পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৬৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


बांशत्रौग्न বুৰিতে পারির পিতার নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করিয়াছিলেন। ১৬০৫ খৃঃ অন্ধে মৃত্যুশয্যায় শরিত হইয়া অকৃবর পুত্রকে ডাকিয়া পাঠাইলেন । রাজ্যের প্রধান প্রধান আমীর ওমরদিগের সাক্ষাতে সলিমকে সম্রাটুপদে মনোনীত করিয়া उँकृष्क ब्रांस्यूंকীয় পরিচ্ছদ, উষ্ণীষ ও তরবারী দ্বারা সজ্জিত করিতে অমুমতি দিলেন । : ১•১৪ হিজর ৮ই জুমাদসানি (১৬০৫ খৃঃ অব ১২ই অক্টোবর) বৃহস্পতিবার সলিম ৩৮ বর্ষ বয়ঃক্রমকালে আগ্রাদুর্গে পিতৃসিংহাসনে অভিষিক্ত হইয়া ‘জাহাঙ্গীর অর্থাৎ "বিশ্ববিজয়ী’ উপাধি ধারণ করিলেন । আগ্রাদুর্গে দিল্লী-দরজায় একখানি পাথরে লিখিত। শেষ ছত্রে লিখিত আছে, “আমাদের রাজা জাহাঙ্গীর জগতের রাজা হউন ১০১৪ ” জাহাঙ্গীরের অভিষেক উপলক্ষে যাহারা আনন্দস্তুচক কবিতা রচনা করিয়াছিলেন, সেই কবিদিগকে ও দরিদ্রদিগকে বহু অর্থ বিতরণ করা হইয়াছিল। জাহাঙ্গীর সিংহাসনে আরোহণ করিয়া মিরপক্ষভাবে ও শান্তিময়ী রাজনীতিতে শাসন করিবেন বলিয়া ঘোষণা করিলেন । কিন্তু তাহার অসৎ চরিত্র এ বিষয়ে তাহার প্রধান অন্তরায় হইল। তাহার আস্তরিক ইচ্ছা স্বত্ত্বে ও তিনি সুন্দর ও স্বগৃঙ্খলভাবে রাজ্যশাসন করিতে পারেন নাই । কিন্তু শাসনকার্য্যে বিশৃঙ্খল হইলেও আকবরের প্রতিষ্ঠিত সাম্রাজ্যের ভিত্তি তখনও অতিশয় দৃঢ় ছিল যাহা হউক, জাহাঙ্গীর সম্রাটু হইয়া স্বশাসনের কতক আভাস দিলেন। পূৰ্ব্বে সকলের ভাগ্যে সম্রাটের সহিত সাক্ষাৎ ঘটিত না ; কোন বিচারপ্রার্থী সম্রাটের সম্মুখে যাইতে পারিত না কৰ্ম্মচারিদিগকে যৌতুক অথবা উৎকোচ না দিলে কাহারও অভিযোগ সম্রাটের কর্ণগোচর ও হইত না । এই অসুবিধা দুর করিবার নিমিত্ত এবং যাহাতে সকলেই সহজে সুবিচার পাইতে পারে, তজ্জন্য নবীন সম্রাট একগাছি সোণার শিকল প্রস্তুত করাইলেন। তাহার একদিক্ রাজপ্রাসাদের বপ্রের সহিত, অপর দিক নদীতীরস্থ একখানি প্রস্তরের সহিত সম্বন্ধ ছিল। এই শিকলগাছি ৩০ গজ লম্বা ও ইহাতে ৬০টা সোণার ঘণ্টা বাধা । এই ঘণ্টাগুলি সম্রাটের গৃহের ঘণ্টাগুলির সহিত সংযুক্ত ছিল । যে কোন ব্যক্তি এই শিকল ধরিয়া ঘণ্টা নাড়িলেই সম্রাটু জানিতে পারিতেন এবং সম্রাটু সন্মুখে নীত হইতেন। যে কোন ব্যক্তি ঘণ্টা নাড়িয়া [ ७8 ]

