পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/২৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


שמשפשי" চিকণ স্বপক্কষ্ট। প্রখমপ্রকার শীল তিলিবালা, তিলিকায়, কানিকার, বিনেীত এৰং দ্বিতীয় প্রকার অমলিকার নামে খ্যাত। সম্প্রতি কাশ্মীরে কাশ্মীরীশালের অতি হীৰাৰস্থ খটিয়াছে। অমৃতসর, শিয়ালকোট, মণ্টগমারী, রাবলপিণ্ডি, ফিরোজপুর, হাজার, বল্প হিসার, লাহোর, কর্ণাল, কোহাৎ প্রভৃতি পঞ্জাবের অনেকস্থানে ফুলকারী নামে আর এক রকম চিকণের বস্ত্র প্রত্নত্ত হয়। জুতার কাপড়ের উপৰু রেলমের স্থতা দিয়া ফুল বুমিঙ্গে তাহাকে ফুলকারী কহে। পঞ্জাব অঞ্চলে ফযকপত্নীগণ এই ফুলকারী তৈয়ার করে। তথায় স্ত্রীলোকেরা ইহার ওক্ষমাও জাঙ্গ রাখা করিয়া থাকে। সাহেবের ফুলকারী বড় কালবালেন, তন্তিয় ৱানাবিধ চিকখকাৰ্য্যযুক্ত আলোয়ান, রামপুর-চাদর প্রভৃত্তি পঞ্জাবে প্রস্তুত হইরা থাকে। বোম্বাই প্রেসিডেন্সির মধ্যে শিকারপুর, রেহরি, করাচি, হারদ্রাবাদ, সুরাট, সাবস্তুবাড়ী, বোম্বাই প্রভৃতি স্থানে চিকণ কাৰ্য্য হইয়া থাকে। শিকারপুর, রোহরি, সুরাট প্রভৃতি স্থানে সুচিকরদিগকে চিকদাজ বা কুন্দিাজ বলে। ইহার মুসলমান। ইহার হাতজারি, কারচোবি, বদলানি এবং রেসমী-ভরাত-কাম এই চারি প্রকার স্বন্ধিকার্ঘ্যে পটু। হাতে বোন স্বর্ণ-রৌপ্যের জরির স্থচিকাৰ্য্যকে হাতজারি এবং পাতলা সোণ রূপার তারকলির কাজকে বদলানি কহে । রেসমী-ভরাত-কাম কার্য্যে প্রথমে রেসমের উপর সুত্রদ্বারা চিত্র অঙ্কিত করিয়া তাহার মধ্যস্থান স্বর্ণ-রৌপ্যের জরি দিয়া পূরণ করে । কারচোবি কাজ আবার ৫ ভাগে বিভক্ত। যথা ১ কসবটিকি, ২ ঝিক-চলকৃ, ৩ ভরাতকরাচি, ঝিক-টিকি ও & চলকৃটিকি । টিকির অর্থ চুমকি, ৰিক্ একরূপ সোণার স্বত্র এবং চলক অর্থে আঁকাবঁকা। কস টিকির অর্থ সোণাল্পপার চুমকির কাজ, ঝিক হুত্রের আঁকাবাক কাজকে বিকৃচলক, বিকের মধ্যে মধ্যে চুমকি বসাইলে কিকটিকি এবং আঁকাবঁকা, ও চুমকিযুক্ত হইলে চাকটিকি হয়। করাচির অনুকরণে বস্ত্রের উপর ফুল তোলা থাকিলে তাহাকে ভরাতকরাচি বলে। আসামে সুন্দর ফুল-কাটা রেসম ও কার্পাসৰস্ত্র প্রস্তুত হয়। ইহাদের অধিকাংশই তাতে বোন হইয়া থাকে। সকল শ্রেণীর স্ত্রীলোকই ঐ কাজ করে। নূতন নূতন ধরণের পুষ্পাদি যুনিতে পারিলে তাহার গৌরব মনে করে । তথায় চাদর, খনিয়াকাপড়, চেলেঙ্ক, পরিদিয়া-কাপড় ইত্যদি প্রস্তুত হয়। রেসমের স্নিহ অর্থাৎ স্ত্রীলোকের চাদর এবং এড়াবর-কাপড়, ইত্যাদি