পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৫৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ९१४ ] אידאליזס -ങ്ങ= श्रमिदग्न भिन्न वन ७ ईठrशब८क बनिष्णन, “cडांभद्रा कि चछ এখানে জালিয়াছ।” ইজস্থায় উত্তর করিলেন, “আমি প্রতিষ্ঠা করিতে জাসিয়াছি।” মাধব সদৰ্পে বলিল, “এ মন্দির আমার, cछांभांब्र ऐशांग्रड ¢कन अश्रूिॉग्न नाहे ।” ‘4हेक्रप्° मां५व ७ रेजश८अ cषांब्र दिदान आब्रञ्च रुहेल । ব্ৰহ্মা মধ্যস্থ হইয়া বলিলেন, “তোমাদের কাহার কি সাক্ষী জাছে ?" মাধব কছিলেন, “আমি নিজে মন্দির করিয়াছি, তাহার আবার সাক্ষী কি ?” ইন্দ্ৰদ্যুম্ন বলিলেন, “আমার সাক্ষী আছে । আমার প্রথম সাক্ষী ভূষওঁ কাক, দ্বিতীয় সাক্ষী ইঞ্জস্থ্যমসরোবরবাসী কুৰ্ম্মগণ ” ব্ৰহ্মা সাক্ষ্য গ্রহণ করিলেন, তদনুসারে কাক ও কুৰ্ম্মগণ সকলেই ইন্দ্ৰদ্যুয়ের হইয়া সাক্ষ্য দিল । ব্ৰহ্মা রাজা মাধবকে বলিলেন, “তুমি মিথ্যা বলিয়াছ, সেই জন্ত কলিযুগে তুমি লিঙ্গ হইবে, কেহই তোমার পুজা করিবে না।” ‘তারপর ব্ৰহ্মা মহাসমারোহে মন্দির প্রতিষ্ঠা করিয়া ব্ৰহ্মলোকে চলিয়া গেলেন । মন্দির প্রতিষ্ঠা হইল বটে, কিন্তু কিরূপে দারুব্রহ্ম স্থাপন করিবেন, কেবল তাছাই ভাবিতে লাগিলেন । একদিন রাত্রিকালে ভগবান স্বপ্নে দেখা দিয়া ইন্দ্রস্থ্যমকে বলিলেন, “কাল প্রাতে সাগরতীরে যাইবে, তথায় ধাকিমোহনায় দারুব্রহ্মরূপে আমার দর্শন পাইবে ।” পরদিন রাজা সসৈন্তে সাগরতীরে অসিয়া বাকিমোহনায় দারুত্ৰহ্মের দর্শন পাইলেন । ‘তখন সকলে মিলিয়৷ সেই মহাকাষ্ঠকে তীরে তুলিয়া আনিবার জন্ত অগ্রসর হইল, কিন্তু হস্তী ও মনুষ্য সকলে মিলিয়া কিছুতেই সেই কাষ্ঠখণ্ড সরাইতে পারিল না। অবস্তিপতি মহা চিত্তায় পড়িলেন । সেই দিন রাত্রিকালে আবার বিষ্ণু তাছাকে দেখা দিয়া কছিলেন, “ইস্ত্রছাম! ভক্ত ভিন্ন কেহ এই কাষ্ঠ নাড়িতে পারিবে না। সেই বস্থ শবরকে ডাকাইয়া আন। সে ও তুমি স্পর্শ করিলেই উঠিয়া আসিব ।” পরদিন প্রাতে রাজা বিদ্যাপতিকে পাঠাইয়া বসু শবরকে ডাকিয়া আনিলেন । ইঞ্জস্থায় ও শবরের স্পর্শ মাত্র দারু রথে উঠিল। মন্দিরের সন্মুখে গরুড়স্তম্ভের নিকট প্রথমে দারু স্থাপিত হইল । ‘দ্বাদশ শত স্বত্ৰধার জগন্নাথ মুৰ্ত্তি নিৰ্ম্মাণে নিযুক্ত হইল। সাতদিন পরে রাজা কিরূপ মূৰ্ত্তি হইতেছে দেখিতে আসিলেন, কিন্তু মূৰ্ত্তি হওয়া দূরে থাক, দেখিলেন—যেমন কাষ্ঠ ঠিক তেমনি আছে। সুত্রধারের বিনীতভাবে বলিল, “মহারাজ ! আমাদের দ্বারা কিছুই হইবে না, দেখুন আমাদের অস্ত্ৰ শস্ত্র