পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোবিন্দ । নয়নরায় | গোবিন্দ । এ তো নহে মোগলের দল । ত্রিপুরার রাজপুত্র রাজা হতে করিয়াছে সাধ, তার তরে যুদ্ধ কেন ? রাজ্যের মঙ্গল— রাজ্যের মঙ্গল হবে ? দাড়াইয়া মুখোমুখি দুই ভাই হানে ভ্রাতৃবক্ষ লক্ষ্য করে মৃত্যুমুখী ছুরি— রাজ্যের মঙ্গল হবে তাহে । রাজ্যে শুধু সিংহাসন আছে— গৃহস্থের ঘর নেই, ভাই নেই, ভ্রাতৃত্ববন্ধন নেই হেথা ? দেখি দেখি আরবার— এ কি তার লিপি ? নক্ষত্রের নিজের রচনা নহে । আমি দসু্য, আমি দেবদ্বেষী, আমি অবিচারী, এ রাজ্যের অকল্যাণ আমি ! নহে নহে, এ তার রচনা নহে– রচনা যাহারই হোক, অক্ষর তো তারি বটে। নিজ হস্তে লিখেছে তো সেই । যে সপেরই বিষ হোক, নিজের অক্ষরমুখে মাখায়ে দিয়েছে, হেনেছে আমার বুকে – বিধি, এ তোমার শাস্তি, তার নহে। নির্বাসন ! তাই হোক । তার নির্বাসনদণ্ড তার হয়ে আমি নীরবে বিনম্র শিরে করিব বহন । S ०१