পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/১৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


६छम হেমরাজ এই পুস্তকের একখানি হিন্দী টীকা প্রণয়ন করেন। সটীক প্রধচনসার, সকল কীৰ্ত্তি-রচিত প্রশ্নোত্তরোপাসকাচার, তৰাৰ্থসার, উমাশ্বামি-রচিত তৰাৰ্থধিগম বা জৈনসূত্র দিগম্বর দিগের মত-প্রতিপাদ্য প্রধান গ্রন্থ । দিগম্বরদিগের মতে তীর্থঙ্কর, সিদ্ধ ও শ্রমণদিগকে অতিশল্প মাস্ত করা কর্তব্য । পরমেষ্টিদিগকে অর্চনা করিয়া সাম্যাবস্থা প্রাপ্ত হওয়াও প্রার্থনীয় । যাহারা সম্যগৃদর্শন ও বিশুদ্ধ জ্ঞান লাভ করিতে ইচ্ছুক, তাহারাই এই অবস্থা প্রাপ্ত হইতে পারেন। জীব আত্মচারিত্র দ্বারা দেব, অসুর ও মানবদিগের উপর প্রভুত্ব ও নিৰ্ব্বাণ লাভ করিতে পারে (১) । এই চারিত্র সাম্যদর্শন এবং জ্ঞানের প্রকৃত তত্বের বিশ্বাসের সহিত সংশ্লিষ্ট । হেমাচাৰ্য্য প্রবচন-টীকায় লিখিয়াছেন চারিত্র ধিবিধ-বীতরাগ অর্থাৎ কামনাশূন্য এবং সরাগ অর্থাৎ সকাম। প্রথম প্রকার চরিত্রে মোক্ষ এবং দ্বিতীয় প্রকারে প্রভূত্ব লাভ হয় । চারিত্র এবং ধৰ্ম্ম এক পদার্থ। ধৰ্ম্ম বলিতে সাম্য বুঝায়। মনুষ যখন মোহ ও ক্ষোভাধিকারের অনেক উদ্ধে অবস্থিতি করেন, তখন আত্মা কিম্বা আত্মার পরিণাম সাম্যাবস্থ। প্রাপ্ত | হয় (২) । দিগম্বরদের মতে আত্মা তিন প্রকার-বহিরায়ু, অন্তরাষ্ম ও পরমাত্মা। মুখ, অবিশ্বাসী, ধ্যানহীন, পাপী, ও সংসারাক্ত ব্যক্তির আত্মাই বহিরাত্মা । বিশ্বাসী, চিন্তাশীল ও ধাৰ্ম্মিকগণের আত্মাই অন্তরাত্মা এবং মুক্ত সাধুগণের | আত্মাই পরমাত্মা । কোন বস্তুর পরিণত অবস্থা সেই বস্তুর ধ্বংস পৰ্য্যন্ত বিস্তু: | মান থাকে, অতএব আত্মায় ধৰ্ম্ম অবস্থা পরিণত হইলে আত্মা ও ধৰ্ম্মে কোন প্রভেদ থাকে না, সংক্ষেপে ধৰ্ম্মই আত্মার উন্নত বা পরিণত অবস্থা (৩) । আস্থার তিন প্রকার উন্নতি বাপরিণতি। দীৰ উন্নতিশীল ও ও পরিবর্ধনশীল। দান, অৰ্চনা ও উপবাসাদি আচরণ দ্বারা ক্রমে গুভ হয় এবং দ্বিপরীত আচরণ স্বারা ক্রেমে অশুভ ঘটে । (১) “তেসিং বিশুদ্ধদংসণণtণপধtণাসমং সমাসিজ । উলসংপয়ামি সন্মং জত্তো নিববাণসংপত্তী ॥ ১৫ । সংপজ্জদি নিৰ্ব্বাণং দেবাক্ষরমপুরায়বিহুবেছিং। জীবসস চরিত্তাদো দংসণণtণপ্লদ্বাণাও ॥” ১৬ প্রবচনসার “সম্যগদর্শনঞ্জনচারিত্রাণি মোক্ষমাগঃ । ১ डश्ार्थवचनं ममाश्नुनम् ॥” । अनश्” ०२ ।। (২) “চারিত্ত্বং খলু ধক্ষো ধন্মে। জে। সে সমে ত্তি শিদিট্‌ঠো মোহশ্বকোহবিহুণে পরিণামো অপ্পণোধ সমে ॥” প্রব• ১৭ (৩) "পরিণমদি ষেন দববং তঙ্কলিং তস্ময়ং ত্তি পঞ্জক্তং । ভমূহ ধৰ্ম্মপরিণদে আদি ধক্ষ্মো মুণেয়বো ।” ১৮। ] في عاد ] टेज्जन জীব বাসনাপরিশুদ্ধ হইয়া উন্নত ও পরিবর্তিত হইলে পবিত্র ও সাম্যাবস্থা প্রাপ্ত হয় । - , - জগতে এমন কোন পদার্থ নাই, যাহার কালক্রমে কোন ●यंकांद्र अब्रिशांभ इग्न नां, अथवा ५ोमन अग्निश्रांभ बाहे बांशं পদাৰ্থ বহির্ভূত। কোন বস্তুর অস্তিত্ব বলিলেই কোন দ্রব্য, তাহার গুণ ও কালক্রমে তাহার পরিণাম বুঝায় (৪) । জীব যখন অস্তরে পবিত্র ও শুদ্ধভাব অনুভব করে, তখন আত্ম ধৰ্ম্মে পরিণত হইয়া নিৰ্ব্বাণ প্রাপ্ত হয় । যখন আত্মা শুভ ভাব অনুভব করে অর্থাৎ যখন ধৰ্ম্ম সদনুষ্ঠানে পরিণত হয়, তখন স্বৰ্গসুখ অনুভূত হইয়া থাকে (৫)। আত্মার পরিণাম অশুভ ও দোষযুক্ত হইলে জীব অতিশয় নীচ, পশু অথবা নারকীয় যোনিতে জন্মগ্রহণ করে এবং বহুকাল নানাবিধ যোনি ভ্রমণ করিয়া অত্যন্ত কষ্ট ভোগ করে (৬) । অত্যুন্নত পরিণাম ও তাহার ফল –গুদ্ধ আচরণ দ্বারা আত্মা অত্যুন্নত পরিণাম প্রাপ্ত হইলে জীব ইঞ্জিয়াতীত নানাবিধ অতুলনীয়, অসীম ও অবিনশ্বর মুখ অনুভব করে (৭)। শ্রমণগণ গুদ্ধোপযুক্ত ও পবিত্র ভাবপ্রবণ। ইহারা প্রত্যেক বস্তু ও তাহার কারণ সম্যক্ অবগত আছেন । ইহার ইঞ্জিয় বিজয় করিয়াছেন এবং বিবিধ ক্লেশ সহ করিতে অভ্যস্ত হইয়াছেন । ইহারা নিষ্কাম, ইহাদিগের নিকট সুখ ও ফুঃখ উভয়ই সমান । যিনি পবিত্র আচরণ দ্বারা অন্তরে সর্বদা শুদ্ধভাব অনুভব করেন, তিনি জ্ঞানের অস্তুরায় ও মোহ হইতে বিমুক্ত এবং তিনিই সৰ্ব্বজ্ঞতা ও আত্মনির্ভরতা লাভ করিতে সমর্থ। যে ব্যক্তি উক্ত রূপ আচরণ দ্বারা আত্মার চরম-পরিণাম প্রাপ্ত করিয়া সৰ্ব্বজ্ঞতা লাভ করেন, তিনি ত্রিভুবনের রাজাদিগেরও নিকট মান্ত প্রাপ্ত হন। এই অবস্থায় তিনি স্বয়মাত্মা এবং স্বয়ম্ভ, নামে পরিচিত হন (৮) । (৪) ণখি বিণা পরিণামং আখে। অথং বিশেহ পরিণামো । দববগুণপজ্জয়থে আখে অখিত্ত্বণিকবত্তে ॥ ১১ • ॥ (৫) “ধক্ষ্মেণ পরিণদপ্পা অপ্পা যদি সুন্ধসংপওগজদে । পাবদি নিৰ্ব্বাণমূহং স্কুহোবজুত্তো বসগৃগমুহুং।” ১।১১। (৬) “অক্সহোদয়েন আদা কুণরো তিরিও ভবিয় শেরইয়ে। ছখকসহসেসহিংসদ অভিদ দে ভমদি অচ্চত্তং ।” ১২ (৭) “অদিসয়মাদসমুখং বিসয়ার্তাদং অশোবমমণংতং । অবচ্ছিন্নং চ মুহং স্বদ্ধবওগল্পসিদ্ধাণং ” ১।১৩। (৮) “তই সে লন্ধসহাবে সৰ্ব্ব সকলোগপমিছিলো। छून नषरमदांना इवनि लब्रश्छूखि निकिल्लेळ ॥”,»I४७ ।।