পাতা:বিসর্জন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপর্ণ । জয়সিংহ । এক কথা শতবার করিছে প্রকাশ । আকাশেতে অর্ধচন্দ্র পাণ্ডুমুখচ্ছবি শ্রান্তিক্ষীণ— বহুরাত্ৰিজাগরণে যেন পড়েছে চাদের চোখে আধেক পল্লব ঘুমভারে । সুন্দর জগৎ ! হা অপর্ণা, এমন রাত্রির মাঝে দেবী নাই ! থাকৃ দেবী। অপর্ণা, জানিস কিছু সুখভরা সুধাভরা কোনো কথা ? শুধু তাই বল। যা শুনিলে মুহুর্তে অতলে মগ্ন হয়ে ভুলে যাব জীবনের তাপ, মরণ যে কত মধুরতাময় আগে হতে পাব তার স্বাদ । অপর্ণা, অমন কিছু বল ওই মধুকণ্ঠে তোর, ওই মধু-আঁখি রেখে মোর মুখপানে, এই জনহীন স্তব্ধ রজনীতে, এই বিশ্বজগতের নিদ্রামাঝে, বল রে অপর্ণা, যা শুনিলে মনে হবে চারি দিকে আর কিছু নাই, শুধু ভালোবাসা ভাসিতেছে, পূর্ণিমার সুপ্তরাত্রে রজনীগন্ধার গন্ধসম । হায় জয়সিংহ, বলিতে পারি নে কিছু— বুঝি মনে আছে কত কথা । তবে আরো কাছে আয়, মন হতে মনে যাক কথা । —এ কা করিতেছি আমি ! অপর্ণা, অপর্ণা, నt