পাতা:বেতালপঞ্চবিংশতি.pdf/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৯৮
৯৮
বেতালপঞ্চবিংশতি

তাহাদের অন্বেষণার্থে দেবীর মন্দিরে উপস্থিত হইল এবং উভয়কেই মৃত পতিত দেখিয়া বিবেচনা করিল দৈবদুর্বিপাকে আমার যে দুরবস্থা ঘটিল তাহাতে বোধ করি পূর্ব্ব জন্মে কত পাতক করিয়াছিলাম। বিশেষতঃ বাল্যাবধি বৈধব্যযন্ত্রণা ভোগ করিয়া অসার দেহভার বহন করা বিড়ম্বনামাত্র। আর লোকেও বিশেষ না জানিয়া কহিবেক এই স্ত্রী দুশ্চরিত্রা আপন অভীষ্টসিদ্ধির নিমিত্ত স্বামীর ও স্বামীর বন্ধুর প্রাণনাশ করিয়াছে। অতএব সর্ব্ব প্রকারেই আমার প্রাণত্যাগ করা উপযুক্ত।

এই বলিয়া সেই শোণিতলিপ্ত খড়্গ লইয়া আপন শিরশ্ছেদন করিতে উদ্যত হইবামাত্র দেবী তৎক্ষণাৎ আবির্ভূতা হইয়া তাহার হস্ত ধারণ করিলেন এবং কহিলেন বৎসে আমি তোমার সাহস ও সদ্বিবেচনা দর্শনে প্রসন্ন হইয়াছি বরপ্রার্থনা কর। তন্তুবায়দুহিতা কহিল জননি যদি প্রসন্ন হইয়া থাক এই উভয়ের প্রাণদান কর। দেবী তথাস্তু বলিয়া উভয়ের কলেবরের সহিত শিরঃসংযোগ করিতে আদেশ দিয়া অন্তর্হিতা হইলেন। তন্তুবায়কন্যা কাত্যায়নীর বচনশ্রবণে আহ্লাদে অন্ধপ্রায়া হইয়া একের মস্তক অন্যের শরীরে যোজিত করিয়া দিল। উভয়েই তৎক্ষণাৎ প্রাণদান পাইয়া গাত্রোত্থান করিল।