পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/২৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিকাকোল { ২৭৯ ] চিকাকোল B BBBBBB BDD DDB BBD DB BBB BBBBS BBS BBB BBBBB DD DB BBB BB BBB BD DDD প্রভৃতি বিদ্যমান আছে। ২ উক্ত নামধেয় তালুকের সদর। হইতেই প্রকৃত পক্ষে এখানকার হিন্দুরাজগণের উচ্ছেদ সাধিত ইহা কোলার অবস্থিত इहे८ङ ७७ भाहेल অন্তরে, অক্ষা t۹ی ا: "ده مه rtfr۹۹ ها : ۰ و به مو و একট চূর্ণ অাছে। উক্ত দুর্গ পলিগারদিগের জাদিপুরুষ মোয়স্ক বোৰুলবংশীয় মল্পবৈরিগও কর্তৃক ১৪৭৯ খৃষ্টাব্দে নিৰ্ম্মিত হয় এবং কালক্রমে মল্পবৈরিগঞ্জের বংশধরেরা মহিমুরের হিঙ্গুনরপতির বিরুদ্ধে জয়ধারণ ও র্তাহার অধীনতা অস্বীকারপূর্বক চিক্‌বয়পুরে স্বাধীনতা অবলম্বন করেন, কিন্তু প্রসিদ্ধ হায়দরআলি মহিমুর-সিংহাসনে আরোহণ করিয়া ১৭৬১ খৃষ্টাব্দে চিক্ৰত্নপুর ও নদীদুর্গ অধিকার করিলে এখানকায় গগুবংশীয় শেষ স্থপতি কোবতুরের কারাগারে প্ররিত হন । এখানকার বর্তমান অধিবাসী সংখ্যা ১৯৬২৩ । চিকলদহ, বেরার প্রদেশের অন্তর্গত ইলিচপুর জেলায় অবস্থিত একটা পাহাড় । ইহা গাবিলগড়দুর্গ হইতে প্রায় দেড় মাইল ও ইলিচপুর হইতে প্রায় ১৫ মাইল অন্তর । ইহার উচ্চতা ৩৭৭৭ ফিট। অক্ষা ২১, ২৪ ও দ্রাফি ৭৭ ২২′ পূঃ। ২ উক্ত পাহাড়ের অধিত্যকায় অবস্থিত একটী পল্লী। এই পল্লীটী মেলঘাটতালুকের অন্তর্গত। এখানে একটা স্বাস্থ্যনিবাস আছে ; এস্থানটী অধিত্যকায় স্থাপিত হইলেও এস্থানে আরোহণ করা কষ্টসাধ্য নহে, এমন কি অশ্বারোহণে এখানে উঠিতে পারা যায়। গো, শকট কিম্বা উষ্ট্র দ্বারা এখানে দ্রব্যসামগ্ৰী আনীত হয়। এ স্থানটী নাতিশীতোষ্ণ । শীতকালে তাপমানযন্ত্রে ৫৯' ও গ্রীষ্মকালে ৮৩ উষ্ণতা অনুভূত হয়। এখানকার সাধারণ উষ্ণতা ৭১ ফারেণহিট। এখানে মালু, চা, কাফি প্রভৃতি প্রচুর পরিমাণে জন্মিয় থাকে। এখানকার দৃপ্ত অতি মনোহর। গোলাপ, পদ্ম প্রভৃতি ফুল এখানকার অধিবাসীদিগকে মোহিত করিয়া রাখে । চিকাকোল ( ঐকাকুলম্) মাঙ্গাজপ্রেসিডেন্সীর গঞ্জামজেলার অন্তর্গত একটী তালুক। ক্ষেত্রফল ৪৪২ বর্গমাইল। এখানে পূৰ্ব্বে হিন্দু ও বেীন্ধরাজাদিগের অধিকারভূক্ত কলিঙ্গরাজ্যের কেন্দ্রস্থল এবং মোগলরাজাদিগের অধীনস্থ সরকার প্রদেশের রাজধানী ছিল। এই স্থানটা ১৫৬৮ খৃষ্টাব্দ পৰ্য্যস্ত উৎকলের গজপতিরাজগণের রাজ্যভূক্ত ছিল। পরে বঙ্গালার মুসলমান-শাসনকৰ্ত্ত অধিকার করিয়া কুতবশাহী বিভাগের অন্তভূক্ত করেন। কিন্তু এখানকার