পাতা:বিশ্বকোষ প্রথম খণ্ড.djvu/৬৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টবক্র অষ্টপদ (পুং ক্লী) অষ্টে অষ্টেী পদানি পংক্তে বিদ্যন্তে অন্মিন। সংখ্যা শাস্ত বীপায়াম্ আত্ব অৰ্দ্ধৰ্চাদিঃ। পাশা খেলিবার ছক। অষ্টম ধাতুযু পদং প্রতিষ্ঠা যন্ত। স্বর্ণ। শরভ । মাকড়শার আট পা, তজ্জন্ত উহাকে অষ্টাপদ কহে। ধুতুর। অষ্টং যথা স্থাৎ তথা পদ্যতে, কৃমি। চন্দ্রমল্লিক। অষ্টমু দিক্ষু আপদ্যতে, থিল। কৈলাসপৰ্ব্বত। অষ্টাভিঃ সিদ্ধিভিয়াপদ্যতে, অণিমাদি অষ্টসিদ্ধি । ( স্ত্রী ) অষ্টাপদী, চন্দ্রমল্লিকা । [অষ্টাপদ শব্দের বৃদ্ধির স্বত্র অষ্টাবক্র শকে দেখ ] । অষ্টাপাদ্য (ত্রি ) অষ্টভিরাপদ্যতে গুণ্যতে আ-পদ কৰ্ম্মণি ণ্যৎ । আটগুণ । অষ্টাবিংশতি (স্ত্রী) অষ্টাধিক বিংশতি আত্ম-অস্তাদেশ: | অষ্টচত্বারিংশং শব্দ দেখ ]। ২৮ আটাইশ সংখ্যা । (লি) আটাইশ সংখ্যাবিশিষ্ট। পূরণে ডট- অষ্টাবিংশ । পুরণে তমপ, অষ্টাবিংশতিতম। তষ্টাবিংশতিতত্ত্ব (ক্ল) অষ্টাবিংশতিস্তানেষু তত্ত্বং । রঘু নন্দন ভট্টাচাৰ্য্য প্রণীত মলমাসাদি অষ্টাবিংশতি বিষয়ের স্মৃতিশাস্ত্র বিশেষ। যথা—মলমাস, দায়তত্ব, সংস্কার, শুদ্ধিনির্ণয়, প্রায়শ্চিত্ত, বিবাহ, তিথি, জন্মাষ্টমীব্রত, দুর্গোৎসব, ব্যবহার, একাদশী প্রভৃতির নির্ণয়, তড়াগ উৎসর্গ, গৃহোৎসর্গ, বৃষোৎসর্গ, দীক্ষা, সামবেদের শ্রাদ্ধ, যজুর্বেদের শ্ৰাদ্ধ, শূদ্ৰদের হত্য। श्रडेज़ (ळि) अtछेो अद्र हेद (काभ रुष्ट । আটকোণ যুক্ত। উক্ত অর্থে ‘অষ্টাত্র অষ্টকোণ ইত্যাদি শব্দও প্রযুক্ত হয়। অষ্টারচক্রবৎ (পুং ) অষ্টারম্ অষ্টকোণং চক্রমস্ত্যস্ত মতুপ, মস্ত বঃ। জিন বিশেষ। ইছাদের হাতে আtটকোণ চক্র থাকে বলিয়া ইহঁাদিগকে “অষ্টারচক্রবান কহে । ইহার অপর পঞ্চম-মধুত্র, জ্ঞানদর্পণ, মধুভদ্ৰ মই ঘোষ, কুমার, স্থিরচক্র, বজ্রধর, প্রজ্ঞাকায়, বাদিরাট, নীলোৎপলী, মহারাজ, নীল, পদুলবাহন, ধিয়াম্পতি, গুঞ্জঙ্কিন, খড়ী, দণ্ডী, বিভূষণ বাগবত পঞ্চচীর, সিংহকেলা, শিখধর, বাগীশ্বর। আইলি । ঘোড়ার দেশ বিশেষ । অষ্টাবক্র (পুং ) অষ্টরুত্বে বক্রঃ বৃত্বে সংখ্যাম্বুজৰ্থ পর (অইন: সজ্ঞায়াম্। পা ৬। ৩ ১২০) ইতি দীর্ঘ । ঋষিবিশেষ। ইনি স্বমতির গর্ভে ও কহোড়ের ঔরসে জন্মগ্রহণ করেন। উদালকের কাছে কহোড় শাস্তাদি পাঠ করিতেন। উদালক, শিব্যের সেবাশুশ্ৰুষার छूहे श्छ। ॐशब्र [ ৬৫৩ ] অষ্টাবক্ররল সঙ্গে আপনার কন্যা সুমতির বিবাহ দিলেন। সুমতির অপর নাম সুজাত । কিছু কাল পরে মুমতি গর্ভবতী হইলেন। একদিন কহোড় পত্নীর কাছে বসিয়া বেদপাঠ করিতেছেন। বেদ পড়িতে পড়িতে স্থানে স্থানে তাহায় ভূল হইতে লাগিল । সুমতির গর্ভস্থ সন্তান পিতার সেই সকল ভুল ধরিয়া দিল। ইহাতে কহোড় ক্রোধ করিয়া বলিলেন,— এখনও তুমি ভূমিষ্ট হও নাই। গর্ভে থাকিয়াই তোমায় স্বভাব এত বক্র, অতএব তুমি অষ্টাবক্র হইয়া জন্ম লইবে । শিশু জন্ম লইলে সেই শাপে তাহার শরীয়ের অtট স্থান বক্র হইয়াছিল। অষ্টাবক্র যখন গর্ভে, সেই সময়ে সুমতি এক দিন কহোড়কে বলিলেন,—“আমার দশম মাস উপস্থিত ; তোমায় অর্থ নাই ; অতএব তুমি জনক রাজায় কাছে গিয় অর্থ ভিক্ষা কর’। কহোড় জনকের কাছে অর্থ ভিক্ষা করিতে গেলেন। সেখানে বন্দী নামে বরুণের এক পুত্র ছিলেন। বেদে তাহার অসাধারণ দক্ষতা। তিনি কহোড়কে বেদবিচারে পরাস্ত করিয়া সমুদ্রের জলে ফেলিয়া দিলেন। কহোড় সাগরের তলে বরুশেয় কাছে গিয়া তাহার যজ্ঞে অভিষিক্ত হইলেন । এখানে অষ্টাবক্রের জন্ম হইল। তিনি বার বৎসর বয়সের সময়ে পিতার দুরবস্থার কথা শুনিয়া জনকপুরীতে গেলেন। সঙ্গে মাতুল শ্বেতকেতু । সেইখানে বেদবিচারে বলীকে পরাস্ত করিয়া পিতাকে উদ্ধার করিয়া আনিলেন। কহোড় পুত্রেয় প্রতি সন্তুষ্ট হইরা তাহাকে সমঙ্গা নদীতে স্নান করিতে বলেন। অষ্টাবক্র সমঙ্গায় স্নান করিলে তাহার শরীরের বক্রস্ত সারিয়া গেল, কিন্তু জন্মাবচ্ছিল্পে বক্র নাম আর ঘুচিল না । অষ্টাবক্র, জনকরাজকে যে উপদেশ দিয়াছিলেন তাহার নাম অষ্টাবক্র সংহিতা । ইহারই আশীৰ্ব্বাদে ভক্টর দিবাদ লাভ করেন এবং ইহারই শাপে কৃষ্ণের মহিষীর দস্থ্যর হাতে পতিত হন। আ৯বরল। শোধিত পার ১ ভাগ, গন্ধক ২ ভাগ স্বর্ণ ১ ভাগ, পৌপ্য ॥• ভাগ : সীসা, তামা, খর্পর, বঙ্গ, প্রত্যেক। ভাগ, এই সকল দ্রব্য বটের কুরীর রসে এক প্রহর কাল ও ঘৃতকুমারীর রসে এক প্রহর কাল মৰ্দ্দন করিবে। পরে সমতল বোতলের মধ্যে রাখিয়া তাহার মুখে একখও চা-খড়ী ঢাকা দিবে। শেষে বালুক পূর্ণ ছাড়ার মধ্যে ঐ বোতল दजाहेर३ । cबाफ [ •४8]