পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/২২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জোয়ারভাট cजांब्रांप्ब्रब्र गंग्र शूनब्रांग्र श्रांहिक cजांब्रांब्र श्रेष्ठ थाङ्ग २8 ঘণ্টা ৫৭ মিনিট সময় লাগে? এবং জাহিক জোয়ারের পরে প্রায় ১২ ঘণ্টা ২৮২ মিনিট পরে পাণ্টা জোয়ার হয় । কেবল চশ্রেয় আকর্ষণী শক্তি দ্বারা সমুজে প্রায় ৫ ফিট উচ্চ জোয়ার হইতে পারে। পূৰ্ব্বোক্ত প্রকারে জোয়ার গণনা অতি সহজ বোধ হইলেও ইহা অতি জটিল। সৰ্ব্বদা বহুসংখ্যক জামুযঙ্গিক শক্তি চন্দ্রকৃত জোয়ারের অমুকুল ও প্রতিকুলাচরণ করিতেছে । ঐ সকল শক্তি প্রত্যেকে স্ব স্ব প্রধান জোয়ারতরঙ্গ উৎপাদন করে। দৃপ্তমান জোয়ার-প্রবাহ ঐ সকল শক্তির সভঘাতফল মাত্র। এই সকল শক্তি মধ্যে স্বর্ঘ্যের আকর্ষণী শক্তি প্রধান । ‘. পৃথিবী হইতে স্বৰ্য্যের দুরত্ব চন্দ্রের দূরত্বের প্রায় ৪•• গুণ অধিক হইলেও সুৰ্য্যের বস্তুপরিমাণ চন্দ্র অপেক্ষা প্রায় ২,৮০,• •,••• দুই কোটা চুরাশি লক্ষ গুণ বড়। মহাকর্ষণের নিয়মানুসারে দূরত্বের বর্ণানুসারে আকর্ষণ হ্রাস হয় । গণিত সাহাধ্যে প্রমাণ করিতে পারা যায়, দূরত্বের ঘন অনুসারে আকর্ষণের জোয়ার-উৎপাদিকাশক্তি হ্রাস হয়। এইরূপে ভূপৃষ্ঠে সুর্ঘ্য ও চন্ত্রের জোয়ার উৎপাদিকাশক্তির অনুপাত ৩৫৫ : ৮• • মাত্র। অর্থাৎ সুৰ্য্যের শক্তি চন্ত্রের প্রায় ঃ অংশ, शू उब्रांश् दफ़ अन्न नारु । ७शे विद्गांछे अंख् िश्रद्दनक अभग्न চন্ত্রের প্রতিকূলে কাৰ্য্যকারী। অমাবস্তা ও পূর্ণিমার সময় উহার পরম্পর অমুকুলভাবে কাৰ্য্য করে অর্থাৎ উভয়েই পৃথিবীর এক অংশে জোয়ার ও অন্ত অংশে ভাট উৎপন্ন করিতে চেষ্টা করে, সেই জন্য ঐ দিবস জোয়ারের উচ্চতা অন্য দিন অপেক্ষা অধিক হয় । সপ্তমী অষ্টমী দিনে চন্দ্র ও স্বৰ্য্য পরস্পর সম্পূর্ণ প্রতিকূলভাবে কাৰ্য্য করায় সৰ্ব্বাপেক্ষ অল্প জোয়ার হয়। অষ্টমী হইতে অমাবস্তা ও পূর্ণিমার দিনে জোয়ার ক্রমশঃ বৰ্দ্ধিত হইতে থাকে । পূৰ্ব্বে বলা হইয়াছে, চতুর্দিকে সমুদ্রাবরিতা পৃথিবী চন্দ্রের আকর্ষণে কতকটা অণ্ডাকার ধারণ করে। ইহার একটী শীর্ষ সৰ্ব্বদা চন্দ্রের দিকে এবং অপরটা তাহার ঠিক বিপরীত দিকে থাকে। এই অণ্ডের লঘুব্যাস অপেক্ষ গুরুব্যাস প্রায় a৮ ইঞ্চ অধিক, সুতরাং স্বৰ্য্যশক্তি দ্বারা উৎপন্ন অগুণকারের গুরুব্যাস লঘুব্যাস অপেক্ষা প্রায় ২৫৭ ইঞ্চ বৃহত্তর হইবে। অমাবস্তা ও পূর্ণিমার দিন উহাদের প্রায় যোগফল এবং অষ্টমীদিন বিয়োগফল দ্বারা বাস্তবিক জোয়ার উৎপন্ন হয়, অর্থাৎ পূর্ণিমা ও অমাবস্তার জোয়ার কেবল চন্দ্রের শক্তি