পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হবে । আমি তোদের অস্ত্র এনে দিচ্ছি। গণেশ। অস্ত্র কেন ঠাকুর ? রঘুপতি। মায়ের পুজো বন্ধ করবার জন্য রাজার সৈন্য আসছে। হারু । সৈন্য আসছে! প্রভু, তবে আমরা প্রণাম হই । কানু । আমরা কজনা, সৈন্য এলে কী করতে পারব ? হারু। করতে সবই পারি— কিন্তু সৈন্য এলে এখেনে জায়গা হবে কোথায় ? লড়াই তো পরের কথা, এখানে দাড়াব কোন্‌খানে ? অঙ্কুর । তোর কথা রেখে দে। দেখছিস নে প্রভু রাগে কাপছেন ? তা ঠাকুর, অনুমতি করেন তো আমাদের দলবল সমস্ত ডেকে নিয়ে আসি । হারু। সেই ভালো । অমনি আমার মামাতে ভাইকে ডেকে আনি । কিন্তু আর একটুও বিলম্ব করা উচিত নয়। [ সকলের প্রস্থানোদুম সরোষে রঘুপতি । দাড়া তোরা ! করজোড়ে জয়সিংহ । যেতে দাও প্রভু— প্রাণভয়ে ভীত এরা বুদ্ধিহীন, আগে হতে রয়েছে মরিয়া । আমি আছি মায়ের সৈনিক। এক দেহে সহস্ৰ সৈন্যের বল। অস্ত্র থাক্‌ পড়ে । ভীরুদের যেতে দাও । স্বগত রঘুপতি । সে কাল গিয়েছে । অস্ত্র চাই, অস্ত্র চাই— শুধু ভক্তি নয়। 88