পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৭১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তালকেশ্বর { নেবুর রসে ও চুণের জলে দ্বাদশ প্রহর ভাবনা দিয়া ধুইয়া দ্বিগুণ শান্মলার ক্ষার মধ্যে রাখিয়া কবচৗযন্ত্রে বালুকাদ্বারা উৰ্দ্ধদেশ পূর্ণ করিয়া ১২ প্রহর পাক করিয়া শীতল হইলে গুড়। কপ্লিবে। ইহা এক রতি মাত্রায় সেবনীয় । ইহাতে কুষ্ঠ, শ্লীপদ প্রভৃতি রোগ আরোগ্য হয়। (রসেক্সসারসংগ্রহ ) তালমেব কাল্পতি কৈ-ক । ২ দ্বারকপাট, রোধনষন্ত্র, তালা, চাবি। ৩ তুরবিকা। স্বার্থেক । ৪ তালবৃক্ষ । তালকট (পুং) দেশভেদ, কোন পুস্তকে ইহার নাম তালিকটও দেখা যায়। এই দেশ দক্ষিণে এবং ১২।১৩।১৪ নক্ষত্রে অবস্থিত । ( বৃহৎসংহিতা ১৪।১১ ) [ তালিকোট দেখ। ] তালকন্দ ( ক্লী) তালন্তেব কনমিস্ত । তালমুলী । “কসেরুকোবিদfরঞ্চ তালকনং তথামিষং” ( প্রায়-তত্ত্বধৃত বায়ুপু: ) তালকনাং তালমুলীতি প্রসিদ্ধং ( রঘুনন্দন ) তালকাভ (পুং ) তালকস্ত হরিতালন্ত আভাইব আভাযস্ত বহুত্রী । হরিদ্বর্ণ । ( ত্রি ) হরিদ্বর্ণযুক্ত । তালকী ( স্ত্রী) তালকস্ত ইয়ং অণু উীপ্‌। তালজ মদ্যভেদ, তাড়ী। ( ত্রিকা” ) তালকেতু (পুং) তালস্তালচিহ্নিত কেতুরস্ত। ভার। “তাসাং প্রমুখতো ভীষ্ম তালকেতু ব্যরেচিত।” (ভারত উৎ ১৪৯অ') তালকেশ্বর (পুং ) ঔষধ বিশেষ ; প্রস্তুত প্রণালী-হরিতাল ২ মাষা, কুমড়ার রস, ত্রিফলার জল, তিল তৈল, ঘৃতকুমারীর রস ও কাঞ্জিতে ভাবনা দিবে। পরে গন্ধক ২ মাষা ও পারদ ১ মাষা, উভয়ে কজলী করিয়া ঐ কজ্জলীর সহিত, উল্লিখিত হরিতাল ২ মাষা মিশ্রিত করিয়া ছাগদুগ্ধে লেবুর রসে ও ঘৃতকুমারীর রসে যথাক্রমে তিনদিন ভাবনা দিবে। পরে শুষ্ক ও চক্রাকার করিয়া হঁাড়ির মধ্যে পলাশের ক্ষারের ভিতর স্থাপন করিয়া ১২ প্রহর পাক করিবে । শীতল হইলে উদ্ধৃত করিয়া লইতে হইবে । মাত্রা ২ রতি। ইহাতে কুষ্ঠ, বাত, ਾ ৪ রণরোগ প্রশমিত হয়। (ভৈষজ্যরত্না" ) আর এক প্রকার—কিছু হরিতাল, চাকুনে পত্রের রসে ও শরপুঙ্খ পত্রের রসে পুনঃ পুন: মাড়িয়া ও শুষ্ক করিয়া পলাশ ক্ষারপূর্ণ স্থালীর মধ্যে রাখিয়া পুটপাক দিতে হইবে, যেন হরিতালের নিম্ন ও উপর উভয়দিকেই ঐ ক্ষার থাকে। অহোরাত্র পাক করিলে হরিতাল ভয় হইবে । যখন উহু শুক্লবৰ্ণ হইবে এবং অগ্নিতে নিক্ষেপ করিলে ধূমোদগম হইবে ন, তখন জানিবে, যে হরিতাল ভস্ম হইয়াছে। এইরূপে প্রস্তুত করিয়া এই ঔষধ সেবন করিলে কুষ্ঠাটিধোগের