পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নক্ষত্ররায় । গোবিন্দ । আমারে মারিবে ? এই কথা জাগিতেছে হৃদয়ে তোমার নিশিদিন ? এই কথা মনে নিয়ে মোর সাথে হাসিয়া বলেছ কথা, প্রণাম করেছ পায়ে, আশীৰ্বাদ করেছ গ্রহণ, মধ্যাহ্নে আহারকালে এক অন্ন ভাগ করে করেছ ভোজন এই কথা নিয়ে ? বুকে ছুরি দেবে । ওরে ভাই, এই বুকে টেনে নিয়েছিনু তোরে এ কঠিন মর্তভূমি প্রথম চরণে তোর বেজেছিল যবে— এই বুকে টেনে নিয়েছিনু তোরে, যেদিন জননী, তোর শিরে শেষ স্নেহহস্ত রেখে, চলে গেল ধরাধাম শূন্য করি— আজ সেই তুই সেই বুকে ছুরি দিবি ? এক রক্তধারা বহিতেছে দোহার শরীরে, যেই রক্ত পিতৃপিতামহ হতে বহিয়া এসেছে চিরদিন ভাইদের শিরায় শিরায়— সেই শিরা ছিন্ন করে দিয়ে, সেই রক্ত, ফেলিবি ভূতলে ? এই বন্ধ করে দিনু দ্বার, এই নে আমার তরবারি, মার অবারিত বক্ষে, পূর্ণ হোক মনস্কাম । ক্ষমা করো ! ক্ষমা করো ভাই ! ক্ষমা করো ! এসে বৎস, ফিরে এসো ! সেই বক্ষে ফিরে এসো ! ক্ষমা ভিক্ষা করিতেছ ? এ সংবাদ br8