পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৭৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জন্নাইগুড়ী . . [ १७३ ]

:ממצ

১৭৩৬ খৃষ্টাৰে ভূপদেৰ মানৰলীলা সম্বরণ করেন। তঁহার পুত্রেরই স্নায়কত হইবার কথা, কিন্তু পিতার মৃত্যুর অব্যবহিত পরে তাহার জন্ম হইয়াছিল বলির রাজপরিবারগণ ভূপদেবের মধ্যম সহোদর বিক্রমদেবকে রায়কত করিলেন । ইহার সময়েও ভূটিয়ার অনেক স্থান অধিকার করে ও অত্যাচার করিতে থাকে। ১৭৫৮ খৃষ্টাব্দে এক পুত্র রাখিয়া বিক্রমদেব প্রাণত্যাগ করেন । ইহার সহিত রায়কতগণের স্বাধীনত। লোপ হয়। পূৰ্ব্বৰক্তী রায়কতগণ নামে মাত্র মুসলমানদিগের অধীনতা স্বীকার করিয়াছিলেন, রাজ্যসংক্রান্ত সকল বিধয়েই তাহাদের সম্পূর্ণ স্বাধীনতা ছিল, কিন্তু ইষ্টইণ্ডিয়া কোম্পানী দিল্লীশ্বরের নিকট বাঙ্গালার দেওয়ানী পাইবার পর বৈকুণ্ঠপুরের রাজগণও বৃটিশ গবর্মেন্টের প্রকৃত অধীন হইলেন । বিক্রমদেবের পর তাহার কনিষ্ঠ দর্পদেব রায়কত হইলেন । র্তাহার সময়ে রাজ্যের উত্তরাংশে দেবরাজ ও দক্ষিণাংশে মহম্মদ আলী আক্রমণ করেন । রাজ্যরক্ষার জন্তু দর্পদেব অনেক যুদ্ধ করিয়াছিলেন, শেষে মুসলমান হন্তে পরাজিত ও বন্দী হন । শেষে অধিক করদানে স্বীকৃত হইয়া মুক্তি লাভ করেন । ইহার পরই তিনি সৈন্তসংস্কারে প্রবৃত্ত হন, দেবরাজও তাহার সহিত সন্ধি করিয়া পূৰ্ব্বাধিকৃত কএকটা স্থান ছাড়িয়া দেন । প্রবাদ এইরূপ, দেবরাজ এই দর্পদেবের সাহায্য পাইয়। কোচবিহার আক্রমণ করিয়াছিলেন । ১৭৭৩ খৃষ্টাব্দে কোচবিহারের মাজিরদেব, দেবরাজ ও ইষ্টইণ্ডিয়া কোম্পানীর মধ্যে পরস্পর সন্ধিস্বত্রে আবদ্ধ হন, তদনুসারে দেবরাজ কোচবিহার ছাড়িয়া দেন, কিন্তু দর্পদেব রায়কত সেই সমস্ত গোলযোগের মূল কারণ বলিয়া এখন হইতে তিনি কেবল জমিদায় বলিয়া গণ্য হইলেন। কোচবিহারের রাজকাৰ্য্যে তাহার হস্তক্ষেপ করিবার আর কোন ক্ষমতা রছিল না। সন্ধির পরই দেবরাজের সহিত দর্পদেবের বিবাদ বঁধে, দেবরাজকে সন্তুষ্ট করিবার জন্য ইষ্টইণ্ডিয়া কোম্পানী বৈকুণ্ঠপুরের অনেক স্থান র্তাহাকে ছাড়িয়া দিলেন । বিরক্ত হইয়া অল্প দিন পরেই যুদ্ধ করিয়া কুটিয়াদের হস্ত হইতে অনেক স্থান অধিকার করিয়া লইলেন ।” দেবরাজ বড় লাটকে সেই সকল কথা জানাইলেন । দেবরাজকে সস্তুষ্ট রাখিবার জন্ত দেবরাজ যে যে স্থান দাবী করিলেন, ইংরাজ-অধ্যক্ষ সেই সকল স্থান তাহাকে প্রদান করিলেন। অনেক অভিযোগের পর ১৭৮৪ খৃষ্টাঙ্গে দেবরাজ তারার আইনকাল কাটা ও জল্লেশ অধিকার পাইলেন । এইরূপে বিস্তৃত বৈকুণ্ঠপুর রাজ্য ক্রমে ক্রমে ক্ষুদ্রায়তন হইয়া পড়িল। এই সময় রায়কতের দেয় ২৮৩৩৪৷• টাকা রাজস্ব তাহাতে দর্পদেব অত্যন্ত | }.