শান্তি হয়। ইহার মাত্রা ১ ঘৰ। এই ঔষধ সেবনে , মহুর, cइोग ७ भूुन्न उहेण °५ । (हेछदलाङ्गङ्गा” कूछ्रेषिकोब्र) [ १४७ ] তালচের রসেঙ্গলারের মতে, হরিতাল, পারা, গন্ধক, লৌহ, অস্ত্র, বঙ্গ, সমভাগ মধুতে মর্দন করিয়া ১মাৰা পরিমাণে বটা প্রস্তুত করিতে হইবে। অম্বুপান পাক যজ্ঞডুমুর এক তোলা ও মধু, অথবা কেবল মধুর সহিত ८णवनौङ्ग । क्षरॆ बॆष:५ १छ्भूय রোগ আগু প্রশমিত হয় g (রমেশ্ৰসারস) তালক্ৰোশা ( দেশজ ) বৃক্ষভেদ । - ऊांलक्रौद्र (१९) ठाणजाउ१ कीब्रभिद उजङ्गां९ । *र्कब्र ভেদ, তালের চিনি । ( রাজনি" ) তালক্ষীরক (ক্লী) তালক্ষীর স্বার্থে কন্‌। তালের চিনি । তালগাওঁ (পুং ) তালন্ত গর্ড: ৬তৎ। তালমজ্জা, তালের মাথি । “ঝষপিত্তমৃগাশ্ববস্তম্বুশ্বৈংকরিহস্তচ্ছিদয়ে সভ্যতালগর্ভৈঃ ” ( বৃহৎসং ৫০২৪ ) তরবারিতে যদি তালের মাথির পান দেওয়া যায়, তাহা হইলে সেই তরবারি দ্বারা হস্তিপ্তও ছেদ করা য়ায় । তালঘাট, দাক্ষিণাত্যে বোম্বাই হইতে নাসিক যাইবার পথে অবস্থিত একট প্রধান গিরিপথ, সমুদ্র হইতে ১৯১২ ফিটু উচ্চ ও ইহা হইতে নিকটবর্তী গিরিচুড়া প্রায় ৩২৪১ ফিট্‌ উচ্চ। অক্ষা ১৯° ১৪’ উঃ, দ্রাঘি" ৭৩ ৩৩ পূঃ । তালঙ্ক ( পুং ) তাড়ঙ্ক ডস্তল । ভূষণ বিশেষ । ( শব্দার্থচিন্তা” ) তালচর (পুং ) ১ দেশভেদ । ২ তদেশবাসী । ৩ তালচর দেশের রাজ। “অন্ধ স্তালচরাশ্চৈব চুচুপারেণুপাস্তথা।” ( ভারত উ• ১৩৯ অ” ) তালচের, উড়িষ্কার দেশীয় রাজার অধীন একটা গড়জাতমহল। এই রাজ্যের উত্তরে পাললহরা, পূৰ্ব্বে ধেকানল, দক্ষিণ ও পশ্চিমে অঙ্গুলরাজ্য। অক্ষা ২৩° ৪২' ৩•র্ণ হইতে ২১• ১৮ উঃ, এবং দ্রাঘি" ৮৪° ৫৭% হইতে ৮৫• ১৭ ৪৫% পুঃ । ভূপরিমাণ ৩৯৯ বর্গমাইল । লোকসংখ্যা প্রায় চল্লিশ হাজার । এখানে কয়লা ও লৌহের খনি আছে, যেখানে ব্রাহ্মণী নদী পাললহর ও ধোকানল হইতে তালচের রাজ্য পৃথক্ হইয়াছে, সেইখানে নদীতীরে চুণ পাওয়া যায়। এখানে নদীর বালি ধুইয়া স্বর্ণরেণু সংগৃহীত হয়। এই রাজ্যের মধ্যে ব্রাহ্মণীনদীতীরে অবস্থিত তালচের নগরই প্রধান । এখানে রাজধানী ও ৫০০ ঘর লোকের বাস । তালচের-রাজগণ বলিয়া থাকেন যে, ৫ • • বর্ষ অতীত হইল, অযোধ্যারাজের এক পুত্র এখানে আসিয়া অসভ্য অধিবাসীদিগকে তাড়াইয় রাজ্যস্থাপন করেন। বর্তমান ब्राणां ऊँीशग्नई बश्*षन्न । अत्रूग-बिं८झाररुद्र नभग्न ७थानकांब्र রাজ, বৃটিশগবমেণ্টকে সাহায্য করায় ‘মহেন্দ্র বাহাদুর” উপাধি লাভ করেন। " .