ভাঙ্গিয়া গিয়াছে।” রাজা তাহাদের উপর চটিয়া বলিলেন— पनि भांशाभैौ रूणा ८मवब्रूखिं यचख मा इह, डाद इ३रण তোমাদের প্রাণদও করিব । ‘रखाथां८द्रब्र कळांग्न ब्रांयांछ समिब्रां नक८णहे हांशोकांब्र করিয়া জগন্নাথকে ডাকিতে লাগিল । দৈববাণী হইল— “रबषांज्ञ१iण ! cडांभांएमब्र ८काम छग्न माहे । श्रांभि कब ब्रांछांब्र সহিত দেখা করিয়া তোমাদের রক্ষা করিব।” ‘পরদিন স্বয়ং ভগবান (৩) বৃদ্ধস্বত্রধারের বেশে রাজদ্বারে উপস্থিত হইলেন। র্তাহার পায়ে গোদ, পিঠে কুঁজ, চক্ষে পিচুটী, এদিকে আবার কালা । দ্বারবান তাহাকে প্রাসাদে প্রবেশ করিতে দিল না । পরে তিনি রাজার আদেশে সভায় আনীত হইলেন। বৃদ্ধকে দেখিয়া সকলেই অবাক হইল। মন্ত্রী বলিলেন—ইহার মরণ নিকটবর্তী, তবু ধনলোভ ছাড়িতে পারে নাই ।” রাজা উচ্চৈঃস্বরে বলিলেন, “তোমার নাম কি ?” বৃদ্ধ হাসিয়া উত্তর করিলেন, “আমার নাম বাসুদেব মহারাণ, অামি বিশ্বকৰ্ম্মার গুরু, আমার অসাধ্য কোন কাৰ্য্যই নাই । যাহা বলিবেন, আমি তৎক্ষণাৎ তাহা করিয়া দিব ” রাজা বুড়াকে সঙ্গে করিয়া সেই মহাবৃক্ষের নিকট আনিলেন । বুড়া নখ দিয়াই সেই গাছের ছাল তুলিয়া ফেলিলেন । দেখিয়া সকলেই অবাক । তখন বুড় রাজাকে নিবেদন করিলেন, “মহারাজ ! আমি মন্দিরের ভিতর থাকিয়া প্রতিম। গড়িব । ২১ দিন দ্বার রুদ্ধ থাকিবে । এই কয়েকদিন কেহ দ্বার খুলিতে পারিবে না ।” রাজাও তাহাতে সম্মত হইলেন । বৃদ্ধ মন্দির মধ্যে প্রবেশ করিলেন । রাজা দ্বার রুদ্ধ করিয়া চলিয়া আসিলেন। গুণ্ডিচ নামে ইন্দ্রস্থ্যমের পাটরাণী ছিলেন। একদিন তিনি রাজাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “নাথ ! তুমি আমায় জগন্নাথ দেখাইবে বলিয়াছিলে ? কৈ দেখাইলে না ত ?” রাজা বলিলেন, “এক বৃদ্ধ মূৰ্ত্তি নিৰ্ম্মাণ করিতেছে । আজ ১৫ দিন হইল। আর ছয়দিন পরে দেখিতে পাইবে।” গুণ্ডিচ হাসিয়া কছিলেন, “বারশ ছুতার আসিয়া যখন কিছুই করিতে পারিল না। তখন একটা বুড়া কি করিবে ? বোধ হয়, এতদিন সে অনাহারে মরিয়া গিয়াছে।” রাণীর কথা শুনিয়া রাজারও কিছু চিত্ত হইল । তিনি মন্ত্রীকে সঙ্গে করিয়া মন্দিরে গমন করিলেন। দ্বারে কাণ পাতিয়া কোন শব্দ না পাইয়া ভাবিলেন, বুঝি বুড়া মরিয়া গিয়াছে। ‘প্রথমে মন্ত্রী দ্বার খুলিতে নিষেধ করিয়াছিলেন, কিন্তু রাজা তাহার কথা শুনিলেন না, দ্বার খুলিয়া ফেলিলেন, তখন মধ্যে দেখিলেন, সিংহাসন উপরে দারুব্রহ্ম জগন্নাথ (७) नीशाजिबःश्मप्ञ७ गिषिङ चाtश्-उणवान् एबषाद्र क्रtन चानिन्त्र। নিজমুদ্ধি প্রকাশ করেন।