পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৪৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


守°C%t賓 করিলেন। সেই রাক্ষসের নাম হইতেই সংস্কৃত নাম তঙ্গাপুর ७ उॉमिण ऊझांबूब रुद्देब्रां८छ् । 動 বহুপূৰ্ব্ব হইতে ১৫• • খৃঃ অক্ষা পৰ্য্যস্ত চোলীজগণ এই স্থানে রাজত্ব করিয়াছেন, কিন্তু তঞ্জাবুর নগর ঠিক কোন সময় রাজধানীরূপে পরিণত হইয়াছিল তাহ নির্ণয় করা কঠিন। চোলরাজগণ ত্রিশিরাপল্লীর নিকট ওরেয়ুর নামক शप्न ७व९ हेशद्र क्षैश्न श्हेबांद्र नग्न कूखएषांc१ ब्रांजथांनी স্থাপন করিয়াছিলেন। তঞ্জাবুরে বৃহদীশ্বর মহাদেবের মন্দিরে খোদিত অনুশাসন হইতে জানা যায় যে রাজা কুলোত্তর এই অনুশাসন প্রদান করিয়াছেন। অতএব অনুমান করা যাইতে পারে, যে রাজা কুলোও গ চোল কিংবা তাহার পিতা তঞ্জাবুরে রাজধানী উঠাইয়। অনিয়াছিলেন । সম্ভবতঃ ১৯২৩ হইতে ১০৮ • খৃঃ অকের মধ্যে কোন সময়ে ঐ ঘটনা হইয়া থাকিবে। ডাক্তার বুরনেল সাহেব চোলরাজবংশের যে তালিকা প্রস্তুত করিয়াছেন, তাহা হইতে জানা যায় যে দ্বিতীয় কুলোজুদ চোল ১১৮ খৃঃ অন্ধে তঞ্জাবুর-সিংহাসনে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তাহার শাসনকাল হইতেই তঞ্জাবুরের চোলরাজবংশের অধঃপতন আরম্ভ হইতে থাকে এবং চোলরাজলক্ষ্মী ক্রমে চঞ্চল হয়েন । তঞ্জাবুর-বুদ্ধবারি-চরিত নামক হস্তলিপি পাঠে অবগত হওয়া যায় যে, চোলবংশীয় শেষরাজার নাম বীরশেখর । ইনি প্রভূত পরাক্রমশালী ছিলেন। ত্রিশিরাপল্লী ও মধুবাপুরী ইহার সময়ে তঞ্জাবুর রাজ্যভুক্ত হয়। মধুরাপুরীর সিংহাসনচ্যুত রাজা চন্দ্রশেখর বিজয়নগররাজের সাহায্য প্রার্থনা করিলেন । বিজয়নগরাধিপতি কৃষ্ণরায় তাহাকে মধুরাপুরীতে পুনঃস্থাপন করিবার জন্ত কতিয়ান নাগ-নায়ক নামক জনৈক সেনাপতির অধীনে একদল সৈন্ত পাঠাইলেন। এদিকে বীরশেখরও যুদ্ধার্থ প্রস্তুত হইলেন। মধুরাপুরীর নিকট উভয় পক্ষের তুমুল যুদ্ধের পর তঞ্জাবুরের রাজা প্রাণ পরিত্যাগ করিলেন। মধুরাপুরী, ত্রিশিরাপল্লী ও তঞ্জাবুর বিজয়নগরের অধীন হইল। ১৫৩০ খৃঃ অস্বে অচ্যুতরায় বিজয়নগরের সিংহাসনে অধিরোহণ করেন। ইহর গুলিকার সহিত সেবাপ্পানায়কের বিবাহ হয় । এই সম্বন্ধ হেতু উক্ত বর্ষে অচ্যুতরায় মেবাপ্পানায়ককে তঞ্জাবুর ও ত্রিশিরাপল্লীর শাসনকৰ্ত্ত করিয়া পঠাইলেন । র্তাহ হইতে তঞ্জাবুরের নায়ক-রাজবংশের উৎপত্তি হয়। নায়ক-রাজগণ प्zथभङ: दिछन्ननश्रृंtप्रब्र स्रषैौ८नहे ब्रांसद्ध कब्लिtङन। किन्नु ०८७8 খৃঃ অন্ধে বিজাপুররাজ কর্তৃক বিজয়নগরের রাজাদিগের