পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৭৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


■蠶 जब्बारे ७फ़्री णांङ काहन जाहे, डित्रि cकाछब्रांप्जद्र, अं५ीन भङ्गैौ ७ cग्ननांপতি বলিয়াই গণ্য ছিলেন।. - लिछद्र शृङ्क इश्न ॐांशग्न नूब भग्नांश्ङ्गरफ़्द ब्रॉब्रकङ इन । মনোহরদেবের পর তৎপুত্র মাণিক্যদেব, তাহার মৃত্যু হইলে তৎপুত্র শিবদেব রায়কত পদ লাক্ত করেন । উক্ত মাণিক্যদেবের তিন পুত্র ছিল, জ্যেষ্ঠ শিবদেৰ, মধ্যম মহীদেব ও कबिरéब्र बांभ भांक्रङि८झद । - শিবদেব কোচরাজ লক্ষ্মীনারায়ণের সাহায্যাৰ্থ মোগলদিগের সহিত যুদ্ধ করিয়াছিলেন, তখন সম্রাটু জাহাঙ্গীর দিল্লীর সিংহাসনে সমাসীন। রাজা লক্ষ্মীনারায়ণ বন্দী হইয়া দিল্লীতে প্রেরিত হন এবং বাধ্য হইয়া মোগলের অধীন হইয়া পড়েন । কিন্তু বৈকুণ্ঠপুরাধিপ শিবদেব মোগলের অধীনতা স্বীকার করেন নাই। তাছার মৃত্যু হইলে তৎপুত্র রত্বদেবের রায়কত হইবার কথা । কিন্তু মহীদেব ভ্রাতুপুত্রকে বিনাশ করিয়া রাজ্য অধিকার করেন । ১৬২১ খৃষ্টাব্দে বীরনারায়ণের রাজ্যাভিষেক সময়ে কুলপ্রথা মত মহাদেব কোচ-রাজসভায় আগমন করেন । মহীদেবের পূর্ববৰ্ত্তী সকল রায়কতই কোচরাজের অভিষেককালে রাজচ্ছত্র ধারণ করিয়াছিলেন, কিন্তু মহীদেব কোচরাজকে যথেষ্ট সন্মান দেখাইয়া ছত্ৰধারণে অনিচ্ছ প্রকাশ করেন । এই সময় হইতেই রায়কত কর্তৃক ছত্রধারণ প্রথা রহিত হয় । মোদনারায়ণের রাজত্বকালে কোচবিহার রাজ্যে অনেক বিশৃঙ্খল,ঘটিয়াছিল, মহীদেব তন্নিবারণেও অনেক চেষ্টা করিয়াছেন । মহাদেব ১৬৬৭ খৃষ্টাবো ৪৬ বর্ষ রাজত্ব করিয়া ইহলোক পরিত্যাগ করেন। তাছার দুই পুত্র জ্যেষ্ঠ ভূজদেব ও কনিষ্ঠ যজ্ঞদেব । পিতার মৃত্যুর পর ভূজদেব রায়কত হইলেন। তিনি কনিষ্ঠকে অতিশয় ভালবাসিতেন, অতি সামান্ত কাৰ্য্যও কনিষ্ঠের পরামর্শ না লইয়া করিতেন না। র্তাহার সময়ে ভূটানের দেবরাজু-কোচবেহার আক্রমণ করিয়াছিলেন । क्खि छूछदनद . ভূটান সৈন্ত পরাস্ত এবং বসুদেবনারায়ণকে কোচবিহারের সিংহাসনে অভিষিক্ত করেন। फूलय्क्य मिज ब्रांप्छाद्ध फेब्रङिकटघ्न७ दिाभय यङ्ग गहेब्र ছিলেন। পুর্কে তাহার পিতৃরাজ্যে কোন নির্দিষ্ট সৈন্তদল ছিল না, কেবল রাজবাটার রক্ষণাবেক্ষণের জন্ত অতি অর cनाक मिशूक थाकिऊ। भूककरण भूगणगान ७ °ाक्जैग्र জলভ্য জাতিদিগকে সংগ্রহ করা হইত। কিন্তু ভুলদেব এক দল বেতনভোগী সৈন্ত নিযুক্ত করিলেন ও তাহাদের রীতি