পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৩৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বড়ে { ৩৪১' ] ৪, ঘূর্ণবায়ু সকলের গতি পৃথিবীর নানান্থানে নানারূপ, अबन कि ७कइरन ७कहे शङ्काउ छिक्क खिच्न श्हेब्र थोप्क । পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জে ও উত্তর আমেরিকায় ইহাদের গতি ঘন্টার ৯ মাইল হইতে ১৩ মাইল পৰ্য্যন্ত হইয়া থাকে । দক্ষিণভারতমহাসাগরে ইছাদের গতি ১০ মাইল হইতে অনুন ২ মাইল হইয় থাকে। বঙ্গোপসাগরে উহার পরিমাণ ঘন্টার ২ হইতে ৩৯ মাইল ; চীনসাগরে ৭ হইতে ২৪ মাইল, এবং প্রশান্ত মহাসাগরে ১ • হইতে ২৪ মাইল হয় । কোন কোন ঘূর্ণবায়ু এত আস্তে গমন করে যে, ইহাদিগকে স্থির বলিয়া ভ্রম হয়। এইরূপ ঘূৰ্ণবায়ুর ঝড় বহুক্ষণ পৰ্য্যস্ত এক দিক হইতেই প্রবাহিত হয়। e, সচরাচর এই সকল ঝঞ্জাবীতের ব্যাস ৫০•৬•• মাইল ; কধনু, কখন ৫০ মাইল পৰ্য্যস্ত, আবার কোন কোন সময় ১১৯ মাইল বা ততোধিক হইয়া থাকে । গমনকালে কথন আকুঞ্চিত কথন বা প্রসারিত হয় এবং আকুঞ্চনকালে অতি ভীষণ বেগশালী হইয়া উঠে । পশ্চিমভারতীয় দ্বীপপুঞ্জে ঐ বায়ুর ব্যাস সচরাচর ১০০ বা ১৫০ মাইল, কিন্তু আটলাণ্টিক মহাসাগরে আসিলেই উহার প্রসারিত হইয়া পড়ে, তখন কখন কখন ঐ ব্যাস ১ • • • মাইল পৰ্য্যন্ত হয় । বঙ্গোপসাগরে ঝঞ্জাবায়ু সকলের পরিসর সচরাচর ৩• • বা ৩৫০ মাইল । কখন ইহা ৬০ • মাইল আবার কখন ১৫০ মাইলও হইয়া থাকে, শেষোক্ত সময়ে ঝটিকাবেগ ভীষণ রূপে বৃদ্ধি হয় । আরবসাগরে উহার ২৪ • মাইলের অধিক ব্যাসযুক্ত হয় না, বলিয়া অনেকে অনুমান করেন। চীনসাগরের টাইফুন সকলের ব্যাস ৬০।৭• মাইল পৰ্য্যন্ত कुशे ब्रां श्रृंitठ् । ঘূর্ণবায়ু আবৰ্ত্তন করিতে করিতে গমন করে, সুতরাং ঝটিকাচক্রের যে দিকে বায়ুর গতি ও ঘূর্ণবায়ুর গতি একই দিকে হয়, সেইখানে ঝড় সৰ্ব্বাপেক্ষা প্রবল হয়। আবার যেখানে পরম্পর বিপরীত, তথায় ঝড়ের বেগ সৰ্ব্বাপেক্ষা অল্প। এই দুই বিন্দু গমনপথের উভয় পার্থে পরস্পর বিপরীত ভাগে অবস্থিতি করে। আবার ঘূর্ণবায়ু প্রথমে পশ্চিম মুখে এবং শেষে হীনতেজ হইয়া পূৰ্ব্বমুথে গমন করে। স্বতরাং উত্তরগোলান্ধে অগ্রগামী ঘূর্ণবায়ুর ডানদিকের এবং দক্ষিণগোলান্ধে বামদিকের ঝড় সৰ্ব্বাপেক্ষা বেগযুক্ত। ঝড়ের সময় বায়ু যে দিক্ হইতে প্রবাহিত হয়, বাস্তবিক সেই দিক হইতে ঝড় আসে না, অর্থাৎ ঘূর্ণবায়ুর গতি cर्गहे क् िश्रेष्उद्दे श्ञ्ज न। .