  • ऊँश्ांशैब्र

गबाट ब्र निक दिल्लॉब्र थांर्थना कब्रिtङ नॉब्रिाउन । शृउब्रांश কৰ্ম্মচারিগণ উৎপীড়িত ব্যক্তিদিগের নিকট হইতে কোনরূপ উৎকোচ গ্রহণ করিতে পারিত না এবং উৎপীড়িত ব্যক্তিগণ কৰ্ম্মচারিদিগের অনিচ্ছা হইলেও সম্রাটের নিকট উপস্থিত इहेष्ठ श्रांब्रिाउन । r - বাদশাহ শুষ্ক আদায়ের অনেক দোষ সংস্কার করিcगन । डिनि उभूषा ख भैौद्रवाऊँौ नाभरू कब्रहग्न ॐाहेब्र দিলেন এবং জায়গীরদারগণ প্রজাদিগের নিকট হইতে যে সমস্ত অন্তায় কর লইতেন, তাহাও রহিত করিলেন। লোকালয় হইতে দূরবর্তী পথে ও যে সমস্ত পথে চোর ডাকাইতের উপদ্রব ছিল, সেই সকল স্থানে সরাই নিৰ্ম্মাণ ও কূপ খনন করিতে জায়গীরদারদিগকে আদেশ করিলেন এবং খালিসা জমীর নিকটবৰ্ত্তী স্থানে সরাই নিৰ্ম্মাণ ও কূপ খনন করিবার জন্ত রাজকৰ্ম্মচারিদিগকেও আদেশ দিলেন । বণিকদিগের বিনাম্নমতিতে কেহ তাহাদিগের পণ্য দ্রব্য খুলিতে পারিবে না, কোন সৈন্ত অথবা রাজকৰ্ম্মচারী গৃছে বাস করিতে পারিবে না, কেহ মাদক দ্রব্য প্রস্তুত, ব্যবহার ও বিক্রয় করিতে পরিবে না, কোন জায়গীরদার কোন প্রজার সম্পত্তি বলপূৰ্ব্বক গ্রহণ করিতে পরিবে না, অথবা সম্রাটের বিনামুমতিতে প্রজাসাধারণের সহিত মিলিত হইতে পরিবে না । এই সকল নিয়ম হইল । পূৰ্ব্বে সম্রাটের আদেশে সময় সময় অপরাধিদিগের নক কাণ কাটিয়া দেওয়া হইত। জাহাঙ্গীর সে প্রথা একবারে রহিত করিলেন । তিনি প্রধান প্রধান সহরে হাসপাতাল স্থাপন করিলেন ; উত্তমরূপ চিকিৎসার জন্য উপযুক্ত চিকিৎসক নিযুক্ত করিয়া দিলেন। প্রতি সপ্তাহে তাহার অভিষেক দিবসে ( বৃহস্পতিবার ) ও তাহার পিতার জন্মদিনে ( রবিবার ) পশুহত্যt মিবারিত হইল । $ তিনি তাহার পিতার কৰ্ম্মচারিদিগের গুণানুসারে মন্‌সব ও জায়গীর কিছু কিছু বৃদ্ধি করিয়া দিলেন। বহুদিন পর্য্যস্ত যাহার কারারুদ্ধ ছিল, তাহাদিগকে মুক্ত করিয়া দিলেন। তাহার পিতার কৰ্ম্মচারিদিগের অধিকাংশকেই স্বপদে রাখিলেন ; কিন্তু যাহারা অকৃবর প্রবর্ভুিত ধৰ্ম্মমত অবলম্বন করিয়াছিল, তাহাদিগকে পদচ্যুত করিলেন। পূৰ্ব্বে যেরূপ ইসলাম্ ধৰ্ম্মের আচার ব্যবহার ছিল, সেই নিয়ম অনুসারে প্রজাদিগকে : চলিতে আজ্ঞা প্রদান করিলেন । তাছার প্ৰিয়বন্ধু সরিকথাকে প্রধান মন্ত্রী ও সৈয়ন্থখাকে,পঞ্জাবের শাসনকর্তা নিযুক্ত করিলেন । { r