পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/২৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিতাবাৰ { ২৯৩ } চিতারেব

  • eeeeemmmerœnemasom 鑒園 পাইলে যথেচ্ছ গোরু, ছাগল প্রভৃতি মারিয়া ফেলে। ক্ষুধা না থাকিলেও ইহার প্রাণীহিংসায় নিবৃত্ত হয় না। ইহার প্রায়ই মৃতজন্তু খায় না, তবে বেশী ক্ষুধা পাইলে মৃত জীবও উমরসাৎ করে। ইহার গুল্মবনে লুকাইয়া চুপ করিয়া বসিয়া থাকে, সম্মুখে কোন প্রাণী আসিলে অমনি তাহার উপর লাফাইয়া পড়ে। কখন কখন সন্মুখ যুদ্ধ করিয়াও শীকার করে।

షే ||14ష్త " o শিকারীচিত ( Falis jubata ) মধ্যভারডে, দক্ষিপাত্যের মধ্যভাগে, রাজপুতানা ও সিন্ধুপ্রদেশ প্রভৃতি স্থানে দেখিতে পাওয়া যায়। সিরিয়া, মেসোপটেমিয়া প্রভৃতি এসিয়ার দক্ষিণপশ্চিমভাগে এবং আফ্রিকার সৰ্ব্বত্র ইছার অল্পীধিক বাস করে। ইহাদের বর্ণ ধূসর ও শ্বেত এবং গায়ে ঘন ঘন গোলাকার কৃষ্ণবর্ণ চিহ্নযুক্ত। প্রত্যেক চক্ষুর প্রান্ত হইতে একটী কৃষ্ণবর্ণ রেখা টানা, পুচ্ছে ডোর ও অগ্রভাগে কৃষ্ণবর্ণ, উদরের লোমাবলী দীর্ষ ও স্বন্ধে অল্প কেশর থাকে । ইহাদের চক্ষু গোলাকার, কটিদেশ সরু, পদ দীর্ঘ। এই জন্তু লইয়া কৃষ্ণসার ও অন্তান্ত মৃগশিকার করা যায়,তাই ইহাদিগকে শিকারী চিতা বলে। কিছু বড় হইলে ধরিয়া আনিয়া পোষ মানায়, পরে শিকার করিতে শিখায় । পোষ মানাইবার সময় ইহাদিগকে অযথা উত্তেজিত করিলে বা সৰ্ব্বদা বন্দী করিয়া রাখিলে কিছুইফল হয় না। সাবধানে যথোপযুক্ত স্বাধীনতা এবং আদর দেওয়া চাই । শিকারে যাইবার সময় শিকারীগণ চিতাকে একটা শকটের ভিতর রাখিয়া চক্ষে ষ্টুলি দিয়া লইরা যায়। পরে সম্মুখে কৃষ্ণসারযুগের পাল দৃষ্ট হইলে যথাসাধ্য নিকটে গমন করিয়া শকট হইতে চিতাকে বাহির করে এবং তাহার চক্ষের ঠুলি খুলিয়া দেয়। চিতা শিকার দেখিবামাত্র নিঃশষে তাহার দিকে অগ্রসর হয়, পরে যখন নিকটে গমন করে বা শিকার যদি জানিতে পারে, অমনি দ্রুতবেগে লম্ব বন্ধে শিকারের উপর গিয়া পড়ে। যদি প্রথম ইহারা সহজে পোষ মানেন । কিন্তু শৈশবাবস্থায় ধরিয়া हेशंनिशाक cभाष भांनाहेरठ ७ कूकूरब्रग्न छांद्र यफूद्र श्राख्छ। পালন করিতে দেখা গিয়াছে। ভারতবর্ষের অনেক স্থানে পোষা চিতাবাঘ সঙ্গে লইয়া অনেকে তামাসা দেখাইয়া জীবিকা উপার্জন করে । আবার অনেকে চিতাবাঘ পুষিয়া তঙ্গার মৃগাদি শিকার করে। క్రౌ } ங்க் so Y. لیۓ * ... o $ వ్రై | ; షౌ כס 1. شمہ ۔ . . .....’1;، اوچ w SY: جام‘‘ ۔؟ & উদ্যমেই ধরিতে না পারে, তবে ক্রোধে ও হতাশে অধীর হইয়া বিকট মুখভঙ্গিপূৰ্ব্বক বলিয়া থাকে। "চিত দলের মধ্যে সৰ্ব্বাপেক্ষ বৃহদাকার কৃষ্ণসারকেই আক্রমণ করে এবং গলায় কামড়াইয়া ও মস্তকের উপর একথাবা দিয়া এরূপভাবে তাহাকে আয়ত্ত করে যে কৃষ্ণসার শৃঙ্গদ্বারা চিতার কিছুই করিতে পারে না। শিকারের পর মৃগের একটা পা কাটিয়া পরিশ্রমের পুরস্কার স্বরূপ চিতাকে দেওয়া হয়। যে কৃষ্ণসারের দ্রুতগতির নিকট কি বিলাতী কি দেশীয় কোন ডালকুত্ত্বা সমকক্ষ নয়, সেও চিতার নিকট সহজেই পরাস্ত হয়। কিন্তু চিত। অধিকক্ষণ দোঁড়িতে পারে না। শিকারীগণ চিতাকে শিশুকাল হইতে পালন করিলে ভাল শিকার করিতে পারে না, কিছু বড় হইয়া মাতার নিকট পশু ধরিবার কৌশল শিক্ষা করিবার পর উহাদিগকে ধরিয়া পোষ মানাইলে তবে উৎকৃষ্ট শিকারী হয় । চিতামণপুর, বেহারের অন্তর্গতশাহাবাদ জেলার একটা নগর। চিতালিয়া, বাঙ্গালার অন্তর্গত সাওতালপরগণার একটা জমিদারী, ইহা গবর্মেন্টের সম্পত্তি । - চিন্তারেব, মধ্যপ্রদেশের একটা নদী। ইহা ছিদবার জেলা হইতে উৎপন্ন হইয়া ৫• মাইল আসিয়া নরসিংহপুর জেলার অন্তর্গত পাটলোন নামক স্থানের নিকট সকরনদীতে পতিত হইয়াছে । নৰ্ম্মদ-মাইনিং কোম্পানির কয়লা এই নদীর সাহায্যে অন্যত্র প্রেরিত হয় । WI ጓ8