সোণাপার জরি দিয়া প্রস্তুত হয়। এখানকার মুগাৱেলমের বস্থাদি বহুল পরিমাণে চিকাৰ্য্যযুক্ত [ २१४ ] চিকবক্সপুর হইয়া থাকে। এই সকল কাপড়ের আঁচলা অভিমুন্দর ও ঘন ফুলকাটা হয় । সম্প্রক্তি এদেশে ধনী দরিত্র সকলেই চিকণকাজ ব্যবহার করিতেছেন। বড় লোকের মহিলাগণ বিচিত্র স্বর্ণরৌপ্যখচিত চুকুল পরিধান করেন, দরিত্ররমণী কার্পাসস্থত্রের অল্পমূল্য গুলবাহারশাড়ী পরিয়া সখ মিটান। ধনৰান কারচোবের কোট, টুপি, পায়জামা ও কাশ্মীরীশাল গায়ে দিয়া আয়াস করেন, নির্ধন চাদর ও বুটিদার কামিজ পরিয়া কথঞ্চিৎ খেদ মিটান। যাহার সোণার জরি কিনিৰার সামর্থ্য নাই অথচ সখ আছে, জিনি তারকসির কাজেই বিলাসপিপালার শাস্তি করেন । য়ুরোপীয় পণ্ডিতগণের মতে আসিরীয়দেশ চিকণকার্ধ্যের আদি-উৎপত্তি স্থান, তথা হইত্তে নানাদিকে ইহা বিস্তৃত হইয়াছে। প্লিনি বলেন, ফ্রিজিয়গণ ইহার উদ্ভাবস্থিত এবং ভজন্তই রোমের হুচিকরগণকে ফ্রিজিয়ান বলিত। বাহা হউক ইহা অতি প্রাচীনকাল হইতেই ভারতবর্ষে প্রচলিত হইয়৷ আসিতেছে । ( ঋগ্বেদ ২৩৬, ২৩৮৪ । ) মোজেসের সময় হিব্রুগণ মধ্যে ইহার চর্চা ছিল । মিসর, আরব ও পারসিকগণ প্রাচীনকালে সুন্দর স্থচিকাৰ্য্য করিত। ট্রয়-যুদ্ধের পূৰ্ব্বে সিডনের রমণীগণ সুচিকাৰ্য্যে নিপুণ ছিল, তৎপরে গ্রীকরমণীগণ উহাতে নৈপুণ্যলাভ করে । চিকণ কেবল সৌখিন কাৰ্য্য নহে। ইহা অর্থাগমেরও একটা উপায়। য়ুরোপে নানারূপ কল সাহাষ্যে সুচিকাৰ্য্য সম্পন্ন হইয়া থাকে। মান-হান্‌মেন-নিবাসী মিঃ হিলম্যান (M. Heilman ) এক যন্ত্র আবিষ্কার করেন, তদ্বারা একবারে ৮০ হইতে ১৪৪টা পৰ্য্যস্ত স্বচী চালাইতে পারা যায় । সুতরাং হস্ত দ্বারা যে সময়ে ১টা মাত্র ফুল তোলা হয়, তদপেক্ষ অল্পসময়ে ঐ যন্ত্র সাহায্যে ৮০ হইতে ১৪ •ট ফুল তোলা হইতে পারে। স্থচিকাৰ্য্য সহজ করিবার জন্ত তথায় নানারূপ উপায় অবলম্বিত হইয়াছে । পুষ্পাদির ছাবা ও ভিন্ন ভিন্ন বর্ণযুক্ত আদর্শ পাওয়া যায়। উহা কাপড়ের নীচে রাখিয়া আগে পেন্সিল দিয়া ভিন্ন ভিন্ন রংএর দাগ দিয়া লইতে হয়। তৎপরে স্বচি দিয়া যথোপযুক্ত বর্ণের স্বতাম্বারা ঐ সকল স্থান পূরণ করিয়া দেয়। বার্লিনে প্রথম উদ্ভব হয় বলিয়া এইরূপ কাজকে বার্লিনওয়ার্ক ( Berlin-work ) কহে । ইহাতে সুচিচালনে নৈপুণ্য ভিন্ন অন্ত কোন প্রকার বাছাকুরি নাই । { হুচি দেখ । ] চিকবল্পপুর, ১ হিস্থর রাজ্যের কোলার জেলার একটা তালুক । ইহার ক্ষেত্রফল ৩৭৯ বর্গমাইল ; এখানে নন্দুির্গ