পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৩৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ौिन [ ૭8ઇ ] छैौमैं তাহারা মৎস্ত ধরিতে অতি পটু। চীনের ঐ পক্ষী পুধিয়া कुल श्८ङ उँशनेिcशंद्र दांद्रा भांश् थग्नांझेब्रा लग्न । श्रछांछ। বহুজাতীয় পক্ষীর মধ্যে সামরিক ভারুইপক্ষী, একপ্রকার ঘুঘু ও শুভ্রকষ্ঠ কাক বিখ্যাত। বহুসংখ্যক লোকের বাস ও নদী সকল সৰ্ব্বদা অগণ্য নৌকাদি দ্বারা উদ্বেলিত হওয়ায় কান্টন নগল্পের উত্তরে হাঙ্গর কুম্ভীরাদি ভীষণ জলজন্তু প্রায় নাই । গ্রীষ্মকালে বহুসংখ্যক কৃকলাস, টিকটিকি, শরট প্রভৃতি দৃষ্ট হয়। বিষাক্ত সৰ্প । অধিক নাই। একরূপ শাখমালা চিতিই তথায় সৰ্ব্বাপেক্ষা বিষাক্ত ও ভয়ঙ্কর সর্প । ইহারা ২৩ ফিট লম্বা হয় । চীনের নদী, হ্রদ ও সরোবরে অতি সুস্বাকু নানারূপ মৎস্ত পাওয়া যায়। তথাকার অতি সুন্দর স্বর্ণ ও রৌপ্যবর্ণ মৎস্ত | অতি বিথ্যাত । ইহাদের আকার সামান্ত পুটিমাছের ন্যায় । কাচের বোতলে করিয়া এই সকল মৎস্ত নানাদেশে রপ্তানী হয় । কি সমুদ্র, কি নদী, সৰ্ব্বত্রই বহুল পরিমাণে মৎস্ত ধৃত হইয়া থাকে। সার, জে এফ ডেভিস (Sir J. F. Davis ) অনুমান করেন যে, চীনের দ্যায় পৃথিবীর কোন স্থানেই জল হইতে এত অধিক থাস্থ্য সংগৃহীত হয় না। কীট পতঙ্গাদির মধ্যে পঙ্গপাল চীনের কয়েকটা জেলার বিস্তর অনিষ্ট করে । কান্টন্‌ নগরের নিকট কাকড়া-বিছ দেখিতে পাওয়া যায় । এখানকার বৃক্ষে একপ্রকার মাকড়সা বাস করে, উহার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পার্থীও জালে ধরিয়া থাইতে পারে। কান্টনের পূর্বদিকে লো-ফো-শান পৰ্ব্বতে একজাতি বৃহদাকার অতি সুন্দর প্রজাপতি বাস করে, ইহাদের বহু সংখ্যক প্রতিবৎসর পিকিনে প্রেরিত হয়। রেসমোৎপাদক । গুটীপোকা বহু প্রাচীনকাল হইতেই চীনে জন্মিতেছে । চীনের উৎকৃষ্ট রেসম নানা দেশে রপ্তানী হইয়া থাকে। আকরিক —চীনের আকরিক সম্পত্তির বিষয় অতি অল্প মাত্রই জানা যায়। পৰ্ব্বতময় প্রদেশে স্বর্ণ, রৌপ্য, লৌহ, তাম্র, পারদ, রঙ্গ, দস্তা, সীসা প্রভৃতি সকল প্রকার ধাতুই উৎপন্ন হয়। কিন্তু কৃষিকার্য্যের অদ্ভুত বিস্তৃতি জন্ত খনি সকল রীতিমত খোদিত হয় না। এখানে স্বর্ণে মুদ্র হয় না, এবং সম্রাটু ব্যতীত অতি অল্প লোকেই স্বর্ণালঙ্কার ব্যবহার করে । ব্রহ্মদেশের সীমান্তস্থিত ইউনান প্রদেশে নদী সকলে স্বর্ণরেণু পাওয়া যায়। উহাতে রেপোরও খনি আছে, এবং বিখ্যাত পি-টাং অর্থাৎ সিত তাম্র ধাতুও এই প্রদেশেই উৎপন্ন হয় । পি-টাং ধাতু প্রায় রোপের