পাতা:বিশ্বপরিচয়-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিশ্বপরিচয় ব’লে মনে হয় । গণিতশাস্ত্ৰ নাক্ষত্রিক হিসাবটার উপর দিয়ে সংখ্যার যে ডিম পেড়ে চলে সে যেন পৃথিবীর বহুপ্রস্থ কীটেরই নকলে । সাধারণত আমরা দূরত্ব গনি মাইল বা ক্রোশ হিসাবে, নক্ষত্রদের সম্বন্ধে তা করতে গেলে অঙ্কের বোঝা তুৰ্বহ হয়ে উঠবে। সূর্যই তো আমাদের কাছ থেকে যথেষ্ট দূরে, তার চেয়ে বহু লক্ষগুণ দূরে অাছে নক্ষত্রের দল, সংখ্যা দিয়ে তাদের দূরত্ব গোনা কড়ি দিয়ে হাজার হাজার মোহর গোনার মতো । সংখ্যা-সংকেত বানিয়ে মানুষ লেখনের বোঝা হালকা করেছে, হাজার লিখতে তাকে হাজারটা দাড়ি কাটতে হয় না । কিন্তু জ্যোতিষ্কলোকের মাপ এ সংকেতে কুলোল না। তাই অার এক সংকেত বেরিয়েছে। তাকে বলা যায় আলোচলার মাপ | ৩৬৫ দিনের বছর হিসাবে সে চলে পাচ লক্ষ আটাশি হাজার কোটি মাইল । সূর্য প্রদক্ষিণের যেমন সৌর বছর তিনশো পয়ষটি দিনের পরিমাপে, তেমনি নক্ষত্রদের গতিবিধি, তাদের সীমাসরহদের মাপ, আলো-চলা বছরের মাত্রা গণনা ক’রে । অামাদের নাক্ষত্ৰজগতের ব্যাস অণন্দাজ একলক্ষ অালো-বছরের মাপে । আরো অনেক লক্ষ নাক্ষত্রজগৎ আছে এর বাইরে । সেই সব ভিন্ন গায়ের নক্ষত্রদের মধ্যে একটির পরিচয় ফোটোগ্রাফে ধরা হয়েছে, হিসেবমতে সে প্রায় পঞ্চাশলক্ষ আলো-বছর দূরে । আমাদের নিকটতম 4 8v