পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/৬৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


يتيم বসন্ত 1 بتاجون ] বসন্ত প্ৰকুপিত হইয়া উঠে। একালে বায়ু একরূপ প্রশমিত #हेब्राहे शूद्र । “হেমন্তে চীয়তে শ্লেষ্মা বৰ্ষন্তে চ প্রকুপাতি । প্রায়েণ প্রশ্বমং বাতি স্বয়মেৰ সমীরণঃ ॥ শরৎকালে বসন্তে চ পিত্তং প্রাকৃত্যুতে কক্ষঃ”। ( শাঙ্গধর ) ছাত্রীতসংহিতায় বসন্তোপচারে লিখিত আছে,—এই বসন্তকালে প্রমুদিত কোকিলকুলের কলকুজনে কানন মুখরিত চইয়া উঠে, কিংশুক কুস্থমগুলি মদনাগমের স্বচকরূপে শোভা পায়, ভূধরনিকর কুসুমলোঁরতে রঞ্জিত হইয় উঠে, মত্ত মধুকরের মধুলোতে দুটাছুটি করে, পশু পক্ষী মানৰ সকল জীবই মদনৰাণের বিষয়ীভূত হইয় পড়ে, গুণযুত মলয় মারুত বহিতে থাকে, ফলে এই সমস্ত জগৎটাই কেমন যেন এক প্রমোদে পুর্ণ হইয়া উঠে। কিন্তু এই বসন্ত ঋতু কফবৰ্দ্ধক, সুতরাং এই কালে কফপ্রকোপ উপশমের জন্ত বমনাদি ও রুক্ষসেবন একাত্ত প্রয়োজনীয়। এতদ্ভিন্ন আনন্দবহুল বিবিধ সুরতক্রীড়াজনিত পরিশ্রমও কফবারণের প্রধান উপায় । কফের উপচয়ে কটু, ক্ষার ও অন্ন দ্রব্য সেবা করা উচিত । এ কালের অার এক স্বাস্থ্যকর জিনিস—ব্যায়ামাদি নানারূপ শারীরিক পরিশ্রম ॥৬ চরকের স্বত্রস্থানে লিখিত আছে, হেমন্তকালে শ্লেষ্মা সঞ্চিত হয়, বসন্তে উহা দিনকর-করস্পর্শে কুপিত হইয়া পাচকাগ্নিকে দুষিত করিয়া দেয়। এই জন্ত বসন্তে শ্লেষ্মজন্য বিবিধ ব্যাধি জন্মিবার সম্ভাবনা । সুতরাং এই সময় বমনাদি দ্বারা শ্লেষ্মনাশ করা উচিত। এই কালে লঘুপাক, রুক্ষীৰ্য্য, কটু-তিক্তকষায় লবণ রসযুত অন্নাদি , হরিণ, শশ, নাব ও চটক প্রভৃতি গধূমাংস ও ঘৰ গোধূম এবং অভ্যস্ত হইলে দ্রাক্ষাজাত পুরাতন ম্যাদি পান এবং স্নানপান, আচমন ও শৌচাদি কার্য্যে sখলেন ঈষদুষ্ণ জল ব্যবহার করা কর্তব্য । অগুরু-চন্দনাদি অনুলেপন এবং পরিচ্ছদ ও শয্যাদি হেমন্তকালের স্থায় ব্যবহার্য্য । যুবতী স্ত্রীসম্ভোগ ও কাননের রমণীরতা উপভোগ এই কালে একান্ত প্রশস্ত। গুরুপাক, স্নিগ্ধ এবং অন্ন ও মধুর রসযুত দ্রব্য ভোজন ও দিবানিদ্রা প্রভৃতি বসন্তকালে অনিষ্টজনক । • মুতিৰোলিকূজিতক্ষাদনং মনস্বচক্ষৰুিংগুৰুশোভিতৰ। कुश्मनोब्रडब्रबिछडूषब्रः कनिष्ठमखमभूजउजाणनम् ॥ बकब्रtकठनषोपनबाकूनर भूमि७एयष नमराबिक्र जग९ ।। মলয়মাতঙ্কগুগুণাৰিত কক্ষৰূরে ছি বসন্ত ঋতুর্ভবেৎ ॥ श्शश्t•बिमाश्रमाणम६ षषनषीषमङ्गचर्ममष्षषभम् ॥ शिaि५: डिॉमब्षः गश्बषः कश्चािवि”ः । কচুজান্নায়ক্ষা সেৰা শোধনং কঙ্কসঙ্কৰে । वtप्रांधअमनशtब्रांषथिtब्र। क्ञिाडयामनः । ५६५forātणक्षीष्व। गङ्गः *शं शंौ जपषs भ” ( शब्रिख्नर २ हान ● च: ) “হেমন্তে নিচিতঃ শ্লেষ্মা দিনকৃঙ্কাভিরীরিতঃ । কারামিং বাধতে রোগাংস্ততঃ প্রকুরুতে বহূন ॥ তস্মাম্বলন্তে কৰ্ম্মাণি বমনাদীনি কারয়েৎ । গুৰ্ব্বক্সস্নিগ্ধমধুরং দিবাস্বপ্নক বর্জয়েৎ ॥ ব্যায়ামোন্ধৰ্ত্তনং ধূমং কবড়গ্রহমজনম্। স্বথামুন শোঁচবিধিং শীলয়েৎ কুকুমাগমে । চন্দনাগুরুদিগ্ধাঙ্গে যবগাধূমভোজনঃ ॥ শারভং শশমৈশেয়ং মাংসং লাবকপিঙ্গলম্। তক্ষয়েদিগদং সীধুং পিবোধীকমেৰ বা। বসন্তেহমুভবেৎ স্ত্রীণাং কামীনানাঞ্চ যৌবনম্।” ( চরকস্বত্র ৬ অঃ ) এতদ্ভিন্ন সুশ্ৰুত ষষ্ঠ অধ্যায় এবং বাগভট স্বত্রস্থান তৃতীয় অধ্যায়েও বসন্তচৰ্য্যার বিষয় উল্লিখিত আছে। বাহুল্যভয়ে সে সকল এখানে উদ্ধত হইল না । বসন্ত (পুং ) ১ অতিসার । ( শঙ্করত্না0:) ২ ছয় রাগের অন্তর্গত .দ্বিতীয় রাগ। সঙ্গীতদামোদরে লিখিত আছে, রাগ ছয়ট এবং রাগিণী ত্রিশট। পূৰ্ব্বোক্ত ছয় রাগের মধ্যে বসন্ত একটা । যথা—“রাগাঃ বড়েব তু প্রোক্তা রাগিণ্যন্ত্রিংশদেব তু। ভৈরবোহথ বসন্তশ্চ নটনারায়ণস্তথা ॥” (সঙ্গীতদামোদর ) সঙ্গীতদর্পণের মতে পঞ্চবক্ত, শিবের বামদেব নামক দ্বিতীয় বক্ত হইতে এই রাগের উৎপত্তি হইয়াছিল। “সম্ভোবক্তাত্ত, এঁরাগে বামদেবাসস্তকঃ ” (সঙ্গীতদ০ রাগাধ্যায় ১• ) ঐরাগ, বসন্ত, ভৈরব, পঞ্চম, মেঘরাগ ও বৃহন্নাট এই ছয়ট রাগ পুরুষপদ-বাচ্য। এই ছয় রাগের মধ্যে এক একটা রাগের অনুগামিনী ছয় ছয়ট রাগিণী আছে। বসন্ত রাগের অমুগামিনী ছয়ট রাগিণী যথা,—দেশী দেবগিরী, [ দেবকিরী ] বৈরাটী,তোড়িকা, ললিতা ও হিন্দোলা । এইরূপ অদ্যান্ত রাগেরও রাগিণী আছে। কল্লিনাথ মতে বসন্তরাগের অমুগামিনী ছয় রাগিণীর নাম স্বতন্ত্র। যথা,-আন্ধুলী, গমকী, পঠমঞ্জরী, গৌড়করী, ধামকলী ও দেবশাখা । সঙ্গীতদামোদরে বসন্তরাগের জয়গামিনী মাত্র পাঁচটা রাগিণীর উল্লেখ দেখা যায়। যথা—

  • *ঞ্জয়াগোইখ খসভশষ্ট ভৈয়াৰঃ পঞ্চমস্তৰ । মেৰয়াগে৷ বৃহন্নাটঃ বড়েতে পুরুষাঙ্কয়াঃ । cसिक्कै cववभिन्नैौ ४झम ४वम्रोप्ने cडक्लिक छष । जोजिएक छtथ हिरव्थ जी वनस्डनj वज्ञानवां* **

( »د-ه د ashsw.fa arttota)