পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>bry বৌ-ঠাকুরাণীর হাট আপনার রাজ্য চাহি না—আপনার সিংহাসন হইতে আমাকে অব্যাহতি निन-4ई डिक्र| ।" o প্রতাপাদিত্যও তাকাই চান, তিনি কহিলেন—“তুমি যাহা বলিতেছ, তাহা যে সত্যই তোমাৰ হৃদষের ভাব তাহা কী করিয়৷ জানিব ?” উদয়াদিত্য কহিলেন—“দুর্বলতা লইয। জন্মগ্রহণ করিয়াছি বটে, কিন্তু আজ পর্য্যন্ত নিজের স্বার্থেব জন্য কখনো মিথ্যা কথা বলি নাই । বিশ্বাস না করেন যদি, আজ আমি মা-কালীর চবণ স্পর্শ করিয শপথ করিব—আপনার বাজ্যের এক সুচ্যগ্ৰভূমিও আমি কখনো শাসন করিব না—সমরাদিত্যই আপনাব রাজ্যের উত্তরাধিকারী।” প্রতাপাদিত্য সন্তুষ্ট হইয়া কহিলেন “তুমি তবে কী চাও ?” উদয়াদিত্য কহিলেন “মহারাজ, আমি আর কিছুই চাই ন!—কেবল আমাকে পিঙ্করাবদ্ধ পশুর মতো গারদে পূরিয় রাখিবেন না! আমাকে পরিত্যাগ করুন, আমি এখনি কাণী চলিয়া যাই । আর একটি ভিক্ষ+— আমাকে কিঞ্চিৎ অর্থ দিন—আমি সেখানে দাদামহাশয়ের নামে এক অতিথিশালা ও একটি মন্দির প্রতিষ্ঠা করিব।” ' প্রতাপাদিত্য কহিলেন—“আচ্ছা, তাহাই স্বীকার করিতেছি।” সেই দিনই উদয়াদিত্য মন্দিবে গিয়া প্রতাপাদিত্যের সম্মুখে শপথ করিয়া কহিলেন—“মা কালী, তুমি সাক্ষী থাক, তোমার পা ছুইয়। আমি শপথ করিতেছি—যত দিন আমি বঁচিয়া থাকিব, যশোহরের মহারাজের রাজ্যের এক তিলও আমি আমার বলিয়া গ্রহণ করিব না— যশোহুৱেক্ষ সিংহাসনে আমি বসিব না, যশোহরের রাজদও আমি স্পর্শও করিব না। যদি কখনো করি, তবে এই দাদা মহাশয়ের হত্যার পাপ সমস্ত যেন আমারই হয় ? বলিয়া শিহরিয়া উঠিলেন। মহারাণী যখন শুনিলেন, উদয়াৰিতা ৰাণী চলিয়া ধাইতেছেন, তখন