পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৫২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অর্ধেক অৰ্দ্ধেক লইলে ছুইটী ছায়ার পরিমাণ জানা খাইবে । উদাহরণ। ছায়ান্বয়ের অস্তুর ১৯, কর্ণদ্বয়ের অস্বয় ১৩ ; हाम्राइब्र ७ कर्मदग्न कङ ? इब्राष८ब्रञ्च श्रखब्र २०, इंशच्च वर्ग ৩৬১ ; কর্ণদ্বয়ের অস্তর ১৩, ইহার বর্গ ১৬৯ ; উভয় বর্গের বিয়োগফল ১৯২ । ৫৭৬কে ১৯২ দিয়া ভাগ দিলে ৩ হয় । এই ভাগফলকে ১ ষোগ করিলে ৪ হয় । উহার বর্গমূল ২ দ্বারা কর্ণদ্বয়ের অস্তুর ১৩কে গুণ করিলে ২৬ হয় । । ২৬এর সস্থিত ১৯ যোগ করিলে ৪৫ ও বিয়োগ করিলে ৭ হয় । ইহাদের অৰ্দ্ধেক লইলে ছায়াৰয় ও খ অঙ্গুলি হইল। " এইরূপে কণাস্তরের পরিবর্তে ছায়াস্তুর ১৯কে ২ দিয়া গুণ করিয়া গুণফলে কর্ণান্তর যোগৰিয়োগাদি করিলে বর্গদ্বয় , ও "বাহির হইবে । প্রদীপের উচ্চতা ও প্রদীপ তল হইতে শৰুতলের দূরত্ব জানা থাকিলে শঙ্কুর ছায়ার পরিমাণ বাহির করিবার উপায় । শঙ্কু ও প্রদীপতলের দূরত্বদ্বারা শঙ্কুর পরিমাণকে গুণ কর । ঐ গুণফলকে শঙ্কুমান রহিত দীপশিখার উচ্চতা দ্বারা ভাগ দিলে লন্ধ ভাগফল ছায়ার পরিমাণ হইবে । উদাহরণ। শকু হস্ত প্রদীপ ও শম্ভুতলের দূরত্ব ৩, প্রদীপুের উচ্চতা ৩২ হাত, ছায়া কত ? শঙ্কু ও প্রদীপতলের অন্তর ৩কে শঙ্কুর পরিমাণ ? দিয়া গুণ করিলে ং হয়। দীপের উচ্চতা ৩২ হইতে শঙ্কুর উচ্চতা ? বিয়োগ করিলে বিয়োগফল ৩ থাকে। কে ৩ স্বারা ভাগ করিলে ; ছায়ার পরিমাণ হইল । শঙ্কুর উচ্চতা, ছায়ার পরিমাণ ও শঙ্কু হইতে প্রদীপতলের দূরত্ব জানা থাকিলে, প্রদীপের উচ্চতা বাহির করিবার কৌশল —শন্ধু ও প্রদীপতলের অস্তুর দ্বারা শঙ্কুর পরিমাণকে গুণ কর । ঐ গুণফলকে ছায়ার পরিমাণ দ্বারা ভাগ করিয়া উচ্চার সহিত শঙ্কুর পরিমাণ যোগ করিলে দীপের উচ্চতা বাহির হইবে। উদাহরণ। . প্রদীপতল ও শঙ্কুর অস্তর ৩ হস্ত, ছায়া ১৬ অঙ্গুল, শঙ্কু ১২ অঙ্গুল, প্রদীপের উচ্চতা কত ? শঙ্কু হস্ত, অন্তর ৩ হস্ত, উভয়ের গুণফল ত্বকে ছায়া পরিমাণ ওঁ দিয়া ভাগ করিলে ? হয় । এই ভাগফলে শঙ্কুর পরিমাণ ২ যোগ করিলে , প্রদীপের উচ্চতা হইল। প্রদীপ ও শঙ্কুর দূরত্ব বাহির করিতে নিম্নলিখিত উপায় অবলম্বনীয়। শৰু পরিমাণরহিত প্রদীপের উচ্চতা-পরিমিত অঙ্কন্ধার ছায়াঙ্গুলিকে গুণ করিয়া গুণফলকে শঙ্কুর