भूसिहे वण श्हेब्राप्इ हेशब्र চারিদিকে সকল দিক হইতেই বায়ু প্রবাহিত হইয়া থাকে। WII \bوی\ س ! संक्ल ঐ ঝটিকাচক্রের যে অংশ যে স্থানের উপর দিয়া যায়, ঐ অংশে বায়ু যে দিক্ হইতে বহে, সেই স্থানে ও সেই দিক্ হইতে ३फ़ थबांश्उि श्ब ।। ७भन७ श्हे८ऊ *ारब cष शूकर्तनिक् হইতে ঝড় অগ্রসর হইলেও বায়ুর বেগ পশ্চিম, দক্ষিণ প্রভৃতি দিকে হইতে পারে। ঘূর্ণবায়ুর গতি ঘণ্টায় ২ হইতে ৪• মাইল, কখন কখন তাছার অধিক হইয়া থাকে। ইহাদ্বার ঝড়ের বেগ বুঝা যায় না। ঝটিকাচক্রের আবর্তনবেগ ইহা অপেক্ষা অনেক অধিক । এজন্ত কখন কখন ঝড়ের বেগ ঘণ্টায় ৮১৯ মাইল পৰ্য্যন্ত इहेञ्च थां८क ! অনেক সময় ক্ষুদ্র কুদ্র ঘূর্ণবায়ু প্রবল ঝড় উৎপন্ন করিয়া মহা অনিষ্ট সাধন করে। ইহাদের ব্যাস কয়েক গজ হইতে ১ মাইল বা তাহার কিঞ্চিদধিক হইয়া থাকে । ইহারা অধিকক্ষণ থাকে না ; কিন্তু ইহাদের তেজ বড়ই ভয়ানক, দুই চারি ঘন্টার মধ্যেই বৃক্ষ, ঘরদ্বার, মনুষ্য, পশু যাহা সম্মুখে পতিত হয়, তাহাই বিনষ্ট করিয়া ফেলে । এই সকল ঝড় স্বভাবতঃ উৰ্দ্ধসংখ্যা কয়েক ঘণ্টা এক স্থানে বিদ্যমান থাকে । কিন্তু অনেক স্থানে ৮/১৯ বা ততোধিক দিন প্রবল ঝড় প্রবাহিত হয়। ঐ বড় ঘূর্ণবায়ুজনিত নহে, পৃথিবীপৃষ্ঠস্থ সাময়িক বায়ুপ্রবাহ দ্বারা উৎপন্ন হয় । এইরূপে বাণিজ্যবায়ু পশ্চিমমুখে আমেজন নদীপ্রান্তর দিয়া প্রবাহিত হইয়া আনিজ পৰ্ব্বতের নিকট প্রবল হইয়া ঝড়রূপে পরিণত হয়। পাৰ্ব্বত্যপ্রদেশে সাময়িক বায়ুপ্রবাহ নিৰ্ব্বিবাদে চলিতে পায় না, স্বতরাং প্রতিহত হইয় অনেক স্থলে দমকা বাতাস উৎপন্ন করে। আবার উষ্ণবায়ু লঘু হুইয়া উৰ্দ্ধগমনকালে প্রবাহ দ্বারা পৰ্ব্বতোপরি নীত হইলে যদি তথাকার শীতপ্রভাবে পুনরায় শীতল, ঘণীভূত, সুতরাং গুরু হইয় পড়ে ; তবে উহা অধিক ভার হেতু পৰ্ব্বতপার্শ্ব দিয়া বেগে নিম্নদিকে ধাবমান হয়, এইরূপে এক স্থানে ১ • ১২ দিন একই দিক্‌ হইতে ভীষণ ঝড় বহিতে থাকে। ঝড়ের উৎপত্তি সম্বন্ধে পণ্ডিতগণের মধ্যে মতভেদ আছে। প্রফেসর টেলার (Taylor ) সাহেবের মতে স্থানীয় তাপ হেতু কোন স্থানের বায়ু উৰ্দ্ধগত হইলে চতুৰ্দ্ধিক হইতে বায়ুপ্রবাহ ঐ স্থানে ধাবিত হয়, উহাদের পরস্পর প্রতিঘাতে ও পৃথিবীর আবর্তন জষ্ঠ ঘূর্ণবায়ু উৎপন্ন হয়। আবার অনেকে বলেন, পরস্পর বিপরীতমুখী দুইটী বায়ুপ্রবাহের সংঘর্ষণে ইহা উৎপন্ন হয়। মিঃ ব্লাস্টফোর্ড (Blanford) বলেন, কোন কারণে কোন স্থানে বায়ুস্থিত জলীয় বাষ্পরাশি ঘনীভূত হইয়া মেঘে পরিবৰ্ত্তিত হইলে তথাকার বায়ুসাগর অবনত