পাতা:বিশ্বকোষ প্রথম খণ্ড.djvu/৪২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপামার্গ কাল পরে পুনৰ্ব্বার অৰ্দ্ধপোয়। রস সেবন করাইবে । কিন্তু কেবল আপাঙ্গের রস সেবন করাইয়া নিশ্চিন্ত থাকিবে না। ইহার সঙ্গে ক্ষতস্থানের উপরে তিন চারিটা তাগা বাধিবে, মস্তকে শীতল জলধারা ঢালিবে এবং কাপড়ের কোড়া পাকাইয়া ক্ষত অঙ্গে জোরে আঘাত করিবে। কেহ কেহ ক্ষতস্থান ছুরী দ্বারা চিরিয়া তথায় অপাঙ্গের প্রলেপ দেন। তাহাতেও না কি ভেদবমির উদ্রেক হয়। মেজর মেডেন কহেন যে, আপাঙ্গের শীযের কাছে ভীমরুল, বোল তা প্রভৃতি বিষাক্ত পতঙ্গ আসিতে পারে না । আসিলে তাহদের ইন্দ্রিয়স্তম্ভ হয়, সুতরাং আর কামড়াইতে পারে না। ডাক্তার শর্টের মতে, বৃশ্চিক প্রভৃতি কীটের দংশনে আপাং মহৌষধ। আমাদের দেশে কাহাকে বোল তা কিম্বা বৃশ্চিকাদি কামড়াইলে লোকে সেই দষ্টস্থানে আপাং বাটিয়া দেয় । পাগল শৃগাল কুন্ধুরাদিতে কামড়াইলে জলাতঙ্ক হইবার পূৰ্ব্বে আপাঙ, মহৌষধ। প্রথমে দংশনের পর ক্ষতস্থান ছুরী দ্বারা উত্তমরূপে চিরিয়া তাহার উপরে কঁাচ আপাঙ্গের প্রলেপ দিবে। ইহার কতকটা দাহিক। শক্তি আছে, কাজেই প্রলেপ দিলে ক্ষত স্থানে অনেকটা বিয নষ্ট হইয়া যায়। তাহার পর পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তিকে ৩ । ৪ দিন অন্তর প্রাতঃকালে অৰ্দ্ধপোয়। আপাং পাতার রস সেবন করাইবে । তদ্ভিন্ন, সপ্তাহ অন্তর আপাং পত্রের ভাবনা দিবে। এই রূপ চিকিৎসায় রাখিয়া আহারের সঙ্গে রোগীকে যথেষ্ট গব্য ঘৃত থাইতে দেওয়া কৰ্ত্তব্য। প্রথমাবস্থা হইতে এ প্রকার যত্ন করিলে প্রায় অসাধ্য জলাতঙ্ক ঘটিতে পায় না । শোথ এবং অৰ্শরোগের পক্ষে আপাঙ্গের ফাণ্টই অধিক প্রশস্ত। পত্র ও মূল ২ ড্রাম, উষ্ণ জল এক পোয়। আবৃত পাত্রে ৩ ঘণ্টা ভিজাইয়। ঐ ফাণ্ট অৰ্দ্ধ ছুটাক মাত্রায় প্রত্যহ তিন বার সেবন করাইবে । পুরাতন ঐকাহিক জরে, জরের পালার দিন প্রত্যুষে হাতে আপাঙ্গের মূল বাধিয়া দিলে জর নিবারণ হয়। দেখা যায়, অনেকস্থলে স্নায়ুমণ্ডলের ক্রিয়াবিকার জল্পই পাল জর ঘটে। সেই সকল স্থানে এ প্রকার ঔষধে ফল দশে । - কঙুরোগ ( থস, পাচড়া, চুলকান ইত্যাদি ) কাচ হলুদের সঙ্গে সমস্ত আপাং গাছ বাটিয়া সৰ্ব্বাঙ্গে মাখিলে