ধ্বংস সাধিত হইলে সেই সময় হইতে ১৬৬২ খৃঃ অন্ধ পৰ্য্যন্ত উক্ত WII [ 8१७ ] ) పిసి তঞ্জেীর ब्रांज*१ प्रांपैौनसांद्रद उबांबूझ *ांगन कब्रिब्राहिागन ।। ७हे রাজগণের সময়ে অকৃণভোঙ্গা,পছকোটে,কৈলাসিবাই প্রভৃতি । কয়েকট দুর্গ ও কর্তকগুলি দেবমন্দির নির্মিত হইয়াছিল। নায়ক রাঙ্গাদিগের সময়ে ১৬১২ খৃঃ অশ্বে পর্তুগীজগণ নগ্ন গন্তনে এবং ১৬২ জন্মে দিনেমারের ট্রাকুইবার নামক श्tन श्रांतां★ श्[*न कtद्र । যখন নায়কবংশের চতুর্থ রাজা বিজয়রাঘব তঞ্জাবুর সিংহাসনে অধিরূঢ় ছিলেন, তখন মজুরার শোক্যনাথ নায়ক তঞ্জাবুর আক্রমণ করিবার ছল খুজিয়ী রাজকন্তার কর প্রার্থনা করিয়া দুষ্ক পাঠাইলেন । রাজা তাহা অগ্রাহ করিলে তিনি ১৬৬৭ খৃঃ অব্দে দেলবায় বেঙ্কট-কৃষ্ণাঙ্গা নায়ককে তঞ্জাবুর অধিকার করিতে পাঠাইলেন । সেনাপতি গোবিন্দীক্ষিত বাধা দিলেন ; কিন্তু দেলবীয় তাহাকে পরাভূত করিয়া তঞ্জাবুর দুর্গ অধিকার করিলেন এবং শীঘ্রই রাজবাটীর নিকট আসিয়া উপস্থিত হইলেন। তখন বিজয়রাঘব ধ্যানে নিমগ্ন ছিলেন । ধ্যানভঙ্গের পর সমস্ত অবগত হইয় তাহার বীরপুত্রকে আজ্ঞা দিলেন, রাজবাটীর সমস্ত মহিলাকে একগৃহে রাখিয় তাহার চতুঃপাশ্বে বারুদ সংগ্ৰহ করিয়া রাখ, সঙ্কেত পাইলে তাহাতে অগ্নি দিয়া আসি হস্তে যুদ্ধাৰ্থ বাহিরে অসিও । বিজয়রাঘব যুদ্ধ করিতে করিতে নিহত হইলেন। এদিকে পুত্র পিতার নিধনবাৰ্ত্ত অবগত হইয়া অন্দরমহলে বারুদে অগ্নি প্রদান করিলেন। তঞ্জাবুর শ্মশানভূমে পরিণত হইল। রাজবাটীর দক্ষিণপশ্চিমকোণে এই ব্যাপার ঘটিয়াছিল। এই অংশ এখনও সেইরূপ ভগ্নাবস্থায় থাকিয়া অতীত দুর্ঘটনা স্মরণ করাইয়া দিতেছে। তঞ্জাবুর বিজিত হইলে শোক্যনাথনায়ক একস্তনপায়ী এলাগিরিকে তথtয় শাসন-কর্তা নিযুক্ত করিলেন । এলাগিরি প্রথমে শোক্যনাথের অধীনে শাসন করিতে লাগিলেন ; কিন্তু কিছুকাল পরে তাহার সহিত মনাস্তর ঘটায় স্বাধীন হইলেন । তঞ্জাবুরের রাজবাটী বারুদে উড়িয়া যাইবার পুৰ্ব্বে ধাত্রী বিজয়রাঘবের একটী নবালক পুত্র,ক লইয়া নগ্নপত্তনে পল;ইয়া আইসে। এই বালকট জনৈক শেটর অtলয়ে বৃদ্ধি পাই:তছিল । ৫৭ বৎসর পর বিখয়রাঘ৭ রায়ের অন্ততম রয়,সম ( সেক্রেটরী ) বেনকন্ন নামক কোন নিয়োগী ব্রাহ্মণ বtলকটীর সন্ধান প। ইয়া স্বগীয় রাজার কয়েক জন অtষ্ট্ৰীয়ের সাহায্যে উক্ত বালক ও ধাত্রীকে লইয়া বিজাপুরে গমন করিলেন । বিজাপুরের সুলতান সমস্ত ব্যাপার শ্রবণ করিয়া তঞ্জাবুরের নায়কদিগের দুঃখে অত্যন্ত দুঃখিত হইলেন । ५झे नमग्न *ि१॥भिग्न कनिई टेदभाcबन चाङt ५८कांछि विमा