শাসনভার হিন্দু | রাজ হস্তেই ন্যস্ত থাকে। অবশেষে ১৭২৪ খৃষ্টাব্দে আসফজ নিজাম-উল-মূলক দাক্ষিণাত্যের রাজপ্রতিনিধি নিযুক্ত ও হায়দরাবাদে রাজধানী স্থাপন করিয়া চিকাকোলরাজ্যের | হয়। মুসলমানদিগের শাসনসময়ে এই তালুকটা ইছাপুর, কাশিমকোট ও চিকাকোল এই তিনটী বিভাগে বিভক্ত হয় । হায়ত্রাবাদের নিজাম বাহাদুর ইহার কতক অংশ উত্তর সরকার প্রদেশের সহিত ফরাসীদিগকে ১৭৫৩ খৃষ্টাব্দে, পরে ১৭৬৬ খৃষ্টাব্দে ইংরাজদিগকে প্রদান করেন। কাশিমকোট ও চিকাকোল বিভাগদ্বর ইংরাজদিগের হস্তগত হওয়ার পর বিশাখপত্তন জেলার অন্তভূক্ত হয়, পরে ১৮৬২ খৃষ্টাবো গঞ্জামজেলার অস্তভূক্ত হইয়াছে। এই তালুকের মধ্যে ৩টা সহর আছে। ২ (শ্ৰীকাকুলম্) উক্ত তালুকের অন্তর্গত একটা সহর । -২৫' পূঃ । সমুদ্র که به مe rif : "هه ۱۹ مه ۴۰ তীর হইতে ৪ মাইল ও মাম্রাজ হইতে ৫৬৭ মাইল অস্তরে নাগবলীনী এবং গ্রান্টট্রক্ষরোডের উপর অবস্থিত । অনেক দিন পর্য্যস্ত এই স্থানে সেনানিবাস ছিল। এই সহরে ১৮১৫ খৃষ্টাব্দে কিছু দিনের জন্য জেলার শাসনকৰ্ত্তার ও ১৮৬৫ খৃষ্টাব্দে কিছু দিনের জন্য জেলার জজসাহেবের বিচারালয় স্থাপিত হয়। এখনও এখানে ফৌজদারী ও দেওয়ানী বিচারালয়, চিকিৎ সালয়, ডাকঘর, বিদ্যালয় প্রভৃতি রহিয়াছে । এখানকার রাজসংক্রান্ত অট্টালিকা সকল প্রাচীন দুর্গের চতুঃপার্শ্বস্থ পরিখার অভ্যন্তরে অবস্থিত । ইহার দক্ষিণপাশ্বে এখানকার অধিবাসীগণ বাস করিয়া থাকে। এই স্থানে গোলকুণ্ডার কুতবসাইবংশের শাসনকর্তা সেরমহম্মদর্ণার প্রতিষ্ঠিত বহুসংখ্যক মসজিদ অদ্যাবধি মুসলমান শাসনকর্তাদিগের আধিপত্যের ও এই প্রাচীন সহরের ঔৎকর্ষ্যের সাক্ষ্য প্রদান করিতেছে। এই সহরের স্থানীয় হিন্দু নাম শ্ৰীকাকুলম ও স্থানীয় মুসলমান নাম মহফুজ বা মনফুর বন্দর । লাসেনের মতে প্রাচীন মণিপুরের অপভ্রংশ মন্‌ফুর হইয়াছে। কেহ বলেন, চিকাকোলের প্রসিদ্ধ মুসলমানশাসনকৰ্ত্ত অনবরউদ্দীনখার পুত্র মুফজখার নামানুসারে এই সহ্রটর শেষোক্ত নামকরণ হইয়াছে। ইহার স্থানীয় নাম গুলচালাবাদ অর্থাৎ মনোহর গোলাপবাগান । এখানকার অধিবাসীগণের মধ্যে শতকরা বিংশতিঞ্জন ব্যবসা বাণিজ্য করিয়া ও শতকর। আটজন শিল্পকাৰ্য্য করিয়া জীবন যাপন করেন। এখানকার শিল্পকার্য অতি পরিপাটী, ঢাকা অপেক্ষী হীন নহে। ১৭৯১ খৃষ্টাব্দে চিকাকোলে দুর্ভিক্ষ উপস্থিত হওয়ায় এ স্থান একরূপ জনশূন্ত হইয়া উঠিয়াছিল। ১৮৬৬ খৃষ্টাব্দে ও একবার ফুর্ভিক্ষ হয়, কিন্তু তাহ প্রথমবারের স্থায় অনিষ্টকর হয় নাই ।