পাতা:বেতালপঞ্চবিংশতি.pdf/১৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১৫৬
১৫৬
বেতালপঞ্চবিংশতি

ব্যক্ত করিলেন। মলয়কেতু স্বীয় পুত্ত্র মিত্রাবসুকে আহ্বান করিয়া কহিলেন তোমার ভগিনী বিবাহযোগ্যা হইয়াছে আর নিশ্চিন্ত থাকা উচিত নহে সমুচিত পাত্র অন্বেষণ করিতে হইবেক। শুনিলাম গন্ধর্ব্বাধিপতি রাজা জীমূতকেতু রাজ্যাধিকার পরিত্যাগপূর্ব্বক কেবল নিজ পুত্ত্র জীমূতবাহনকে সমভিব্যাহারে লইয়া মলয়াচলে আসিয়া বাস করিয়াছেন। আমার অভিপ্রায় জীমূতবাহনকে কন্যাদান করি। অতএব তুমি রাজা জীমূতকেতুর নিকটে গিয়া আমার মানস প্রকাল কর।

মিত্রাবসু পিতার আজ্ঞানুসারে জীমূতকেতুসমীপে সবিশেষ সমস্ত কহিলে তিনি সম্মত হইলেন এবং জীমূতবাহনকে মিত্রাবসুর সমভিব্যাহারে মলয়কেতুর নিকট পাঠাইয়া দিলেন। মলয়কেতু শুভ লগ্নে স্বীয় কন্যা মলয়বতীর বিবাহকার্য্য সম্পন্ন কয়িলেন। বর কন্যা পরম সুখে কালক্ষেপ করিতে লাগিলেন।

এক দিন জীমূতবাহন ও মিত্রাবসু উভয়ে মলয়মহীধরপরিসরে ভ্রমণ করিতে বাসনা করিয়া বাসস্থান হইতে বহির্গত হইলেন। ভূধয়ের উত্তর ভাগে উপস্থিত হইয়া দূর হইতে এক শ্বেতবর্ণ বস্তুরাশি দর্শন করিয়া জীমূতবাহন মিত্রাবসুকে জিজ্ঞাসা করিলেন বয়স্য গণ্ডশৈলের ন্যায়