পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নিশিদিন ধূলি পড়ে দিতেছে আচ্ছন্ন ক’রে চিরসত্য আছে যেথা যত । জীবনের হানাহানি, প্রাণ নিয়ে টানাটানি, মত নিয়ে বাক্য-বরিষন, বিদ্যা নিয়ে রাতারাতি পুথির প্রাচীর গাথি প্রকৃতির গণ্ডি-বিরচন, কেবলই নুতনে আশ, সৌন্দর্যেতে অবিশ্বাস, উন্মাদন চাহি দিন-রাত— সে-সকল ভুলে গিয়ে কোণে বসে খাতা নিয়ে মহানন্দে কাটিছে প্রভাত । দক্ষিণের বারান্দায় বেড়াই মুগ্ধের প্রায়, অপরাহ্লে পড়ে তরুচ্ছায়া— কল্পনার ধনগুলি হৃদয়দোলায় তুলি প্রতিক্ষণে লভিতেছে কায় । সেবি বাহিরের বায়ু বাড়ে তাহাদের আয়ু, ভোগ করে চাদের অমিয়— ভেদ করি মোর প্রাণ জীবন করিয়া পান হইতেছে জীবনের প্রিয় ! এত তারা জেগে আছে নিশিদিন কাছে কাছে, এত কথা কয় শত স্বরে, ᎿᏉ