পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/৪১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বঙ্গদেশ (পালবংশ ) هيبوبروهم بما নিয়ে পালরাজগণের রাজাকালনির্দেশের তালিকা উদ্ভূত झईश রাজার নাম রাজ্যকাল ১ । গোপাল ( মগধে ) ৭৭৫-৭৮৫ খৃঃ অঃ । ২ । ধৰ্ম্মপাল ( মগধ ও গৌড়ে ) ৭৮৫—৮৩• • ৩ । দেবপাল o و باب- هر را " ৪ । পূরপাল ১ম 》 ۹ احتم- هواd * ৫ । বিগ্রহপাল ১ম ” و ه جسد ٩6 برا " ৬ । নারায়ণপাল pg ج جج حصاد ه هاج " ৭ । রাজ্যপাল 阙 సెశి - సిde ” ৮ । গোপাল ২য় 罗 సెt -సిగి 6 * ৯ । বিগ্রহপাল ২য় 繆 ఫిe - సెyp * ১০ । মহীপাল ১ম 罗 సెtya - 9 రిట * ১১ । নয়পাল 原 ett- a tళి ” ১২ । বিগ্রহপল ৩য় ” ১৩। মহীপাল ২য় 蠍 ১৪। পূরপাল ২য় 筋 ১৫ । রামপাল (মগধ ও উত্তর গৌড়ে) ১৭৯১—১১০৩ ”

  • بیاوه • و سسسه عt) • لا

پ۹b م د ---- سونیا oہ" نج ه الإسم سديا و لا ১৬। কুমারপাল 罗 ه لا لا نسك ه لا لا " ১৭ । গোপাল ৩য় 助》 لا لا لاسس ه لا لا لا a " ১৮ । মদনপ’ল 夏》 $') > -ృచి " ১৯। মহেন্দ্রপাল 斑 '8 < دــہ (ٹا د'ہ o ’’ ২• । গোবিন্দপীল x3 8 అ - ) శీఱి " পূৰ্ব্বে লিথিয়ছি, খৃষ্টীয় ৭ম শতাৰে পূৰ্ব্ববঙ্গে খঙ্গবংশের অভু্যদয় হইয়াছিল, আদিশূরের অভু্যদয়ে এই খঙ্গবংশের শাসন বিলুপ্ত হয়। আদিশূরের পরলোক এবং শূরবংশের প্রভাবফ্রাসের সহিত এখানে পুনরায় ৰৌদ্ধগণ প্রবল হইয়া উঠে। তাহাদের আমুকূল্যে বৌদ্ধ পালরাজগণ অল্পায়াসে সমতট বা পূর্ববঙ্গ অধিকার করিতে সমর্থ হইয়াছিলেন। পালবংশীয় কোন কোন রাজা এই প্রদেশ শাসন করেন, তাহাদের ধারাবাহিক নাম পাওয়া যায় না। গৌড়ের মূল পালবংশীয় রাজাদিগেরই কোন শাখা পুৰ্ব্ববঙ্গে স্থানে স্থানে শাসনকর্তৃত্ব লাভ করিয়াছিলেন। এখানকার প্রবাদ অনুসারে তালিপাবাদ পরগণার মাধবপুরে যশপাল, তাওয়ালের অন্তর্গত কাপাসিয়ায় শিশুপাল এবং সাভারের নিকটবর্তী কাটবাড়ীতে হরিশ্চন্দ্র রাজত্ব করিতেন। হরিশ্চন্দ্রের প্রভাৰ উত্তরে রঙ্গপুর পর্য্যন্ত বিস্তৃত হইয়াছিল। প্রবাদ অনুসারে এই হরিশ্চজের বংশেই বিষয়ৰিরাগী বৌদ্ধ নৃপতি মাণিকচন্দ্র ও গোবিন্দচন্দ্র জন্ম গ্রহণ করেন। মাণিকচাদ ও গোপীচাদের অপুৰ্ব্বস্বাৰ্থত্যাগ ও সন্ন্যাসের [ ৪১৯ ] বদশে (বংশ) । গাথা আজিও রঙ্গপুর ও পূৰ্ব্ববঙ্গে যোগী জাতির মধ্যে গীত হইয়া থাকে । বিষয়বিরক্ত এই সকল বৌদ্ধ নৃপতি সম্ভবতঃ পালবংশীয় ছিলেন, এই কারণেই ৰোধ হয় গেৰিহ্মচঞ্জ বা গোপীচত্র প্রাচীন বঙ্গসাহিত্যে "গোপীপাল” নামেও প্রখ্যাত হইয়াছেন ॥