঙ্গে ৩ গ্রেণ মাত্রায় যোগ প্রয়োগ করিয়া থাকেন। তাছার মধ্যে, মুচ্ছকালে নিম্নলিখিত ধুপ প্রয়োগ করিলে কিছু উপকার করিতে পারে। নকুল, পেচক, বিড়াল, শকুনি, কীট ( বিছু ), সর্প ও কাক ইহাদের যথাসম্ভব ঠোট, পক্ষ ও বিষ্ঠা দ্বারা ধূপ দিলে আক্ষেপাদির শান্তি হয় এবং শীঘ্র চৈতন্য হইয়া থাকে। অশুভূতাবস্থায় দুগ্ধের সহিত শতমূলীর রস, তৈলের সহিত রম্বনের রস এবং মধুর সহিত ব্ৰহ্মীশাকের রস সেবন করিলে কোন কোন ব্যক্তি দীর্ঘকাল সুস্থ থাকে। এই রোগে বৃহৎ ছাগাদি তৈল, মাস eৈল, নারায়ণ তৈল প্রভৃতি পাক তৈল মাখাইবে এবং বৃহৎ ছাগাদি ঘৃত, চতুর্মুখ এবং যে সকল ঔষধে দস্তা, তাম্র ও রৌপ্য আছে তাহাতেই ফল দর্শে। সচরাচর নিম্নলিখিত ঔষধ গুলি প্রযুক্ত হয়। বৃহৎ পঞ্চগব্য দ্বত—গব্য ঘৃত ৪ সের প্রথমে মূছ। করিয়া লইবে। তাহার পর, গোময় রস ৪ সের, গোমূত্র ৪ সের, গব্য দুগ্ধ ৪ সের, গব্য দুগ্ধের দধির মাত ৪ সের, এই সকল দ্রব্য ২ । ৩ দিন অস্তুর অন্তর ক্রমশঃ স্কৃতের সহিত পাক করবে। কাথাথ—দশমূল, ত্রিফল, হরিদ্র, দারুহরিদ্র, কুড়চি ছাল, ছাতিম ছাল, আপাঙ্গের মূল, নীল বৃক্ষ, কটকী, সে দাল ফল, ডুমুর ফল, কুড়, দুরালভা, প্রতেক ২ পল, জল ৬৪ সের, সিদ্ধ করিয়া শেষ ১৬ সের । এই কাথ ঘুতের সহিত পাক করিবে । কন্ধাৰ্থ-বামুনহাটী, আকনার্দী, ত্রিকটু, তেউড়ীমূল, হিজল বীজ, গজপিপ্পলী, অড়হর ফল, মূৰ্ব্বামূল, দন্তীমুল, চিরাতা, চিতামুল, শুমালতী, অনন্তমূল, রক্তরোড়া, গন্ধতৃণ, ময়না ফল, এই সকল দ্রব্য প্রত্যেক ২ তোলা । ঘুতের সহিত পাক করিবে। পাক শেধ হইলে স্থত ছাকিয়া মাটার পাত্রে রাখিবে । গব্য দুগ্ধের সহিত অৰ্দ্ধতোলা ঘৃত প্রত্যহ সেবন করিলে অপস্মার রোগ নিবারণ হয় । চওভৈরব-পারদ, তাম্র. লোহ, হরিতাল, গন্ধক মনঃশিলা, রসাঞ্জন, এই সমস্ত দ্রব্য সমানাংশে লইয়। একত্র গোমূত্রের সঙ্গে মৰ্দ্দন করিবে। তাহার পর পুনবার দ্বিগুণ গন্ধক মিশ্রিত করিয়া লৌহপাত্রে অল্পক্ষণ পাক করি লইবে। ইহার মাত্র ও রতি। হিঙ্গু, লবণ,