j לסר, ] जब्रादैछड़ी মত যুদ্ধশিক্ষণ দিতে লাগিলেন। কোচরাজ বসুদেবনারায়ণ ভূটানীদের ভরে রাজ্য ছাড়িয়া পলায়ন করিলে ভুজদেব ভ্রাতার সহিত জাসিয়া ভূটানীদিগকে পরাস্ত ও মহেশ্রনাররণকে কোচ-সিংহাসনে অভিষিক্ত করেন । কোচবিহার হইতে ফিরিয়া আলিবার অল্প দিন পরেই बखानप्वब्र शृङ्गा श्ब्र । थिब्रङम गरशमन्त्रत्न श्रृङ्गाप्ड फूलप्नव জতিশয় ব্যথিত হইয়াছিলেন । কিছুদিন পীড়িত থাকিয়া ১৬৮৭ খৃষ্টাবো ইহলোক পরিত্যাগ করেন। র্তাহার সময়ই ब्रांग्रकऊ द१८षंद्र छद्रभ डेब्रङि झहेग्नांश्लि । किरू ॐांझांद्र মৃত্যুর পরই মোগলদিগের অত্যাচারে বৈকুণ্ঠপুর রাজ্য করদ হইয় পড়িল । ভূজদেবের পুত্রসন্তান ছিল না। তাহার পর যজ্ঞদেবের দুই । পুত্র বিগুদেব ও ধৰ্ম্মদেব যথাক্রমে রায়কতপদ লাভ করেন । । ১৬৮৭ খৃষ্টাবো বিগুদেব রায়কত হন । ইহারই অল্প দিন পরে ঢাকার সুবাদার ইব্রাহিম খার পুত্র জবরদস্ত খা বৈকুণ্ঠপুরের দক্ষিণাংশ আক্রমণ করেন । বিগুদেব বিলাসী ও ভীরু ছিলেন, তিনি যুদ্ধ না করিয়াই কর দিতে সন্মত হইলেন । অল্প দিন পরেই ভুটানরাজও মোগলের আক্রমণে ভীত হইয়া বৈকুণ্ঠপুর ও কোচবিহাররাজের সহিত পূৰ্ব্বশক্রতা ভুলিয়া যোগদান করেন । এই তিন জনে মিলিত হইয়া মোগলের সহিত ভীষণ যুদ্ধ করিয়াছিলেন । মোগলের বিপক্ষ সৈন্ত বিনাশ করিয়া একস্থানে তাহদের ছিয়শির বঁাশে ঝুলাইয়। রাখে, এখন সেই স্থান “মুণ্ডমালা” নামে খ্যাত। যেখানে বিস্তর মোগলসৈন্ত নিহত হয়, সেই সেই স্থান এখন “তুর্ককাটা” ও “মোগলকাটা” নামে খ্যাত। কিন্তু সেই যুদ্ধে · রায়কতের বহুসৈন্ত ক্ষয় হওয়ায় তিনি দুৰ্ব্বল হইয়া পড়িলেন। সেই সময়ে মোগলের বোদা, পাটগ্রাম ও পূৰ্ব্বভাগ দখল করে। ১৭০৯ খৃষ্টাব্দে শিশুদেবের মৃত্যু হয় । তাছার পরে র্তাহার জ্যেষ্ঠপুত্র বালক মুকুন্দদেব রাজ্যাভিষিক্ত হন, কিন্তু, ধৰ্ম্মদেব চক্রাস্ত করিয়া ভ্রাতু-পুত্রের প্রাণনাশপূৰ্ব্বক রাজ্য অধিকার করিলেন এবং রায়কত হইলেন । - ধৰ্ম্মদেবের রাজত্বকালে মুসলমানেরা আরও অত্যাচার আরম্ভ করিল। বৈকুণ্ঠপুরের দক্ষিণাংশ ঐ সময়ে সম্পূর্ণরূপে भूनणभांन अधिकांब्रड्रङ इछ । थईटमव २१०२ ईडेरिका জবরদস্ত খার সহিত এক সন্ধি করিলেন এবং মোগলাধিকৃত সমুদয় ভূভাগের জম্ভ কর দিতে সম্মত হইলেন। ১৭২৪ খৃঃ জৰো ধৰ্ম্মদেবের মৃত্যু হইলে তাহার জ্যেষ্ঠপুত্র ভূপদেব রায়কত হইলেন। তাহার সহিত অল্প দিন পরেই ভূটানের দেবরাজে বিবাদ বাধিল । -