পাতা:বেতালপঞ্চবিংশতি.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৩৭
বেতালপঞ্চবিংশতি

 এই রূপে কতিপয় দিবস অতীত হইলে রাজকুমার নিজ রাজধানী গমনের অভিপ্রায় প্রকাশ করিলেন। রাজকন্যা কোন ক্রমেই সম্মত হইলেন না। ক্রমে ক্রমে প্রায় মাস অতীত হইল রাজকুমার তথাপি অনুমতি লাভ করিতে পারিলেন না। এখানে রাজা প্রতাপমুকুট এতাবৎ দিবস পর্য্যন্ত প্রাণাবিকপ্রিয় পুত্ত্রের কোন উদ্দেশ না পাইয়া শোকাকুল হইয়া দেশ বিদেশ অন্বেষণ করিতে দূত প্রেরণ করিলেন। রাজপুত্ত্র গমনবিষয়ে নিতান্ত নিৰুপায় হইয়া একান্ত চিন্তাকুল হইলেন। এক দিবস তিনি নির্জনে বসিয়া ভাবিতে লাগিলেন আমি অকিঞ্চিৎকর ইন্দ্রিয়সুখপরতন্ত্র হইয়া পিতা মাতা আত্মীয়গণ জন্মভূমি প্রভৃতি সকল পরিত্যাগ করিলাম। আর যে জীবিতাধিক বান্ধবের বুদ্ধিকৌশলে ঈদৃশ অসুলভ সুখসম্ভোগে কালহরণ করিতেছি মাসাবধি তাঁহারও কোন সংবাদ লইলাম না। বোধ করি বন্ধু আমারে স্বার্থপর ও অকৃতজ্ঞ ভাবিতেছেন।

 রাজকুমার একাকী এইরূপ চিন্তা করিতেছেন এমন সময়ে রাজকন্যা অকস্মাৎ তথায় উপস্থিত হইয়া তাঁহাকে উৎকণ্ঠিত দেখিয়া জিজ্ঞাসিলেন নাথ আজি কি নিমিত্ত তুমি এমন বিমনা হইয়াছ। তোমার চন্দ্রবদন বিষণ্ণ দেখিলে আমি দশ দিক্‌ শূন্য দেখি। অসুখের কারণ বল ত্বরায় তাহার