  • ভোগলিপ্তা তাহার হৃদয় অধিকার করিল।

शार्थी इग्न, किरू नदब्रांछएक कछक ऋनि दबान कब्रांद्र °ग्रयरर्ष রাজস্ব কমিয় ১৮৮৮•ws অান নির্ধারিত হয়। পরে ১৭৮৩ খৃষ্টাব্দে ১৮• •১ স্থির হয়, কিন্তু পরবর্ষে তাছা হইতেও ৩২৩৯২ টাকা কমাইয় দেওয়া হইল। পরে গবর্মেন্ট আৰায় ৬২৩৮২ টাকা বুদ্ধি করেন, কিন্তু এই রাজস্ব কেন বৃদ্ধি হইল, তাছার এ পর্য্যন্ত কোন মীমাংস হয় নাই । দর্পদের যে যুদ্ধবিগ্রহ ও রাজনৈতিক গোলযোগে ব্যস্ত ছিলেন, কেবল তাহাই নহে। তৎপূর্বে এখানে কামরূপী ব্রাহ্মণ ব্যতীত আর কোন ব্রাহ্মণের বাস ছিল না । দর্পদেব শ্ৰীক্ষেত্র হইতে কএকজন পাও ব্রাহ্মণ আনাইয়। নিজ রাজ্যে ভূমিদান করিয়া বাস করাইয়াছিলেন, যে গ্রামে তাহার। বাস করেন, এখন সেইস্থান “পাওাপাড়া” নামে খ্যাত । উক্ত পাওীদের বংশধরগণ আজিও এখানে বাস করিতেছেন । ১৭৯৩ খৃষ্টাব্দে দর্পদেবের মৃত্যু হয় । তাহার পর তাহার জ্যেষ্ঠপুত্র জয়ন্তদেব রায়কত হইলেন। জয়ন্ত বড়ই নিষ্ঠাবান ধাৰ্ম্মিক ছিলেন, অধিকাংশ সময় দেৰপূজায় অতিবাহিত করিতেন । এই সময় দেবরাজ অল্পায়াসে পাঠাকাঠা প্রভৃতি কতকগুলি স্থান অধিকার করেন। জয়ন্তদেব তাহার উদ্ধারের কোন চেষ্টা করেন নাই। পূৰ্ব্বে বৈকুণ্ঠপুর নামক স্থানেই রাজধানী ছিল, জয়স্তদেব ঐ স্থান পরিত্যাগ করিয়া বৰ্ত্তমান জল্পাইগুড়ী নগরে রাজধানী নিৰ্ম্মাণ করিলেন । এই রাজবাটীর পশ্চিম দিকে করলা নদী, পুৰ্ব্ব, দক্ষিণ ও উত্তরদিক পরিখাবেষ্টিত, পরিখার উত্তর ও দক্ষিণ বাহুদ্বয় করল নদীর সহিত মিলিত হইয়াছে, রাজধানী দেখিলেই বেশ সুরক্ষিত বলিয়। বোধ হয় । ১৮৯৮ খৃষ্টাব্দে জয়স্তদেবের মৃত্যু হয়, তখন তাহার পুত্র সৰ্ব্বদেবের বয়স পাঁচ বৎসর মাত্র। ..... সুতরাং জয়ন্তের ভ্রাতা প্রতাপদেবই রাজকাৰ্য্য চালাইতে লাগিলেন তাহার শাসনগুণে ইংরাজরাজও সন্তুষ্ট হইয়া ছিলেন । কিন্তু ভ্রাতু-পুত্রকে বিনাশ করিয়া নিরাপদে রাজ্যनिछ अर्जुौठे সিদ্ধি মানসে এক চণ্ডীপূজা আরম্ভ করেন। ইচ্ছা ছিল, “সেই দেবীর সম্মুখে ভ্রাতু-পুত্রকে বলি দিবেন, কিন্তু তাহার ছুরভিসন্ধি প্রকাশ হইয়া পড়িল । ধাত্রী কুমার সর্বদেবকে গুপ্তভাবে রঙ্গপুরে অনিয়া কালেক্টায় সাহেবের নিকট সকল কথা জানাইল। কালেষ্টার সাহেব অবিলম্বে প্রতাপদেষকে হাজির হইতে আদেশ দিলেন । ধূর্ত প্রতাপ কালেক্টার সাছে বের নিকট মাসিয়া সকল দোষ তাহার দেওয়ান রামমেন্দ শপার স্বন্ধে চাপাইলেন। রামানঙ্গ ৰঙ্গী হইলেন।