৪ এই গোবিন্দচত্রের সময়ে বিক্রমপুরে ৰৌদ্ধ মহা-তান্ত্রিক ও পরম জ্ঞানী দ্বীপঙ্কর প্রজ্ঞানের জন্ম হয়। ১•১১ ৰুি ১•১২ খৃষ্টাঙ্গে দিগ্বিজয়ী দাক্ষিণাত্য-পতি রাজেঞ্জ চোল গোবিন্দচজকে পরাজয় করেন । भूषिtण ष*चि । জৈনপতি রাজেন্দ্র চোলের আক্রমণে পূৰ্ব্বৰঙ্গ হীনবল হইয়া পড়ে। এই সময়ে বিক্রমপুরে ধৰ্ম্মবংশের অস্থায় । বৰ্ম্মৰংশীয় কোন ভূপতি সৰ্ব্ব প্রথম পূৰ্ব্ববঙ্গ অধিকার করেন, তাহ এখনও জানা যায় নাই। এই বংশে হল্পিকৰ্ম্মদেৰ মামে এক প্রবল পরাক্রান্ত বৈষ্ণৰ নৃপত্তির ইতিহাস পাওয়া গিয়াছে। শিলালিপি, তামশাসন ও বৈদিক কুলগ্রন্থে এই নয়পালের কীৰ্ত্তি ও পরিচয় বিবৃত রহিয়াছে। পাশ্চাত্য বৈদিক কুলসস্থত রাধবেন্ত্র কবিশেখর হরিবর্মদেবের এইরূপ পরিচয় দিয়াছেন “যাহার প্রচগু ভূজদগুীলঙ্কত কয়াল করবালতয়ে দক্ষিণাপথ হইতে সমাগত বহুসংখ্যক শক্রয়াজগণ প্রকম্পিত হইত, জৈম ও বৌদ্ধ প্রভৃতি বিধর্মিগণের যিনি শান্তিমুখ বিদূরিত করিয়াছিলেন, যাহার প্রভাবে সমস্ত রাজস্তবর্গের গৰ্ব্ব ও গৌরব থৰ্ব্ব হইয়াছিল, যিনি নাগেন্দ্রপত্তন প্রভৃতি নানাদেশ জয় করিয়া অত্যস্ত যশস্বী হইয়াছিলেন, যিনি একান্ত্রকাননে হরিহর ব্ৰহ্মা সীতা রাম লক্ষণ হনুমান প্রভৃতি অষ্টোত্তর শত দেববিগ্রহ এবং চারিদিকে অপুৰ্ব্ব পতাকা পরিশোভিত, মুরভিকুসুমসমূহাদির সৌন্দর্ঘ্যে নন্দনকানন অপেক্ষ মনোহর মতুত্তম আমোদময় উষ্ঠানসমূহে পরিবেষ্টিত অত্যুচ্চ সুন্দর মন্দির সকল এবং মন্দাকিনীর স্তায় স্বচ্ছতোয় কমলকহলার শোভিত বিস্তৃত সরোবর সকল প্রতিষ্ঠিত করিয়াছিলেন, যিনি নানাশাস্ত্র ও আত্মবিস্তায় বিলক্ষণ সুদক্ষ, অসাধারণ বালভট্ট, গর্গ, ভট্টাচাৰ্য্যও বাচস্পতিপ্রমুখ বিশ্ববিখ্যাত সাত জন সচিবেয় সাহায্যে স্বীয় এবং পরকীয় রাষ্ট্রের সৰ্ব্ব কাৰ্য্য সুসম্পন্ন করিতেন, যিনি নিজ জননীর কাশীশ্বর বিশ্বেশ্বরের পদারবিন্দ দর্শনে যাইবার অভিপ্রায় অবগত হইয়া, তাহার স্বচ্ছন্দ গমনের জন্ত একট প্রশস্ত পথ প্রস্তুত করাইয়া দিয়াছিলেন ; অঙ্গ, বঙ্গ, কলিঙ্গ প্রভৃতি নানাদেশে যাহার অদ্ভুত কৰ্শ্বকাহিনী বিবােধিত হইয়াছিল, নি ত্ৰাদিগকে সম্পত্তি ৮ “যোগীপাল গোপীপাল মহীপাল গীত । ইহা গুনিতে যে লোক জানদিন্ত ॥" (চৈক্ষপ্তভাগবত অভ্যখণ্ড }