দ্বারা উৎপন্ন জোয়ারের ক্ষু গুণ এবং অষ্টমীজোয়ার চন্দ্রৰার উৎপন্ন জোয়ারের ; , সুতরাং পূর্ণিমাজোয়ার ও [ २¥8 ] জোয়ায়ওঁাটা অষ্টমীজোয়ারের অনুপাত প্রায় ১৩ ঃ ৫ অর্থাৎ আড়াই ७८गंद्र७ अधिक । t উল্লিখিত প্রমাণ দ্বারা মেরুপ্রদেশরে . ধোয়ার অসম্ভব, কেননা মেরু হইতে অনবরত জলরাশি বিষুবমওলে cजांब्राप्द्रब्र शtन शाबिऊ श्हेtठरइ oवर क बिन्नूछ थ तिनू अय्प्रिक्र। झाक्षत्र आकर्षण अधिक कार्गीकोो बलिग्न আহ্নিক জোয়ায় পাণ্টা জোয়ার অপেক্ষা প্রবল হইবে । কিন্তু নানা কারণে ঐক্ষপ ঘটনা প্রত্যক্ষ হয় না। ইহার কারণ ক্রমে উল্লেখ করা যাইতেছে। পূৰ্ব্বোক্ত দ্বীপ যদি বিষুবরেখার উভয় প্রান্তে বহুদূর পর্যন্ত বিস্তৃত হয়, তাহা হইলে জোয়ার তরঙ্গ দ্বীপকুলে প্রতিহত হইয়া উত্তর ও দক্ষিণদিকে মেরু প্রদেশাভিমুখে অগ্রসর হয়, এবং দ্বীপের দুই প্রান্ত বেষ্টন করিয়া অপর পাশ্বে যথাক্রমে দক্ষিণ ও উত্তরমুখে বিষুবরেখার দিকে সমান গতিতে অগ্রসর হয়। এইরূপে বিষুবরেখা হইতে বহুদূরবর্তী সাগর উপসাগরাদিতেও মহাসাগরের জোয়ার তরঙ্গ ব্যাপ্ত হয় । অমাবস্তা ও পূর্ণিমার দিবস চন্দ্র ও স্বৰ্য্য মিলিতভাবে জোয়ার উৎপাদনে সাহায্য করে, সুতরাং জোয়ার অত্যস্ত প্রবল হয়। এতদেশীয় নাবিকেরা উহাকে কটাল কহে । কিন্তু অষ্টমীদিনে উহারা পরস্পর প্রতিকূলভাবে কাৰ্য্য করায় জোয়ার তাদৃশ প্রবল হয় না। ক্রমে যত অমাবস্তা ও পূর্ণিমা নিকটবর্তী হইতে থাকে, ততই জোয়ারের পরিমাণ বৰ্দ্ধিত হয় । আবার দেখা যায়, পৃথিবী ও চন্দ্রের ভ্রমণপথ সম্পূর্ণ বৃত্তাকার না হওয়ায় পৃথিবী হইতে চঞ্জ ও স্বর্ঘ্যের দুরত্ব সৰ্ব্বদা সমান থাকে না । চন্দ্র ও স্বৰ্য্যের নীচ অর্থাৎ পৃথিবীর নিকটতম স্থানে অবস্থানকালে অমাবস্তা বা পূর্ণিমা হইলে তৎকালে যে জোয়ার হয়, উহার উচ্চতা সৰ্ব্বাপেক্ষা অধিক । উহাকে এদেশীয় নাবিকেরা তেজ-কটাল কহে । কিন্তু উক্ত জ্যোতিষ্কদ্বয় মনোচ অর্থাৎ দূরতম স্থানে থাকিলে জোয়ার অল্প উচ্চ হয়। এদেশে উহাকে মরাকটাল বলে । বিষুবরেখা হইতে বন্দরাদির দুরত্ব ও চন্দ্র স্বর্ঘ্যের অবনতি অর্থাৎ বিষুবমণ্ডল হইতে দুরত্ব জন্যও জোয়ার ভাটার ইতরবিশেষ হয়। জোয়ার তরঙ্গদ্বয়ের ছুইটী শীর্ষস্থান পরম্পর ঠিক বিপরীত দিকে থাকে। এখন যদি কোন স্থানের অক্ষাস্তর ও বিষুবরেখা হইতে চক্সের কৌণিক দূরত্ব সমান এবং উভয়েই বিষুবরেখার এক পার্শ্বস্থ হয়, তাহা হইলে চঞ্জ যে কোন সময় ঐ স্থানের মস্তকোপরি আসিবে, তখন ঐ স্থানে জোয়ার তরঙ্গের একটা শীর্ষ হইবে । পৃথিবীর অাহিকগতি দ্বারা ঐ স্থানে প্রায় ১২ ঘণ্টা পরে চন্দ্র