পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/২০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জৈন বে আপনার প্রয়োজন নিমিত্ত ধনধান্ত ক্ষেত্রাদি নববিধ পরিগ্রহে যাহার ক্ষতি বৃদ্ধি করে, তাহার নাম অর্থদও, সুখের জক্ট যে পাপ করে, তাহার নামও অর্থদণ্ড, কিন্তু উপরোক্ত কোন প্রয়োজন ব্যতীত যে পাপ করে, তাহার নাম অনর্থদণ্ড । উছার সম্যক্ পরিত্যাগের নামই অনর্থদণ্ডবিরমণব্রত । ইহা অাবার চারি প্রকার-১ জপধ্যান, ২ পাপোপদেশ, ৩ হিংস্র প্রদান ও ৪ প্রমাদাচরিত অনর্থদণ্ডবিরমণ। জপধ্যান-অনর্থ দগু দুই প্রকার–আৰ্ত্তধ্যান ও রৌদ্রধ্যান । আৰ্ত্তধ্যান আবার চারি প্রকার –অনিষ্টার্থসংযোগার্থধ্যান, ইষ্টবিয়োগার্থধ্যান, রোগনিদানাৰ্ত্তধ্যান ও অগ্রশৌচনাম আৰ্ত্তধ্যান। রৌদ্রধান ও চারিপ্রকার—হিংসানন্দরৌদ্র, মৃষানন্দরৌদ্র, চোৰ্য্যানন্দরৌদ্র ও সংরক্ষণানন্দরৌদ্র । বিনা প্রয়োজনে অজ্ঞানতাপ্রযুক্ত পাপোপদেশ করাকে পাপ কৰ্ম্মোপদেশ অনর্থদণ্ড বলা যায় । অস্ত্রশস্ত্রাদি হিংসাকারী বস্তু বিনা প্রয়োজনে দক্ষিণ্যতা ব্যতীত প্রদান করার নাম হিংস্র প্রদানঅনৰ্থদণ্ড । কামশাস্ত্রাদি অভ্যাস, দৃতিক্রীড়া ও মদ্যপানাদি প্রমাদকার্য্যের মাম প্রমাদাচরণ অনৰ্থদও } অনর্থদণ্ডব্রতের পাচ অতিচারের নাম-১ কন্দপচেষ্টা, ২ মুখরতা, ৩ ভোগোপভোগাতিরিক্ত, ৪ কৌকুচ্চি বা কামমৰ্ম্ম এবং ৫ সংযুক্তাধিকরণ অতিচার । পূৰ্ব্বোক্ত আট ব্রত ও আত্মগুণের পুষ্টিকারক, অবিরতি, তাদাত্মভাবে মিলিত অনাদি বিভবেরূপ পরিণতি ইত্যাদি অভ্যাসের জন্ত এবং আত্মামুভবরূপ সহজানন্দস্বরূপ রস পান করিবার জন্যই সামায়িকব্রত। রাগদ্বেষরহিত পরিণাম হইলে যে জ্ঞানদশনচারিত্ররূপ মোক্ষমার্গ লাভ হয়, প্রশম মুখরূপ ইহার যে এক ভাব, তাহার নাম:সাময়িক । আবগুকস্বত্রে সামায়িকের ৩২ দূষণ কথিত হইয়াছে। যথা—১ উচ্চাসন, ২ চলাসন, ৩ চলদৃষ্টি, ৪ সবন্তক্রিয়া, ৫ আলম্বন, ৬ আকুঞ্চনপ্রসারণ, ৭ আলস্ত, ৮ মোটন, ৯ মল, ১০ বিমাসন ( অর্থাৎ গলে হাত দিয়া বসা ), ১১ নিদ্রা, ১২ শীত, ১৩ কুবচন, ১৪ সহসাৎকার, ১৫ অসদারোপণ, ১৬ নিরপেক্ষবাক্য, ১৭ স্বত্রসংক্ষেপ, ১৮ কলহ, ১৯ বিকথা, ২০ হাস্ত, ২১ অশুদ্ধপাঠ, २२ भिग्निर्ण (पञर्थ९ि श्रन्wीछे फेफ़ांद्र१), २७ अदि८दक, २8 ब८*ीबाहl, २९ पनवांश, २७ श्रदर्द, २१ उग्न, २४ निनांन, २२ नश्*ब्र, ৩• কষায়,৩১ অবিনয় ও ৩২ আবহমান। সাময়িক ব্রতের পাঁচ অতিচারের নাম—১ কায়দুঃপ্রণিধান, ২ মন-দুঃপ্রণিধান, ৩ বচনহ প্রণিধান, ৪ জনবস্থাদোষ ও ৫ স্থতিবিহীন অতিচার। যষ্টব্ৰত দিকপরিমাণের সংক্ষেপ রূপের নাম দেশাবকা [ २०१ J . ऐछम শিকব্রত । ইহাতে ক্ষেত্রপরিমাণ ক্রমে কমিয় আসে। এই ব্ৰত গুরুমুখে শিক্ষণীয়। ইহার পাঁচ অতিচারের নাম— ১ আণবণ প্রয়োগ, ২ পেসবর্ণপ্রয়োগ, ও সহাণুবায়, ৪ রূপান্থজাতী এব" ও পুগিলাক্ষেপ অতিচার (অর্থাৎ ভূমি দিয়া গমনকারী পুরুষকে কঙ্কর নিক্ষেপ বা উচ্চবাক্যপ্রয়োগ ) । পোষধোপবাস চারিপ্রকার—১ আহার, ২ শরীরসৎকার, ৩ অব্রহ্ম ও ৪ অব্যাপারপোষধ । আহারপোষধ দুই প্রকার—একদেশী ও সৰ্ব্বত: । কোন স্থানে ত্রিবিহার, উপবাস, অথবা আচান্নতপ কিংবা একাশনপূৰ্ব্বক পোষধ করাকে একদেশপোষধ। ভোজনস্থান, পোষধশালা, সাধুর ਚੋਂ মার্গ প্রভৃতি সকল স্থানে যথারীতি অtহার করাকে সৰ্ব্বতঃপোষধ বলা যায় । স্নান, ধৌতকরণ, ধাবন, তৈলমৰ্দ্দন ও বস্ত্রভূষণাদি, শৃঙ্গারপ্রমুখ কোন প্রকারে শরীরের শুশ্ৰুষা না করাকে শরীরসৎকারপোষধ কহে । ঐয়পি পোষধে আগার বা হস্তমস্ত কাদির শুশ্ৰুষা করিলে তাহাকে দেশসৎকারপোষধ বলা যায় । ত্রিকরণগুদ্ধ ব্রহ্মচর্য্য পালনের নাম ব্ৰহ্মপোষধ । মন বচন দৃষ্টি প্রমুখ যে আগার রাখে, তাহাকে দেশব্রহ্মচৰ্য্যপোষধ কহে । সৰ্ব্বতোভাবে সাবস্তুব্যাপার ত্যাগকে অব্যাপার পোষধ বলা ষায় । উক্ত চারি পোষধের প্রত্যেকটীর আগমব্যবহারী ও শুদ্ধ উপযোগী এই দুই প্রকার ভেদ আছে। পোষধত্রতের পাচ অতিচার, যথা—১ অপ্রতিলেখ্য, ১ জুল্পতিলেখ্যশিক্ষাসংস্থারক, ২ অপ্রমধাতু-প্রমধ্যশিক্ষাসংস্থারক, ৩ অপ্রতিলেখ্য দুষ্প্রতিলেখ্য উচ্চারপাসবণ (?) ভূমি, ৪ অপ্রতিমধ্য দুগুতিমধ্য উচ্চার-পাসবণ ভূমি এবং ৫ পোষধবিধিবিপরীত । পোষধের ১৮টা দুষণ, যথা-১ পোষধরতী বিন জলপান, ২ পোষধ জন্ত সরস আহার, ৩ পোষধের পূর্বদিন ভূরিভোজন, ৪ পোষধাৰ্থ অথবা পোষধের পুব্বদিনে বিভূষা, ও পৌষধার্থ বস্ত্রধৌতকরণ, ৬ পোষধের জন্ত আভরণধারণ, ৭ পোষধের জন্ত বস্ত্ররঞ্জন, ৮ পোষধে শরীরসংস্কার, ৯ পোষধে অকালনিদ্রা, ১০ পোষধে স্ত্রীপ্রসঙ্গ, ১১ পোষধে আtহারকথা, ১২ পোষধে রাজকথা, ১৩ পোষধে দেশকথা, ১৪ পোষধে নির্দিষ্টস্থান ব্যতীত মলমূত্রত্যাগ, ১৫ পোষধে পরনিন্দ, ১৬ পোষধে স্ত্রীপুত্রাদি পরিজনের সহিত আলাপ, ১৭ পোষধে চৌরকথা ও ১৮ পোষধে স্ত্রী অঙ্গদর্শন । ন্যায়োপার্জিত ধন কেবল নিজের উদরপূরণ হইতে পারে, এরূপ রাখিয়া অতিথিকে’দান করার নাম অতিথিসংবিভাগ।