পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৬০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তাজক তাঙ্গা ( দেশজ ) এক প্রকার ঘাস । তাচ্ছল্য ( দেশজ ) হেলা, অবজ্ঞা, উপেক্ষ, অশ্রদ্ধা । তাচ্ছীলিক (পুং ) তচ্ছালার্থে-বিহিতঃ, ঠঞ। তচ্ছালার্থ বিহিত্ত-প্রত্যয় । তাচ্ছীল্য (ক্লী) তৎ শীলং যন্ত তন্ত ভাব ব্যঞ নিয়ততৎ স্বভাব, তচ্ছীলতা । তাজ্ব (পারসী) , শিরোভূষণ, টুপি ৷ ২ একপ্রকার শিরদ্বাণ, মূলতঃ অগ্নি-উপাসকের শিরস্ত্রাণকে বুঝায়। মধ্যএশিয়ার অধিবাসিগণ এই টুপি ব্যবহার করে, ইহা দেখিতে বৃত্তাকার । ভারতবর্ষের মুসলমানদিগের মধ্যে ইহার সমধিক প্রচলন আছে । মুসলমানদিগের প্রবেশাবধি ভারতে এই টুপি দৃষ্ট হয়। ভারতবর্ষীয় হিন্দুদিগের মধ্যেও অনেকে তাজ ব্যবহার করিয়া থাকেন। তবে হিন্দুতাজ ও মুসলমানী তাজে কিছু পার্থক্য আছে । বৃত্তাকার ব্যতীত দুইভাগে বিভক্ত অৰ্দ্ধচন্দ্রাকার তাজও ব্যবহৃত হইয়া থাকে। মুসলমানদিগের অনেক তাজে জরির কাজ থাকে । তাজ, স্বনাম প্রসিদ্ধ তাজমহল সময় সময় তাজ নামে আখ্যাত হইয়া থাকে । [ তাজ-মহল দেখ। ] তাজপরাকাঠি, বোম্বাই বিভাগে বোউড় ও গধার অঞ্চলবাসী এক জাতি। সামতের পুত্র মগাল খাছর ইহাদের আদিপুরুষ । তাজক ( ক্লী ) জ্যোতিধের গ্রন্থ বিশেষ, ইহাতে বর্ষ, লগ্ন প্রভৃতির বিষয় নিরূপিত হইয়াছে। “ন স্তাচ্ছভং কচন তাজকশাস্ত্রগীতং” (নীল তা” ) { তাজিক দেখ । ] তাজক, ইরাণীয় জাতিবিশেষ। বোখারার খানেতে ও বদক্সানে ইহাদিগকে বেশী দেখা যায়। ইহাদের মধ্যে অনেকে খোকন, খিবা, চীনতাতার এবং আফগানিস্থানে বাস করে । তাজক শব্দের উৎপত্তি-নির্ণয় করা অতীব মুকঠিন। উজবক, হাজার, আফগান, ব্রহুই ও তুর্কশাসিত প্রদেশে যাহারা স্থায়ী ভাবে বাস করে, তাজক সাধারণতঃ তাহীদের প্রতিই প্রযুক্ত হইয়া থাকে। সমস্ত প্রদেশে তুর্কি, পুস্তু, ব্রহুই এবং বেলুচি ভাষা ব্যবহৃত, মোটের উপর পারস্তই প্রচলিত। আফগানিস্থান ও তুর্কিস্থানে যে সকল অধিবাসীর জাতিগত छांया *ांद्रश ठांशग्न उांछक ७ *ांब्रनिदन ठेछन्न नां८भहे পরিচিত। পারস্তদেশে তাজক ও ইলিয়ত এই দুইট বিপরীত অর্থবোধক সংজ্ঞা প্রচলিত আছে। তথায় সৰ্ব্বত্রই WII :d: { لا ه ش ] ७ोछक डॉछ कि বলিলে नश्ब्रदानैौष्क मां दूकाहेब्रा झषकएक दूकाग्र । বোখায়ার এই জাতি