পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/২৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিত। { ২৯২ ] চিতাখাৰ্থ ক্ষুদ্র এবং রৌপ্যবর্ণ। ইহাদের বিস্তর কাটা আছে। গলদেশ । হইতে উদরের নিম্ন পৰ্য্যন্ত প্রায় ৫১ সারি কাটা থাকে। বর্ণ পৃষ্ঠদেশে ধূসর ও তাম্রাভ, কিন্তু পার্শ্বদেশ রৌপ্যের ভাস্ক। এক একটা চিতলমাছ ৩৪ হাত বড় ও ওজনে দেড় মণ দুই মণ পৰ্যন্ত হইয়া থাকে। ৰঙ্গোপসাগর, উড়িষ্যা, আসাম, সিন্ধুপ্রদেশ, তাম, মলয় প্রভৃতি স্থানের নদী ও পুষ্করিণীতে এই মাছ বাস করে। নিম্নবঙ্গেই এই মাছ বেশী বড় হয় । ইহার ছোট ছোট মাছ ধরিয়া খায় বলিয়া যে পুষ্করিণীতে চিতল মাছ থাকে, সেখানে অন্তান্ত মাছ অধিক জন্মিতে পারে না । ইহাদের আবার বিভিন্নরূপ জাতিও দেখা যায়। টাটুকা চিতলমাছ খাইতে সুস্বাছ ও পুষ্টিকর। অধিকতর তৈলাক্ত বলিয়া অনেক সময় কেবল তৈলসংগ্রহ জন্তই ইহাদিগকে ধরা হয়। তৈল সংগ্ৰহ করিতে হইলে মাছ ধরিয়া প্রায় ২৪ ঘণ্টাকাল রাখিয়া জলে সিদ্ধ করিবে, পরে ভাজিয়া জাত দিয়া চাপিলে তৈল ৰাহির হইবে। ঐ তৈল পরিষ্কার করিয়া জালাইবার জষ্ঠ ব্যবহৃত হয়। অবশিষ্ট অংশে উত্তম সার হয় । - চিত্ত (স্ত্রী) চীয়তে শ্মশানাগ্নিরস্তাং চি অধিকরণে ত্রু জিয়াং টাপ। শবদ্বাছাধার, চুী। পৰ্য্যাক্স—চিত্য, চিতি, কাঠমঠী, চৈত্য, চিতাচুড়ক, চিত্য। চিতায় শৰদাহের প্রথা অতি পূৰ্ব্বকাল হইতে গ্রচলিত। শতপথব্রাহ্মণ, কাত্যায়নশ্রেীতস্বত্র, লাট্রায়নশ্রেীতস্বত্র প্রভৃতি বৈদিক গ্রন্থে চিতার কথা আছে। কাত্যায়নশ্রেীতস্থত্রের মতে ষে কোন সমস্থানে বহুল তৃণ কাষ্ঠাদির নিম্নভাগে অগ্নি রাখিয়া চিত রচনা করিতে পারা যায় (১)। কাষ্ঠাদির স্থানে ক্ষীরযুক্ত জকবৃক্ষ, দুৰ্ব্ব, শর, মুঞ্জ, পৃল্পিপণী, মাষপণী, অধ্যও অথবা চপটপিকাকাষ্ঠে চিতা সাজাইবে (২) । শুদ্ধিতত্বে লিখিত আছে—সগোত্রজ, সপিণ্ড অথবা বন্ধুবৰ্গ শবকে লইয়া চিতায় স্থাপন করিক্তে পারে । পুরুষ হইলে দক্ষিণদিকে পা রাখিয়া উবুড় করিয়া শোয়াইবে, কিন্তু স্ত্রী হইলে চিৎ করিয়া শোয়াইতে হয় । [ দাহ দেখ। ] তন্ত্রে মন্ত্রসাধনাঙ্গ চিত্তার কথা লিখিত আছে । বীরতন্ত্রের মতে—যে কোন পক্ষে জষ্টমী বা চতুর্দশীতে চিতাসাধন হইত্তে পারে, তৰে কৃষ্ণপক্ষই প্রশস্ত । দেড়ুপ্রহর রাত্র অতীত হইলে শৰ লইয়। চিতায় গিয়া আপনার হিতের জন্তু -- { कtपङjtब्रमtबौद्धगू* ५८|१२e ) (९)'न ििडक्९ श्रृंख्छ नारार्व १ नृपेनः