পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/১৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ठैजम भएन मां कद्रl, 8र्ष जैौन्न ब्रभनेौञ्च अक्रमलॉन अथयां अन्ननश्झांद्र পরিত্যাগ, ৫ম স্নিগ্ধ, মধুর, রুক্ষ বা অধিক আহারত্যাগ (৪৫) अषै९ फ़ेनब्रट्रू इब डांश कब्रिब्र उिनडाश्र अन्न, झहेडाश्र জল এবং মুখে নিঃশ্বাস প্রশ্বাস ফেলিবার জন্ত একভাগ খালি রাখা (৪৬) । অকিঞ্চন্য বা অপরিগ্রহ ত্ৰতের পাঁচটা ভাবনা । স্পর্শ, রস, গন্ধ, রূপ ও শব্দ এই ইঞ্জিয়াত্মক অমনোজ্ঞ পাচ বিষয়ের অত্যস্তগাদ্ধত্ব পরিত্যাগ এবং স্পশাদি পাচ বিষয়ের শ্বেযপরিত্যাগ (৪৭) । জৈনশাস্ত্রকারগণ লিখিয়াছেন, উক্ত পাচ মহাব্রত ও পচিশ ভাবনা যিনি পালন করিয়া চলেন, তিনি গুরুপদবাচ্য। এতদ্ভিন্ন গুরুর ৭৬টী চরণ ও করণ সংযুক্ত হওয়া চাই । ৭৬টী চরণ যথা-পঞ্চ প্রকার ব্রত, দশ প্রকার শ্রমণধৰ্ম্ম, সপ্তদশ প্রকার সংযম, দশপ্রকার বৈয়াবৃত্ত্য, নবপ্রকার ব্ৰহ্মচৰ্য্যগুপ্তি, তিনপ্রকার জ্ঞান, তিনপ্রকার দর্শন, তিন প্রকার চারিত্র, বারপ্রকার তপ, চারিপ্রকার ক্রোধাদি নিগ্ৰহ, এই সৰ্ব্বশুদ্ধ ৭৬ প্রকার । ক্ষান্তি ( ক্ষমা ), মার্গব, আৰ্জব, মুক্তি, তপ, সংযম ( ত্যাগবৃত্তি ), সত্য, শৌচ, আকিঞ্চন ও ব্রহ্মচৰ্য্য এই দশটা শ্রমণ বা যতিধৰ্ম্ম ( ৪৮) । মতান্তরে ক্ষান্তি, মুক্তি, অর্জিব, মাৰ্দ্দব, তপ, লাঘব, সংযম, বিযোগ, অকিঞ্চন ও ব্রহ্মচৰ্য্য এই দশটা যতিধৰ্ম্ম ( ৪৯ ) । পাচ আশ্রবত্যাগ, পঞ্চেস্ক্রিয়নিগ্ৰহ, ক্ৰোধ মান মায়া ও লোভ এই চারি কষায় জয়, মন বচন ও কায় এই তিন দণ্ডের বিরতি, সপ্তদশ সংযম, পৃথিবী, উদক, অগ্নি, পবন, (৪৫) “স্ত্রীষণপশুমদ্বেশাসনকুড্যান্তরোজনাৎ । সরগিস্ত্রীকথাত্যাগাৎ প্রাগৃগতমৃতিবর্জনাৎ স্ত্রীরম্যাঙ্গেক্ষণস্বাঙ্গসংস্কারপরিবর্জনাৎ । প্রণীতাত্যশনত্যাগাৎ ব্রহ্মচৰ্য্যন্তু ভাবয়েৎ ॥” (৪৬) “অন্ধমসণসস সব্বং জণসস কুজ্জাদবসসদোভাগে। বাউপবিজারণটুঠ ছজ্জায় উণগং কুজ্জা ।” (৪৭) “স্পর্শে রসে চ গন্ধে চ রূপে শব্দে চ হারিণি। পঞ্চস্থ হীন্দ্রিয়াৰ্থেষু গাঢ়ং গাদ্ধান্ত বর্জনম্। এতেঘেবামনোঞ্জেযু সৰ্ব্বথা দ্বেষবর্জনম । আকিঞ্চস্তত্ৰতস্তৈবং ভাবনা পঞ্চ কীৰ্ত্তিতা ।” (৪৮) *বয় সমণ ধৰ্ম্মসংজম বেয়াবাচ্চং চ বস্তু গুজীউ । নাগাই তিয়ং তব কে হৰিগৃগহাইং ই চরণমেয়ং ” (৪৯) “খস্তিয় মদবজ্জব মুৰ্ত্তী তব সংজমে য বোধকা । नक्लदै cगाम्न आंकि११% दख्१झ छद्देशान्त ।” ( పిన్( ) ट्रैक्कम