সত, আফগানস্থানে দেহান এবং বেলুচিস্থানে মেহবার নামে খ্যাত। কাবুল নদীর তটবর্তী ইরাণীরদিগকে কাবুলি কহে । সিস্তানের অধিকাংশ অধিবাসীই ठांजक । हेशग्ना छुभाशनिऊ कूछैौरग्न बान, भ९श ७ श्रृंचौ ধৃত করিয়া জীবন যাপন করে। তুর্ক আক্রমণের পূৰ্ব্বেই বদক্সানে তাজকগণ বাস করিত । এই স্থানের ইরাণীয়গণ পৰ্ব্বতে, উপত্যকায় ও উষ্ঠান-পরিবেষ্টিত পল্লিতে বাস করে । বদক্সানের তাজকগণ চিত্রলের লোকদিগের স্তায় মুগ্ৰী নহে । ইহাদের পরিচ্ছদ-উজবকাদির স্থায় । বোখারার তাজকগণ স্মরণাতীতকাল হইতে তথায় বাস করিতেছে। ইহারা পূৰ্ব্বে অন্ত ধৰ্ম্মাবলম্বী ছিল। হিজরীর প্রথম শতাব্দীর শেষভাগে ইহাদিগকে বলপূৰ্ব্বক ইসলাম ধৰ্ম্মে দীক্ষিত করা হইয়াছে। বোখারার তাজকগণ লম্বা ও মুতী, ইহাদের চক্ষু ও কেশ কৃষ্ণবর্ণ। ইহার অতিশয় ভীরু, অর্থগং, মিথ্যাবাদী ও বিশ্বাসঘাতক । কেহ কেহ বলেন, তাজ কথা হইতে তাজক কথার উৎপত্তি হইয়াছে। তাজ শব্দের অর্থ অগ্নিপূজকের উষ্ণীষ । কিন্তু তাজকগণ উক্ত ব্যাখ্য' স্বীকার করে না । তাজকগণ কৃষিকাৰ্য্য ও ব্যবসায়ে অধিকতর রূপে নিযুক্ত থাকে ; সভ্যতা ও শিক্ষার আলোচনায় ইহার বিরত নহে। ইহাদের যত্বেই মধ্যএসিয়াস্থ বোখার ৮-৭ভর্তিা ও উন্নতির কেন্দ্রস্থল হইয়াছে । বহুকালাবধি ইহার মানসিক উন্নতির জন্ত সচেষ্ট আছে এবং অসভ্য বিজেতৃগণ কর্তৃক প্রপীড়িত হইয়াও তাহাদিগকে সভ্যতা শিক্ষা দিয়াছে। মধ্যএশিয়ার অধিকাংশ মহৎ ব্যক্তিই তাজক-বংশসস্তৃত । বোখার ও থিবীর প্রধান প্রধান ব্যক্তি সকলেই কাজক । তাজক ও সর্বদিগের দেহ-গন্ত অনেক বৈষম্য লক্ষিত হয় । ভম্বেরি সাহেব বলেন, পারসিক ক্রীতদাসীর সহিত সর্ব পুরুষের বিবাহপ্রথা প্রচলিত থাকায় সর্বদিগের আকৃতি थुक्दै श्हेब्र[८छ् । মধ্যএসিয়ার জাবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সকলেই কবিতা ও গল্প বলিতে ভালবাসে । এই স্থানের সাহিত্য বৈদেশিক অলঙ্কারে পরিপূর্ণ। স্থানীয় মোল্লা ইসানগণ অনেক ধৰ্ম্মবিষয়ক গ্রন্থ লিখিয়াছেন । কিন্তু সমস্তগুলিই দুৰ্ব্বোধ—সাধারণ লোকে এ পুস্তকের মধ্যে আদে প্রবেশ করিতে পারে না । তাজকদিগের পুস্তক-লিখিত দৃষ্টান্তগুলি বিদেশীয় ছাচে চালা। উজর্বক, তুর্ক ও বিরধিত্বগণ অতিশয় সঙ্গীতপ্রিয়। श्रीर्नकारण हेशत्र मृश् ब्राशिनै शब्रिछा थारक । उज३कनिtअब्र