পাতা:বুয়র ইতিহাস - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বুয়রদিগের উৎপত্তি নিমিত্তই এই গ্রন্থের অবতারণ।বিষয়টা সাতিশয় গুরুতর, সুতরাং ইং কতদুর সুসম্পন্ন করিতে পারিব, তাহ৷ এখন বলিতে পারা যায় না। দক্ষিণ আফ্রিকার আদিম অধিবাসিগণ নিতান্ত অসত্য সতির মধ্যে পরিগণিত ছিল। তাহারা ঐ প্রদেশের ভিন্ন ভিন্ন স্থানে জঙ্গল আশ্ৰয় করিয়া বাস করিত। উহারা তিন সম্প্রদায়ে বিভক্ত ছিল। প্রথম বুসমেন ( Bushmen ), দ্বিতীয়—হটেটট (Eotentot ), তৃতীয়—বাল্ট ( Banta )। বুসমেনজাতীয় অধিবাসিগণ কৃষিকাৰ্য্য জানিত না, শীকার লব্ধ জীব জগণের মাংসে অপনাপন উদর পূর্তি করিত। তাহাদিগের অন্ত্রের মধ্যে ছিল,—তীর ও ধন্থঃ । তীরের অগ্রফলকে এক প্রকার বিষ থাকিত। ঐ তীরাগ্রন্থ তীক্ষফলক নিতান্ত অল্পপরিমাণেও কোন জীব জন্তুর অঙ্গে প্রবিষ্ট হইলে, আর তাহার রক্ষ ছিল না ; দেখিতে । দেখিতেই তাহাকে কালগ্ৰাসে পতিত হইতে হইত। ইহার নিতান্ত অসভ্য সত্য কিন্তু ইহার যে ধৰ্ম্ম মানিয়া থাকে, সেই ধৰ্ম্ম হইতে সহজে এমন কি বহু প্রলোভনেও বিদ্যুত হইতে চাচ্ছে না। অষ্টাদশ শতাব্দীতে অনেক খ্যাতনামা পাদরিগণ ইহাদিগকে খ্ৰীষ্টধর্ষে। দীক্ষিত করিবার নিমিত্ত প্ৰাণপণে চেষ্টা করিয়াও কিন্তু একটীকেও তাহাদিগের স্বধৰ্ম্ম পরিত্যাগ করাইতে পারেন নাই। বুসমেন্তি যেমন অসভ্য। হটেন্টটল্পাতি কিম্ব ততটা অসভ্য ছিল না। তবে বুমেনের মধ্যে একবিবাহ প্রথা প্রচলিত। থাকিলেও, হটেস্টট দিগের মধ্যে বহুবিবাহ প্রথা প্রচলিত ছিল। একজন পুরুষ যত ইচ্ছা তত বিবাহ করিতে পারিত । হটেন্টট