বনস্পতি, ৰীক্রিয়জীব, জীক্রিয়জীব, চতুরিস্ক্রিয়জীব ও পঞ্চেস্ক্রিয় জীব, দশপ্রকার অর্জীবসংযম, প্রেক্ষাসংযম, উপেক্ষসংযম, প্রমার্জনসংযম, পরিষ্ঠাপনাসংষম, মনঃসংযম, বচনসংযম ও কায়সংযম এই ১৭ প্রকার সংযম (৫৯) । আচাৰ্য্য, উপাধ্যায়, তপস্বী, শিস্য, গ্লান ( জরাদি রোগসংযুক্ত সাধু),সাধু, সমনোজ্ঞ, সঙ্ঘ (অর্থাৎ সাধু, সাধবী, শ্রাবক ও শ্রাবিক এই চারি সম্প্রদায় ), কুল, গণ ও গচ্ছ, এই দশের যথাযোগ্য সেবাগুশ্ৰুষা ও পালন করার নাম ১০ দশ বৈয়াবৃত্ত্য ( ৫১ ) । বসতি (অর্থাৎ যেখানে পখাদি থাকে), স্ত্রীপ্রসঙ্গ, স্ত্রীস্পষ্ট, নিষিদ্ধস্থান, ইন্দ্রিয়, কুঁড্যান্তর, পুৰ্ব্বক্ৰীড়া, প্রণীত, অতি মাত্রাহার ও বিভূষণ, এই নয়ট ব্রহ্মচর্য্যের গুপ্তি (৫২ )। দ্বাদশাঙ্গ, দ্বাদশোপাঙ্গ, প্রকীর্ণক ও উত্তরাধ্যয়নাদিশাস্ত্র পাঠে যাহা দ্বারা জ্ঞানাবরণীয় কৰ্ম্মক্ষয় হয় এবং যাহা দ্বারা যথার্থ বস্তুর বোধ জন্মে, তাহাই জ্ঞান। জীব, অঞ্জীব, পুণ্য, পাপ, আশ্রব, সংবর, নির্জরী, বন্ধ ও মোক্ষ এই নব তত্ত্বের (৫৩) উপর বিশ্বাস স্থাপন বা তত্ত্বরুচির নাম দশন । সৰ্ব্বপ্রকার পাপকৰ্ম্ম বুঝিয় তাহা হইতে নিবৃত্ত হওয়ার নাম চরিত্র। এই চারিত্র অাবার দুই প্রকার—দেশবিরতি । চরিত্র ও বিরতিচারিত্র । অনশন ( অল্পাহার ), ব্রত, নানাপ্রকার অভিগ্রহকরণ, রসত্যাগ, কায়ক্লেশ ও সংলীন এই ছয় প্রকার বাহ তপ ; প্রায়শ্চিত্ত, বিনয়, বৈয়াবৃত্ত্য, স্বাধ্যায়, ধ্যান ও ব্যুৎসর্গ এই ছয়প্রকার অভ্যস্তর তপ (৫৪)। (৫০) “পঞ্চাসবা বিরমণং পঞ্চিমিয়া নিগৃগছে। কসীয় জউ ॥ দণ্ডত্তয়স্স বিরই সত্তরসহ সংজমো হোই ॥” “পুঢ়বিদগ অগণি মাকুয় ধণসই বিতি চউপণিন্দি অজীব পহু প্লেহমপহণ পরিঠবণ মণো বদ কাএ ॥” (৫১) “আয়রিয় উবহাএ তবসসি সেহে গিলাণ সাহুস্থ । সমণোন্ন সংঘকুলগণ বেয়াবচং হবই দসহ ॥” (৫২) “বসহি কহ নি সিহিন্দিয় কুড়ন্তর পূব্বকীলিয় পণীএ। অইমায়াহার বিভূসণাই নব বস্ত গুজীউ ॥” (৫৩) “জীবাজীবে পুণ্যপাপে আশ্রবঃ সংবরোপি চ । বন্ধে নির্জরণং মুক্তিরেষাং ব্যাখ্যাধুনোচ্যতে ॥” ( বিবেকবিলাস । ) cवठाँष८ग्नग्नां छेद्ध बसडक् श्रीकाङ्ग कtब्रन । ठाश्tcमग्न नगठख़ नॉभक अtश् विख्ठ बिंदब्र१ दर्मिड श्राrइ । किड़ निशषtब्रब्र गाडगै माज उव স্বীকার করেন, তাহ পূৰ্ব্বে লিখিয়াছি । (৫৪) “অণসণ মূণোয়রিয়া বিত্তীসংথেবণ রসচাউ । কায় কলেসো সংলীণয়া য বজ্জো তবে হোই ॥ পায়চ্ছিত্তং বিণউ বেয়াবাচ্চং তহেব সহাউ । জাণং উসসগৃগোবিন্ধু অঘূভিতরউ তবে হোই