পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/২১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জোগেরু [ ২১৬ ] জোগেরু প্রভৃতি পোৰে । ইহারা আহারে খুব পটু, কিন্তু খাদ্য দ্রব্য উত্তমরূপে রন্ধন করিতে জানে না। জোয়ারের রুটি ও শাকসবজি প্রভৃতিই ইহুদিগের সাধারণ প্রধান খাদ্য। ময়দার পিঃক, মোট চিনি ও শাক ইহার বিশেষ বিশেষ উৎসব উপলক্ষে আহার করে। ইহার শাক, মেধ, কুকুট, মৎস্ত, হরিণ, কাকড়, মাছ প্রভৃতি ভক্ষণ করে ; কিন্তু গো অথবা শূকরের মাংস ভক্ষণ করে না । ইহার সময় সময় মদ্য ও পান করে। ইহার পরিবার কাপড় প্রায়ই কাহারও निकछे श्हे८ङ कांश्द्रिां जग्न । शूक्रवञ१ ऋझ ७ छघन cनटन “জৈহ্মঞ্চ মৈথুনং পুংসি জাতিভ্রংশক্ষরং স্বতং ” (মন্ত্র ১১৬৮) নিষিদ্ধ দ্রব্য ভক্ষণ, মিথ্যাকথন ও জৈহ্ম্য প্রভৃতি সুরাপানতুল্য পাপজনক। "নিষিদ্ধভক্ষণং জৈহ্মমুৎকৰ্ষশ্চ বচোহনৃতম্। রজস্বলামুখাস্বাদ: সুরাপানসমানি তু ॥” (যাজ্ঞবল্ক্য) জৈহব (ত্রি) জিহবাসম্বন্ধীয় বা জিহবায় স্থিত। १झझला ( क्लौ ) खिश्व गरुकौञ्च ।

  • खैश्रृंश्] *श्लाः वङ्भश्छषांनः ।” ( खांश्* १|७|१७) জো (দেশজ ) ১ সুবিধা । ২ বীজবপনাদির প্রকৃত সময়।

জোআহার (আরবী) জোয়ার } জোআহরা (আরবী) জোয়ারী। জোক ( দেশজ ) জলোঁকা। [ জলোঁকা দেখ । ] জোকন ( দেশজ ) কোন দ্রব্যের ভার পড়া । জোখম (আরবী) বিপদ, আপদ, দুঃখ। জোগু (ত্রি) স্তোত, স্তুতিকারক। “অমুহণং বয়ত জোগুবামপঃ ” ( ঋক্ ১ ele৩৬) ‘জোণ্ডবাং স্তোতৃণাং । (সাণ) জোগেরু, দক্ষিণাত্যবাসী একপ্রকার ভিক্ষুক। ইহারা আপনাদিগকে যোগী বলিয়া পরিচয় দেয় । ধারবার জেলার প্রায় সৰ্ব্বত্রই এই শ্রেণীর ভিক্ষুক দেখিতে পাওয়া ধায় । বাগলকোট, বুলবুত্তি, বুড়বুগি প্রভৃতি স্থানেই ইহাদের সংখ্যা অধিক । ইহারা অতি প্রাচীন অধিবাসী। বাগলকোট প্রভৃতি স্থানের জোগেরুদিগের মধ্যে পুরুষদিগের সাধারণতঃ नॉष खे»ाथि झूठे श्य । এই জোগেরুগণ দশ কুলে বিভক্ত, যথা—বাচনি, ভগুরি, চুণাড়ি, হিঙ্গমরি, করফদরি, কাসার, মদরকর, পৰ্ব্বলকর, সালি ও বডকর। ইহাদিগের' ৰিবাহাদি উৎসবে উক্ত দশ শ্রেণীর প্রত্যেক শ্রেণীর এক এক জন প্রতিনিধি উপস্থিত থাকে। এই দশটা শ্রেণীর প্রত্যেকেই গোরথনাথের দ্বাদশ জন শিষ্ণু যে দ্বাদশটী বিভাগ স্থাপিত করিয়াছিল, তাহার কোন একটর অন্তভূক্ত । জোগেরুগণ ভৈরব এবং সিদ্ধেশ্বর এই দুইজন গৃহদেবতার অর্চনা করে ; রত্নগিরির নিকট ভৈরবমন্দির অবস্থিত । ইহার অগুদ্ধ কণাড়ী ও মহারাষ্ট্রী উভয় ভাষাতেই কথাবার্তা কহে । ইহারা চারি ভাগে বিভক্ত, যথা—ভৈরবী-যোগী, কিন্দ্রী-যোগী, পমন-যোগী এবং তবর-যোগী । ভৈরবী বা ভৈরি ও কিন্ত্রী যোগিদিগের মধ্যে পরস্পর বিবাহাদি ক্রিয়া সম্পন্ন হয় । এই যোগিদিগের আকৃতি বুড় বুড় কিদিগের স্তায় । ইহার অপরিস্কৃত ও অপরিচ্ছন্ন কুটীরে বাস করে ; কুকুর, ভেড়া, কুকুট, র্যাড় একখানি কাপড় ও একটা জ্যাকেট পরিধান করে, মস্তকে একখানি ক্ষুদ্র বস্ত্র বঁাধে ; স্ত্রীগণ গায় জাম দেয়। জোগেরুগণ শরীরের ভিন্ন ভিন্ন স্থানে বেলোয়ারি কুণ্ডল, আংটি, হার এবং পিতলের মালা পরিধান করে। ভিক্ষাই ইহাদিগের প্রধান উপজীবিকা ; ইহার নানাস্থানে ভ্রমণ করিয়া বেড়ায় এবং মুবিধা পাইলে যাহা পায়, তাহাই চুরি করিয়া পলায়ন করে। বাগলকোট প্রভৃতি স্থানের যোগিগণ স্বচি ও চিরুণি প্রভৃতি বিক্রয় করিবার জন্য নানাস্থানে ভ্রমণ কষ্ট্রে এবং জোতিবের সাধকদিগের নিকট হইতে বস্ত্রাদি ভিক্ষ করিয়া লয় । রত্নগিরির জোতিব ইহাদের প্রধান দেবতা । এই জোগেরুগণ যখন ভিক্ষার্থ বহির্গত হয়, তখন তাহার কাণে মুদ্র নামক রৌপ্যনিৰ্ম্মিত কুগুল পরিধান করে এবং জোতিবের ত্রিশূল ও অলাবুনিৰ্ম্মিত পাত্র সঙ্গে করিয়া লয়। ইহার একটী ছোট ঢাক ও শিঙ্গা বাজায়। যে যে স্থানে জোতিব আছে, সেইস্থানে গমন করিলে ইহারা “বাল সন্তোষ।” কথা উচ্চারণ করে। ইহারা অতিশয় অশিক্ষিত, কিন্তু फाङ7म्ल श्रृंशृ । জোগেরুগণ বলে, তাহারা অনেক শিকড় গাছড়া প্রভৃতি জানে ; তাহা দ্বারা বিবিধ রোগ আরাম করিতে পারে। ইহার গড়গের পাহাড় হইতে পাথর আনিয়া সময় সময় পাথরের বাট প্রভৃতি প্রস্তুত করিয়া বিক্রয় করে। আশ্বিনমাসে দসরা এবং কান্তিকমাসে দীবালিই ইহাদের প্রধান উৎসব। জোগেরুগণ ব্রাহ্মণদিগকে বিশেষ মান্ত করে, ব্রাহ্মণগণ ইহাদের বিবাহাদিকার্য্য এবং স্বজাতীয় লোকেই ঔদ্ধদেহিক কাৰ্য্য সম্পন্ন করে। কোন কোন জোগেরুর বিবাহ কাৰ্য্য ব্রাহ্মণ কর্তৃক ও অন্তান্ত কাৰ্য্য কাণফটু বৈরাগী দ্বারা নিম্পন্ন হয়। ইহার তীর্থে ভ্রমণ করে না ; আখিনমাসের প্রথম পাচদিন প্রতি পরিবারের এক ধ্যক্তি উপবাস করিয়া থাকে। ইহাদের নিজ শ্রেণীর মধ্যে এক জন ধৰ্ম্মোপদেষ্ট থাকে, সে