काtsfञ्चडि4िश्डिा छाष्ट्रप्न | gwt* ' ( w:%tsß, ) সাধন কল্পিৰে। . ভয় করিবে না, হাসিবে না, চারিদিকে চাহিবে না। আপনার মনেই মন্ত্রপাঠ করিবে । সাধনের সময় আমিষযুক্ত অন্ন, গুড়, ছাগ, স্বয়া, পায়স, পিষ্টক ও ইচ্ছামত নানাফল দিয়া নৈবেদ্য করিয়া শস্ত্রপাণি সুন্ধদের সহিত স্ত্রীরসাধন করিৰে ।” - তন্ত্রসারে লিখিত আছে— “অসংস্কৃত চিত গ্রাহা ন তু সংস্কারসংস্কৃত । চাওtলাদিষু সংপ্রাপ্ত কেবলং শীগ্রসিদ্ভিদ৷ ” অর্থাৎ অসংস্কৃত চিতাই বীরাচারে প্রশস্ত, যে চিতার সংস্কার করা হইয়াছে তাহা উপযোগী নহে । বিশেষতঃ চাড়াল প্রভৃতিকে যে চিতায় দাহ করা হইয়াছে, সেই চিতায় শীঘ্ৰ অভীষ্ট সিদ্ধি হয়। ২ সমূহ। (মেদিনী ) চিত্তাকড়ি ( দেশজ) একপ্রকার কড়ি। চিতাচ্ছাদন ( ক্লী ) চিতায়াঃ আচ্ছাদনং ৬তৎ। চিতার अiध्छ्tङ्गन्त्र-विश्व । চিতাপড়ন ( দেশজ) চিৎ হইয় পড়া । - চিতাবাঘ (চিত্রব্যাস, চিত্রক) শাৰ্দ্দল জাতীয় অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্রাবয়ব মাংসাসী হিংস্ৰজন্তু । যুরোপীয় প্রাণিতবিদগণ ইহাদিগকে বিড়ালজাতির মধ্যে গণ্য করেন । সচরাচর নানাবর্ণে চিত্রিত বলিয়াই ইচ্ছাদিগকে চিত্রব্যাস্ত্র বা চিতাবাঘ বলে। ইহাদের সমস্ত অবস্থৰ সুদৃঢ় ও সবল, গঠন অনতি স্থল, মস্তক গোলাকার, দংষ্ট্র অতিশয় তীক্ষ এবং পায়ের থাবা সুতীক্ষ্ণ নথর-বিশিষ্ট । ইহাদের পুচ্ছ সুদীর্ঘ এবং সৰ্ব্বাঙ্গ ঘন কর্কশ লোমাবৃত । গাত্রে গোল বক্র রেখা প্রভৃতি নানা আকারের কৃষ্ণবর্ণ চিহ্ন আছে। ইহাদের বর্ণ প্রায়ই কৃষ্ণাভ পীত । ভারতবর্ষ, পুর্বউপদ্বীপ, আফগানস্থান, সিংহল প্রকৃত্তি এসিয়ার নানাস্থানে ও আফ্রিকায় চিতাবাঘ দেখা যায় । নানাস্থানে ইহাদের নানারূপ জাতি আছে । অনেকে কালবাঘকেও এই শ্রেণীভুক্ত করেন । এই চিতাবাথেরই ক্ষুদ্রাকার এক জাতিকে ৰিবিবাম্ব বলে । চিতাবাৰ নিবিড় অরণ্যে বাস করে না, ঈষৎ জঙ্গলপূর্ণ গিরিপাশ্বে থাকিতে ভালবাসে । ইহারা ভয়ানক হিংস্ৰ । মমুস্তুকে কিছুমাত্র ভয় করেন এবং কোন কোন সময়ে শিকারীকে পর্য্যস্ত মারিয়া ফেলে। ইহার যুগশাৰক প্রভৃতি বঙ্গ জন্তু ধরিয়া খায়, সুবিধা পাইলে গোমছিযাদিও নষ্ট করে । কখন কখন গ্রামে প্রবেশ কন্ধিয়া গোমেম্বাদি এমম কি বালকবালিকা পর্যাস্তু ধরিয়া লইয়া যায় । ইহাদের লঙ্ক ७ गमनांत्रि 2ॉग्न दTांtबग्न छtञ्च । अबांबांग्नदे ei४ इॉख छेफ्र <यtऔद्र शण्षम कब्रिग्र1 या३८ष्ठ •t८ङ्ग । कानक गमइ लिकप्प्ले