ন্যায় উজ্জ্বল। জাপান হষ্টতে সুবর্ণ-বর্ণ তাম্র আনীত হয় তাহ অতি কুমার। সাধারণ তাম্র ইউনান ও কিউ-রে প্রদেশে পাওয়া যায়। to-so इ-कूग्रां२ ज्ञानब्र निकके इब्रि९रु4 जाकब्रिक ठाम तृडे श्य । হিজুল, হরিতাল, কোৱান্ট ও সৈন্ধব লবণাদিও পাওয়া যায়। সমুত্রজলে লবণ প্রস্তুত হয়। গৃহ নিৰ্ম্মাণোপযোগী প্রস্তর ও প্লেট-প্রস্তর দেশের সর্বত্র প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায় । এখানকার মৰ্ম্মর প্রস্তর উৎকৃষ্ট নহে। তদ্ভিন্ন স্থানে স্থানে চুণী, মরকত, পাল্লা প্রভৃতি বহুমূল্য প্রস্তর ও পাওয়া ষায় । চীনের কেওলিন নামক কর্দম অতিশয় বিখ্যাত। চীনাবাসন সকল ইহাতেই প্রস্তুত হয় । চীনারা একপ্রকার খড়িমাটর সহিত কেওলিন মিশ্রিত করিয়া বাসন প্রস্তুত করে। তম্ভিয় অন্যান্য সকল প্রকার কলুসাদি নিৰ্ম্মাণোপযোগী মৃত্তিকাই চীনে প্রচুর পরিমাণে ও পাথরিয়া কয়লা চীনদেশের সর্বত্র পাওয়া যায়। চীনারা বহুপ্রাচীনকাল হইতে ইহা ব্যবহার কপ্লিয়া আসিতেছে । ইতিহাস ।—পুরাতত্ত্ববিৎ পণ্ডিতগণ অনুমান করেন চীনাগণ কাল্পীয়ন হ্রদের দক্ষিণ হইতে আগমন করিয়া চীনে বাস করে। ইহাদিগের চিত্রময় বর্ণমালার সহিত প্রাচীন মিসরের বর্ণমালার সাদৃশু দেখিয়া অনেকে অনুমান করেন ইহার মিসরীয় বংশোদ্ভূত হইবে স্বৰ্য্যদেবের যাশ্বাধিক অয়নান্ত কালীন অৰ্ঘ্যদান ও পিতৃপুরুষদিগের উদ্দেশে শ্রাদ্ধাদির বিধি আমাদিগের তুল্য। আরও ভারতবর্ষীয়দিগের ন্যায় ইহারা দশভাগে দিগ্বিভাগ ও স্বাদশভাগে রাশিচক্র বিভাগ করে । ঐ সকল সাদৃশু স্বত্বেও ইহার হিন্দু বা মিসরীর বংশোদ্ভূত নহে। চীনাদিগের বদনাবয়ব আৰ্য্যজাতি হইতে সম্পূর্ণ বিভিন্ন। ইহারা মঙ্গোলীয় শ্রেণীভুক্ত। এই জাতি কর্কট ক্রাস্তি হইতে উত্তর মহাসাগর পর্যাস্তু এসিয়ার সমস্ত ভাগে বাস করে । চীনাদিগের আদি রাজবংশের নাম ও বিবরণ প্রভৃতি আলৌকিক উপাখ্যানে পরিপূর্ণ। উহার কহে পূয়ং কু চীনরাজ্যের প্রথমাধীশ্বর ছিলেন । তৎপর সীনহোয়াং রাজ্য প্রাপ্ত হন। পূরং কু শৰে অতি প্রাচীনকাল ও সীনহোয়াং শব্দে স্বৰ্গাৰীশ্বর বুঝায় । সুতরাং ঐ সকল নাম রূপক ও প্রাচীন ইতিহাস অনিশ্চিত বলিয়া বোধ হয় । যাহা হউক চীনরাজ্য যে অতি প্রাচীন তাহার সন্দেহ নাই। সকলেই অনুমান করেন ফোহিই চীনের প্রকৃত প্রথমাধীশ্বর। ফোহি খৃষ্টের ২৯৫ বৎসর পূৰ্ব্বে রাজপদে অধিষ্ঠিত হন । তাহার জন্ম বিষয়ে এক উপাখ্যান আছে। তাহার জননী একদ। আবাস সন্নিহিত কোন হ্রদের কুলে ভ্রমণ করিতেছিলেন এমন সময়ে বালুকার উপর অপুৰ্ব্ব জ্যোতিবিশিষ্ট রামধন্থর