পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জয়সিংহ । অপর্ণ । জয়সিংহ । অপর্ণ । কেবলই একেল ! দক্ষিণ বাতাস যদি বন্ধ হয়ে যায়, ফুলের সৌরভ যদি নাহি আসে, দশ দিক জেগে ওঠে যদি দশটি সন্দেহ-সম, তখন কোথায় সুখ, কোথা পথ ? জান কি একেল কারে বলে ? জানি । যবে বসে আছি ভর) মনে— দিতে চাই, নিতে কেহ নাই । সৃজনের আগে দেবতা যেমন একা । তাই বটে ! তাই বটে । মনে হয় এ জীবন বড়ো বেশি আছে– যত বড়ো তত শূন্য, তত অণবশ্বকহীন । জয়সিংহ, তুমি বুঝি এক ! তাই দেখিয়াছি, কাঙাল যে জন তাহারো কাঙাল তুমি । যে তোমার সব নিতে পারে, তারে তুমি খুঁজিতেছ, যেন ভ্ৰমিতেছ দীনদুঃখী সকলের দ্বারে । এতদিন ভিক্ষণ মেগে ফিরিতেছি— কত লোক দেখি, কত মুখপানে চাই, লোকে ভাবে শুধু বুঝি ভিক্ষাতরে— দূর হতে দেয় তাই মুষ্টিভিক্ষণ ক্ষুদ্ৰদয়াভরে । এত দয়া পাই নে কোথাও— যাহা পেয়ে আপনার দৈন্য অণর মনে নাহি পড়ে । 《