পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সেনাপতি, ডেকে আন ! হায় রঘুপতি, অবশেষে সৈন্য দিয়ে ঘিরিতে হইল ধর্ম । লজ্জা হয় ডাকিতে সৈনিকদল, বাহুবল দুর্বলতা করায় স্মরণ । রঘুপতি । অবিশ্বাসী, সত্যই কি হয়েছে ধারণা কলিযুগে ব্ৰহ্মতেজ গেছে— তাই এত দুঃসাহস ? যায় নাই । যে দীপ্ত অনল জ্বলিছে অন্তরে, সে তোমার সিংহাসনে নিশ্চয় লাগিবে। নতুবা এ মনানলে ছাই করে পুড়াইব সব শাস্ত্র, সব ব্রহ্মগর্ব, সমস্ত তেত্রিশ কোটি মিথ্যা । আজ নহে মহারাজ, রাজ-অধিরাজ, এই দিন মনে কোরো আর-এক দিন । নয়নরায় ও চাদপালের প্রবেশ নয়নের প্রতি গোবিন্দ । সৈন্য লয়ে থাকো হেথা নিষেধ করিতে জীববলি । নয়নরায় । ক্ষমা করো অধম কিঙ্করে— অক্ষম রাজার ভূত্য দেবতামন্দিরে । যতদূর যেতে পারে রাজার প্রতাপ মোরা ছায়া সঙ্গে যাই । চাদপাল । থামো সেনাপতি, দীপশিখা থাকে এক ঠাই, দীপালোক 8ぐり