কণ্ডুরোগ নিবারণ হয়। পুরাতন ক্ষতরোগে আপাং [ 8०० ] অপার \ মহৌষধ। সর্ষপ তৈল এক পোয়, আপাঙ্গের মূল এক ছটাক, মেটে সিন্দুর এক কাঞ্চ। প্রথমে ঘুটের পোড়ে পিতল বাটতে তৈল চড়াইবে । মৃদ্ধ সস্তাপে তৈল নিফেন হইলে প্রথমে তাহাতে সিন্দুর, তাহার পর অপাঙ্গের মূল ছেচিয়া নিক্ষেপ করিবে। মূলগুলি ভাজা ভাজ হইলে তৈল নামাইয়া লইবে । ক্ষতস্থান পরিষ্কার করিয়া তাহাতে প্রত্যহ ৩ । ৪ বার এই তৈল লাগাইলে শীঘ্ৰ ক্ষত আরোগ্য হয়। পঞ্জাব প্লান্ট’ নামক পুস্তকে ইয়ার্টলিথিয়াছেন যে, প্রমেহ রোগে এবং শিশুদের উদর বেদনায় আপাং সেবন করাইলে উপকার হয় । ডাক্তার উদয় ষ্টাদ দত্তের মতে, দুষ্ট ক্ষতাদির পক্ষে আপাঙ্গের ক্ষার প্রশস্ত। তিল তৈল এবং আপাঙ্গের ক্ষার একত্র পাক করিয়া কাণে দিলে কর্ণখুল ও কাণ হইতে পূজপড়া নিবারণ হয়। হরিতাল ভষ্ম করিবার পূৰ্ব্বে সন্ন্যাসীরা আপাঙ্গের ক্ষার জলে সপ্তাহকাল হরিতাল ভিজাইয়। রাখেন । তাহাতে শঙ্খবিষের উগ্ৰতা নষ্ট হয়। অপামাগাক্ষারতৈল ( ক্লী ) অপামার্গ ক্ষারজলৈ; কৃত কন্ধেন সাধিতং তিলজং তৈলম্ । ৩-তৎ । চক্রদত্তোক্ত কৰ্ণ রোগের তৈল বিশেষ । অপামাগ তৈল ( ক্লী ) ৬-তৎ । চক্রদত্তোক্ত কৃমিয় তৈল । অপায় ( পুং ) অপ-ইণ অচ । বিভাগ জনক ক্রিয়। * । ধ্রুবমপায়েইপাদানম্। পা ১ । ৪ ৷ ২৪ { অর্থ অপাদান শব্দে দেখ ] । ‘অপায়ো বিশ্লেষঃ’ । ( সিং কোং )। নাশ । অপগম। 'স্বৰ্য্যাপায়ে’ । ( মেঘ উ০ ১৭ )। স্বৰ্য্য অপগত হইলে । অপায়িন (ত্রি ) অপারোহস্তাস্তীতি অপার-ইনি। অপায় যুক্ত। বিয়োগশীল। নশ্বর। বিনাশী । অপ-ইণ-ণিনি (বাচ )। কিন্তু ‘কুস্কৃত্তেঃ কারক বৃত্তির্গরীয়সী' (পাতঞ্জল ভাষ্য)। কৃতের বৃত্তি অপেক্ষ তদ্ধিত বৃত্তি শ্রেষ্ঠা। এই দ্যায়ামুসারে ণিনি হইতে পারে না । নিতান্তমর্থিনঃ’ । (মাঘ ১। ১৭। মাধের এই শ্লোকের টাকায় মল্লিনাথ লিথিয়াছেন,-- অর্থোইভিলাষ: স এষামন্তীতি মত্বর্থ ইনিঃ নতু গিনিঃ । কৃত্তেঃ তদ্ধিত বৃত্তির্গরীয়সীতিষ্ঠায়াৎ। অপার (ত্রি) পয়মেব অণ, পারং নাস্তি পায়ং যন্ত। নঞ বহুব্রী। পারশূন্ত। পাররহিত। যাহা দুঃখে উত্তীর্ণ হওয়া যায়। অতিশয় মৰ্য্যাদাশালী। অতলস্পর্শ । যাহার ভিন্ন পার অতিদূরবর্তী। অমুত্তার্য্য। যাহা উত্তীর্ণ হওয়া যার