পরিমাণ দ্বারা ভাগ করিলে প্রদীপ ও শঙ্কুর অন্তর জানা যাইবে । ७नारब१भूकॉन्न छांग्र । • ‘ गैौcभांश्छु,ान्न y', *डू १, इब्रां * । यभांगैौ भएड़ गक भूब्रच ७ श्रड । ছায়া ও প্রদীপের অভয় এবং প্রদীপের উচ্চতা বাহির করিবার উপায়— झांब्रां4ज्जांभ्रंशाम्नञ्च अरुग्नरक झांब्रांचांब्रt ७° कब्रिध्न झांग्रघरब्रब्र अखग्न चांब्री खांण निरंग फूभि श्रर्थीं९ ७धनैौ° उठण इहेरङ ছায়াগ্রভাগের দূরত্ব পাওয়া যাইবে । এই ভূমিতে শঙ্কু পরিমাণ দ্বারা গুণ করিয়া ছায়াম্বারা ভাগ করিলে দীপশিখার উচ্চতা লব্ধ হইবে । উদাহরণ। ১২ অঙ্গুলি পরিমিত শঙ্কুর ছায়া ৮ অঙ্গুলি শঙ্কুকে ছায়ার দিকে পূৰ্ব্বস্থান হইতে সোজাসুজি ২ হস্ত দুরে রাখিলে ছায়া ১২ অঙ্গুলি হয় । ছায়া হইতে প্রদীপের অস্তর ও উচ্চতা বাহির কর । ছায়াগ্রভাগদ্বয়ের অন্তর ৫২ অঙ্গুলি, ছায়াদ্বয় ৮ ও ১২ অঙ্গুলি । ৫২কে প্রথম ছায়া ৮ দিয়া গুণ করিলে গুণফল ৪১৬ হয় । ইহাকে ছায়াদ্বয়ের অন্তর ৪ দিয়া ভাগ দিলে ভাগফল ১০৪ ভূমি অর্থাৎ প্রদীপতল হইতে প্রথম ছায়ার অগ্রভাগের দুরত্ব হইল। এইরূপে দ্বিতীয় ছায়াগ্রভাগের দুরত্ব ১৫৬ অঙ্গুলি । ইহাদের একটকে শঙ্কুদ্বারা গুণ করিয়া তাহার ছায়া দ্বারা ভাগ করিলেই প্রদীপের উচ্চতা ৎ হস্ত বাহির হইবে । ত্রৈরাশিকের নিয়মেও এই অঙ্ক সাধন করা যায়। প্রথম ছায় ৮ হইতে দ্বিতীয় ছায়া ১২ যত অধিক ৪, ঐ পরিমাণ ছায়াৰল্লব দ্বারা ভূমির পরিমাণ যদি ছায়াগ্রভাগদ্বয়ের অস্তরের ৫২ সমান হয়, তবে ছায়াগ্র কত হইবে । এইরূপে ছায়া ও প্রদীপতলের অন্তর নিরূপিত হইবে । ভূমিদ্বয় নিরূপিত হইলে ছায়া পরিমাণ ভুজে যদি শঙ্কু পরিমাণ কোটি হয়, তবে ভূমি-পরিমাণ ভুজে কোটি কত হইবে ? এইরূপ ত্রৈরাশিক স্বারা প্রদীপের উচ্চতা নিরূপিত হইবে। ছায়াস্থত (পুং ) ছারায়াঃ স্থৰ্য্যপত্ন্যা: স্থতঃ ৬তৎ। শনি। ছার ( ক্ষার শব্দজ ) ১ ক্ষার, ভষ্ম । ছারকচু (দেশজ ) একপ্রকার কচু। ছারকপাল ( দেশজ ) দূরদৃষ্ট, মন্দভাগ্য । ছারকপালে (দেশজ ) মন কপালযুক্ত, দুর্ভাগ্য। ছারখার, ১ ভস্মসাৎ ৷ ২ সৰ্ব্বনাশ । ৩ উচ্ছিন্ন, নই। ছারপোকা, রক্তপায়ী ক্ষুত্র কীটবিশেষ। সংস্কৃত নাম গন্ধ ২ অধম, হেয় । কীট, তল্লকীট ও Resto I (Cimex lectuarius) gfx.of+i जांउँौग्न अ८मक कैौछे भष्ट्रश *रा•भrांनिग्र ब्रख्ञांम कब्रिग्रा